ঢাকা বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮ আশ্বিন ১৪২৭, ০৫ সফর ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

বিদায় বললেন আর্জেন্টিনাকে কাঁদানো শুরলে

২৯ বছরেই অবসর

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৯ জুলাই, ২০২০, ১২:০০ এএম

ব্রাজিলের সমর্থকেরাও তাঁকে খুব একটা ভালোবাসার কথা নয়। ২০১৪ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে জার্মানির কাছে ব্রাজিলের ৭-১ গোলে হারের ম্যাচে দুই গোল করেছিলেন তিনি। তবে ব্রাজিলের চেয়েও আর্জেন্টিনার কাছে সম্ভবত আন্দ্রে শুরলে নামটা বেশি বিষময়। ওই বিশ্বকাপেরই ফাইনালে আর্জেন্টিনাকে ১-০ গোলে হারিয়ে শিরোপা জেতে জার্মানি, বিশ্বকাপ স্বপ্নের খুব কাছে গিয়ে শূন্য হাতে ফেরে লিওনেল মেসির দল। সেদিন ফাইনালের ১১৩ তম মিনিটে মারিও গোৎসের করা গোলটা গড়ে দিয়েছিলেন যে শুরলেই।
ওই বিশ্বকাপের আগে-পরেও তার ক্যারিয়ারের অনেক সাফল্য-ব্যর্থতার গল্প আছে। তবে আর্জেন্টিনা সমর্থকদের কাছে শুরলের ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় মুহূর্ত সেটিই। আর্জেন্টিনাকে সেদিন কাঁদানো সেই শুরলা গতকাল মাত্র ২৯ বছর বয়সে ফুটবল ক্যারিয়ারের ইতি টেনে দিয়েছেন। এক জার্মান সাময়িকী ডার স্পাইগেলকে শেষ দিকে কঠিন সময় কাটানোর কথা জানান, ‘এই সিদ্ধান্তের কথা অনেক দিন ধরেই ভাবছিলাম। আমার আর কোনো প্রশংসা দরকার নেই। কোনো ক্ষেত্রে টিকে থাকার জন্য সবসময় একটি নির্দিষ্ট ভূমিকা পালন করতে হবে, অন্যথায় চাকরি হারাতে হবে এবং নতুন কোনো কাজ পাওয়া যাবে না।’
মেইঞ্জের জার্সিতে ২০৯ সালে অভিষেক। পরে লেভারক্যুসেনে আলো ছড়ানোর পরই ডাক পান চেলসির। সেখান থেকে ফের জার্মানির উল্ফসবুর্গ, বরুসিয়া ডর্টমুন্ড হয়ে সবশেষ দুই মৌসুমে স্পার্তাক মস্কো আর ফুলহ্যামেও ধারে খেলা শুরলে ছিলেন ব্যর্থ। সব মিলিয়ে ক্লাব ক্যারিয়ারে ৩৭০ এর বেশি ম্যাচ খেলেছেন শুরলে। জার্মানির হয়ে ৫৭ ম্যাচ খেলে গোল করেছেন ২২টি। সবশেষ তিনি জাতীয় দলের জার্সিতে খেলেন ২০১৭ সালে। ডর্টমুন্ডের সঙ্গে তার চুক্তির আরও এক বছর বাকি ছিল, কিন্তু দিন দুয়েক আগে চুক্তি বাতিল করে দলটি। এক পরই জীবনের সবচেয়ে কঠিনতম সিদ্ধান্তটি নিয়ে ফেলেন শুরলে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন