ঢাকা, রোববার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ০৪ কার্তিক ১৪২৬, ২০ সফর ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

পাঁচ বছর পর...

রুমু, চট্টগ্রাম ব্যুরো : | প্রকাশের সময় : ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ১২:০০ এএম

সাগর পাড়ের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সবশেষ কবে আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি হয়েছিল, তা মনে করতে পারছিলেন না স্টেডিয়াম সংশ্লিষ্ট অনেকেই। নিয়মিত বিপিএলের ম্যাচ হওয়ায় আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টির কথা মনেও নেই অনেকের। তবে স্টেডিয়ামের কিউরেটর জাহিদ রেজা বাবুর মনে আছে সব, ‘২০১৪ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শেষ সিরিজ খেলেছিল বাংলাদেশ।’ ওই ম্যাচের ফলও বলে দিলেন গড়গড় করে, ‘দ্ইু রানে ও তিন উইকেটে ম্যাচ হেরেছিলাম আমরা।’

ওই দুই ম্যাচের পর এখানেই হয়েছিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ম্যাচ। যেখানে বাংলাদেশ খেলেছিল বাছাই পর্বের দুই ম্যাচ নেপাল ও হংকংয়ের বিপক্ষে। নেপালের বিপক্ষে ম্যাচ জিতলেও বাংলাদেশ লজ্জা পেয়েছিল হংকংয়ের বিপক্ষে হেরে। ওই বিশ্বকাপে চট্টগ্রাম পর্বের শেষ ম্যাচ খেলেছিল নিউজিল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কা। এরপর পাঁচ বছর এখানে হয়নি কোনো টি-টোয়েন্টি। দীর্ঘ সময় পর আবার টি-টোয়েন্টি ফিরেছে সাগরিকায়। ওয়ানডে, টেস্টের পারফরম্যান্স ও ফলাফলের জন্য এ মাঠকে বলা হয় পয়মন্ত। তবে টি-টোয়েন্টিতে এখানে বাংলাদেশের রেকর্ড হতশ্রী। সাগরিকায় সবমিলিয়ে ১৭টি (গতকালেরটি বাদে) টি-টোয়েন্টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হয়েছে। তবে বাংলাদেশ খেলেছে মাত্র ৪টি।

যার তিনটিতেই হেরেছে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজের দুই ম্যাচ হারের পর নেপাল ও হংকংয়ের বিপক্ষে বিশ্বকাপের ম্যাচ খেলেছিল বাংলাদেশ। নেপালের বিপক্ষে ম্যাচ জিতলেও বাংলাদেশ হেরেছিল হংকংয়ের কাছে।

এমাঠে সবশেষ সুখস্মৃতিটি বাংলাদেশের পক্ষেই, গত বছর অক্টোবরে এই জিম্বাবুয়েকে ¯্রফে উড়িয়ে দিয়েছিল বাংলাদেশ। ২০১৪ সালের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে জাহিদ রেজা বাবু বললেন, ‘অনেক দিন পর এখানে টি-টোয়েন্টি ম্যাচ হচ্ছে। সেই ২০১৪ সালের বিশ্বকাপের কিছু ম্যাচ হয়েছিল। স্পষ্ট মনে আছে, কীভাবে উইকেট বানিয়েছিলাম। তবে ৫ বছর পর আবার টি-টোয়েন্টি ফিরছে বলে ভালো লাগছে। আশা করি সাগরিকার প্রত্যাবর্তনের এই ম্যাচটি বাংলাদেশ জয় দিয়েই শুরু করবে।’এরই মধ্যে পাঠকরা নিশ্চয়ই জেনে গেছেন কিউরেটর বাবুর মতো ১৬ কোটি বাংলাদেশির মনের আশা পূরণ হয়েছে কি-না!

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন