সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৩ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

ভাগ্যের ছোঁয়ায় ম্যানইউর জয়

আবারও পিএসজির হোঁচট

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৬ মার্চ, ২০২১, ১২:০০ এএম

ক’দিন আগেই চ্যাম্পিয়ন্স লিগের আসর থেকে বার্সেলোনাকে ছিটকে ফেলেছিল প্যারিস জেইন্ট জার্মেই। অথচ ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানে পরশু রাতে ঘরের মাঠে দুর্বল নান্টেসের বিপক্ষে জিতে পয়েন্ট টেবিলে এগিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি গোল গড়ে এগিয়ে থেকে লিগ টেবিলের শীর্ষে থাকা লিঁলেকে পিছনে ফেলে এক নম্বরে ওঠার হাতছানি ছিল কোচ মরিসিও পচেত্তিনোর দলের সামনে। তবে সে সুযোগ কাজে লাগাতে পারেনি তারা। পয়েন্ট টেবিলের তলানির দিকের দল নান্টেসের কাছে হোঁচট খেয়েছে পিএসজি। ২-১ গোলের ব্যবধানে ম্যাচ হেরেছে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।
চ্যাম্পিয়ন্স লিগে কোয়ার্টার-ফাইনাল নিশ্চিত করলেও লিগ কাপে আধিপত্য দেখাতে পারছে না পিএসজি। লিগে এ নিয়ে সপ্তম হারের মুখ দেখল নেইমার-এমবাপেরা। এটি নিজেদের মাঠে চতুর্থ হার তাদের। নান্টেসের বিপক্ষে হারের ফলে ২৯ ম্যাচে ১৯ জয় ও ৩ ড্রয়ের কল্যাণে ৬০ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে থেকে গেল পিএসজি। সমান ২৯ ম্যাচে ১৮টি জয় ও ২ ড্রয়ে ৬৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থানে লিঁলে। এদিকে ম্যাচ জিতেও লিগ টেবিলের ১৮তম স্থানে অবস্থান নান্টেসের।
ম্যাচে বল দখলের লড়াইয়ে একক আধিপত্য পিএসজির। তবে গোল মুখে আক্রমণে এমবাপেদের সঙ্গে সমানে টক্কর দিয়েছে নান্টেস। ম্যাচে প্রথম সাফল্যের দেখা পায় স্বাগতিকরা। ৪২তম মিনিটে জুলিয়ান ড্রাক্সলার গোল করে এগিয়ে নেন পিএসজিকে। বাঁ পায়ের শটে জালের ঠিকানা খুঁজে নেন জার্মান মিডফিল্ডার। বিরতির আগে গোল হয়েছে এই একটিই।
দ্বিতীয়ার্ধে ঘুরে দাঁড়ায় নান্টেস। ম্যাচের ৫৯ মিনিটে ডি-বক্সের মধ্যে থেকে দলকে সমতায় ফেরান কোলো মুয়ানি। ১২ মিনিট পর জয়সূচক গোলে সহায়তা করেন তিনি। মুয়ানির কাছ থেকে বল পেয়ে নান্টেসকে এগিয়ে নেন মোসেস সিমন। বাকি সময়ে এই গোলটি শোধ করতে পারেনি পিএসজি। ফলে ২-১ গোলের ব্যবধানে হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় তাদের।
অন্যদিকে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে জয়ের ধারা অব্যাহত রেখেছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ওয়েস্টহ্যাম ইউনাইটেডকে একই রাতে ১-০ গোলে হারিয়েছে রেড ডেভিলরা। লিগের আরেক ম্যাচে নর্থ লন্ডন ডার্বিতে শেষ হাসি হাসলো আর্সেনাল। গানারদের মাঠে ২-১ গোলে হেরেছে টটেনহ্যাম হটস্পার। ম্যাচে রেফারির সিদ্ধান্ত নিয়ে অভিযোগ করেছেন স্পার কোচ হোসে মরিনহো।
ইউরোপা লিগে এসি মিলানের বিপক্ষে ড্র’র আক্ষেপ সঙ্গী করে মাঠে ইউনাইটেড। লিগে শেষ ম্যাচে নগর প্রতিদ্ব›দ্বীদের জয়রথ থামিয়ে দেয়ার আত্মবিশ্বাস ছিল। তবে মাঠের পারফরমেন্সে এদিন নিশ্চয় হতাশাই বেড়েছে কোচ সুলশারের।
অবশ্য এভাবে বলাটাও যথার্থ নয়। পুরো ম্যাচটায় দাপট দেখিয়েছে রেড ডেভিলস। জয়ও আদায় করেছে। তবে আক্ষেপ গোলটা আসেনি নিজেদের পায়ে। অথচ ২৫ মিনিটেই এগিয়ে যেতে পারতো ম্যান ইউনাইটেড। যদি না লক্ষ্যভ্রষ্ট হতেন র‌্যাশফোর্ড। ৩৭ মিনিটে গ্রিনউডের শটটা আটকে দেয়ার পুরো কৃতিত্ব লুকাসের। এভাবেই গোল মিসের মহড়ায় শেষ হয়েছে প্রথমার্ধ।
বিরতি থেকে ফিরে চাপের মুখে একটা বড় ভুল করে বসেছে ওয়েস্টহ্যাম ইউনাইটেড। ব্রুনো ফার্নান্দেসের হেড ঠেকাতে গিয়ে আত্মঘাতী গোল করে বসেন ডসন। লিড পায় ম্যানচেস্টার জায়ান্টরা। বাকি সময় একই রকম আক্রমণ চালিয়েও স্কোর শিটে নাম তুলতে পারেনি কেউ। নুন্যতম ব্যবধানের জয়ে মাঠ ছাড়ে ইউনাইটেড।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন