ঢাকা, সোমবার, ৩০ মার্চ ২০২০, ১৬ চৈত্র ১৪২৬, ০৪ শাবান ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

করোনা আতঙ্কে পিছিয়েই যাচ্ছে আইপিএল

ভারত সফরে হাত মেলাতে ভয় প্রোটিয়াদের

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১০ মার্চ, ২০২০, ১২:০১ এএম

নির্ধারিত স‚চি অনুযায়ি ২৯ মার্চ থেকে শুরু ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল)। উদ্বোধনী দিনে ম্ম্বুাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হওয়ার কথা রয়েছে মুম্বাই ইন্ডিয়ানস ও চেন্নাই সুপার কিংসের। টি-টোয়েন্টির জমজমাট এই আসর নিয়ে শুরু হয়েছে ধোঁয়াশা। করোনাভাইরাসের আতঙ্কের কারণে শঙ্কার মুখে এবারের আয়োজন।

আইপিএল পেছানোর দাবি তুলেছে মহারাষ্ট্র সরকার। ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামটি মহারাষ্ট্রের অধীনেই রয়েছে। করোনার কারণে আইপিএল স্থগিত করার দাবি তুলেছেন রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজেশ তোপে। করোনা রোধে জনসমাগম হয় এমন জায়গা এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। একই সুর মহারাষ্ট্রের স্বাস্থ্যমন্ত্রীর গলায়ও, ‘এক জায়গায় অনেক মানুষ একত্রিত হলে করোনাভাইরাস ছড়ানোর সম্ভাবনা তৈরি হয়। আইপিএলের মতো আয়োজন কয়েক দিন পরেই হওয়া উচিৎ।

যদিও ভারতীয় ক্রিকেট নিয়ন্ত্রক সংস্থার (বিসিসিআই) সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলি জানিয়েছেন, ‘নির্ধারিত স‚চিতেই অনুষ্ঠিত হবে আইপিএল। টুর্নামেন্ট সুষ্ঠ ভাবে আয়োজন করার জন্য সবরকম ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বোর্ডের পক্ষ থেকে।’ বিসিসিআইয়ের পক্ষ থেকে জানানো হয়, সরকারের সঙ্গে করোনা সংক্রান্ত আলোচনা করেছে আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিল। সতর্ক করা হয়েছে সব ফ্র্যাঞ্চাইজিকেও।

এদিকে, ভারতের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে গতকাল দেশটিতে পৌঁছেছে দক্ষিণ আফ্রিকা দল। ধর্মশালায় ১২ মার্চের দিয়ে শুরু হবে এই সিরিজ। কিন্তু তারা ভারতে এসেছে করোনাভাইরাস সম্পর্কে অতি সতর্ক হয়ে। সতর্কতা এমনই যে, এমনও হতে পারে সফরে কারো সঙ্গে হাতই মেলালেন না দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলের সদস্যরা।

গতকাল পর্যন্ত ভারতে ৪৩ জন করোনাভাইরাস আক্রান্তকে শনাক্ত করা গেছে। এটা জেনেই দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে রওনা হওয়ার আগে সংবাদ সম্মেলনে প্রোটিয়াদের প্রধান কোচ মার্ক বাউচার বলেছেন, ‘করমর্দন এবং এ ধরনের বিষয়গুলো উদ্বেগের। সুতরাং এটি যদি সামনে চলে আসে, আমাদের কিছু তো করতেই হবে। আমাদের দলের কারো কিছু হওয়াটা এভাবে ঠেকানো যাবে।’

এই পরিস্থিতিতে হাত না মেলানোটাও পারস্পরিক শ্রদ্ধাবোধের বিষয় বলে মনে করেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান, ‘আমি মনে করি আপনি যা বয়ে নিয়ে বেড়াচ্ছেন তা আপনার পাশের খেলোয়াড়দের শরীরে না ছড়ানোটাই হবে তাদের শ্রদ্ধা জানানো।’
দক্ষিণ আফ্রিকার নিরাপত্তা ও মেডিকেল টিম ভারত ভ্রমণের ঝুঁকি পর্যবেক্ষণ করে সবুজ সংকেত দেওয়ার পরই প্রোটিয়ারা এসেছে সফরে। তবে সঙ্গে থাকা নিরাপত্তা দল যদি করোনাভাইরাস কোভিড-১৯কে খুব বিপজ্জনক মনে করে তাহলে সফর অসমাপ্ত রেখেই ফিরে যেতে পারে প্রোটিয়া দল। বাউচার জানান, ‘আমাদের সঙ্গে নিরাপত্তা দল আছে এবং আমরা যদি মনে করি স্বাস্থ্য ঝুঁকি বেশি, তাদের তা জানাবো। তারা যদি মনে করে পরিস্থিতি বিপজ্জনক, আমাদের ফিরিয়ে নিয়ে যাবে, কোনও ব্যত্যয় ঘটবে না।’

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন