ঢাকা শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ৪ বৈশাখ ১৪২৮, ০৪ রমজান ১৪৪২ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

বিজয়ে শতভাগ আশাবাদী : রেজাউল সুষ্ঠু ভোট হলে বিজয়ী হব : শাহাদাত

চট্টগ্রাম ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৭ জানুয়ারি, ২০২১, ১২:০২ এএম

বিজয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী এম রেজাউল করিম চৌধুরী। গতকাল মঙ্গলবার নগরীর বহদ্দারহাটে নিজ বাড়িতে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন। অন্যদিকে বিএনপির মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, সুষ্ঠু ভোট হলে আমরাই বিজয়ী হবো।

আওয়ামী লীগ প্রার্থী রেজাউল করিম গতকাল দিনভর বাসায় অবস্থান করেন। নেতাকর্মী ও আত্মীয় স্বজনদের সাথে মতবিনিময় করেন। বিএনপি নানা অজুহাতে নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চক্রান্ত করছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। আজ বুধবার সকালে নিজ এলাকার এখলাসুর রহমান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোট দেবেন তিনি। টানা ১৮ দিনের প্রচারে মাঠে সক্রিয় থাকায় দলীয় নেতাকর্মীদের ধন্যবাদ জানিয়ে ভোটকেন্দ্রে উপস্থিত হওয়ার পরামর্শ দেন। কেউ যাতে ভোটকেন্দ্রে বিশৃঙ্খলা করতে না পারে সে ব্যাপারে তাদের সতর্ক থাকতে এবং নির্বাচনী বিধি মেনে কেন্দ্রের অদূরে নেতাকর্মীদের সারাদিন শান্তিপ‚র্ণ অবস্থান রাখার প্রতিও জোর দেন তিনি।

তিনি বলেন, চট্টগ্রামবাসী নৌকায় ভোট দিতে মুখিয়ে আছেন। বিএনপির অভিযোগ প্রসঙ্গে রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, তারা জনরায়কে ভয় পায়। তাই তারা নানা অজুহাতে নির্বাচন বানচাল করতে চায়। নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে চায়। ভোটের প্রচারে তারা আমাদের পোষ্টার ছিঁড়ে, নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর করে, এমনকি আমাদের কর্মীদের উপর হামলা করে পরিস্থিতি উত্তপ্ত করতে চেয়েছিল। একটি অরাজক পরিস্থিতি সৃষ্টির অপচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছে। তাদের পাতানো ফাঁদে আমাদের নেতাকর্মীরা পা দেননি। এখন উল্টো ভিত্তিহীন নানা অভিযোগ তুলে নির্বাচন বানচালের শেষ চেষ্টা চালাচ্ছেন তারা। এ সময় তার সাথে ছিলেন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, এডভোকেট ইব্রাহিম হোসেন চৌধুরী বাবুল, আলতাফ হোসেন বাচ্চু প্রমুখ।
এদিকে বিএনপির প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন গতকাল ভোটকেন্দ্রের পোলিং এজেন্ট ও দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে মতবিনিময় করেন। এরপর গ্রেফতারকৃত এজেন্টদের ছাড়িয়ে আনতে রিটার্নিং কর্মকর্তার অফিসে যান তিনি। আজ তিনি নগরীর পশ্চিম বাকলিয়ায় বিএড কলেজ কেন্দ্রে ভোট দেবেন। তিনি বলেন, আমরা স্পষ্ট বলতে চাই জনগণ রাজপথে আছে। তারা ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য সংগ্রাম করে যাচ্ছে। আমরা ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করে যাচ্ছি। ইনশাআল্লাহ জনগণ যদি ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে পারে তাহলে আমরা জয়ী হবো। সরকার একতরফা একটি ভোট ডাকাতির নির্বাচনের দিকেই এগিয়ে যাচ্ছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, আমরা ভোটের মাঠ ছেড়ে যাবো না। জনগণের অধিকার আদায়ে শেষ পর্যন্ত লড়ে যাবো।

সোমবার রাতে বিএনপির আরও ৫৬ জন পোলিং এজেন্টকে গ্রেফতার করা হয়েছে উল্লেখ করে নির্বাচনের একদিন আগে এজেন্ট গ্রেফতারের মাধ্যমে নির্বাচনের পরিবেশ একেবারে নষ্ট হয়ে গেছে। একতরফা একটা ভোট ডাকাতির নির্বাচনের দিকে সরকার আবার এগিয়ে যাচ্ছে। বারো বছরে একটি সুষ্ঠু নির্বাচনেরও রেকর্ড নেই তাদের। তিনি বলেন, ফরম পূরণ করার পর একজন পোলিং এজেন্ট নির্বাচন কমিশনের অংশ। ইসির উচিত তাদের ছাড়িয়ে আনা। যদি এটা না পারে তাহলে তাদের পদত্যাগ করা উচিত। আওয়ামী লীগ পরাজয়ের ভয়ে ভীত, এমন মন্তব্য করে তিনি বলেন, গত সাতদিনের পরিবেশ নষ্ট করা হয়েছে। গত দুদিন যেভাবে এজেন্ট ধরা শুরু হয়েছে তাতে বোঝা যাচ্ছে আওয়ামী লীগ জনগণকে বিশ্বাসই করতে পারছে না। তারা সন্ত্রাস এবং অতি উৎসাহী কর্মকর্তাদের ব্যবহার করে আবারও ভোট ডাকাতির মাধ্যমে মেয়র নির্বাচিত হতে চায়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন