রোববার ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০২ জামাদিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ডিএনডিবাসীদের কাছে শামীম ওসমানের অসহায় আত্মসমর্পন

নারায়ণগঞ্জ থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ জুলাই, ২০২১, ১১:১২ এএম

এমপি একেএম শামীম ওসমান দেশে ফিরেই বললেন, ডিএনডি ও ফতুল্লার বিভিন্ন এলাকাতে এখনো পানি জমে থাকায় আমি আন্তরিকভাবে দুঃখিত। এজন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী। আমি ২০ দিন ছিলাম না। আমি আমেরিকাতে গিয়েছিলাম সঙ্কটাপন্ন থাকা আমার শ্বশুরকে দেখতে। দেশে ফিরেই সভার আয়োজন করতে বলেছি। মূলত বিভিন্ন সরকারী দপ্তর যারা সংশ্লিষ্ট তাদের সমন্বয়হীনতার কারণে অনেক স্থান হতে পানি সরতে পারছে না।
৪ জুলাই দুপুরে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসনের সম্মেলন কক্ষে জলাবদ্ধতা নিরসন নিয়ে বৈঠকে এসব কথা বলেন শামীম ওসমান। এতে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ।সভায় ডিএনডির মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নকারী সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা, এলজিইডি, সড়ক ও জনপথ সহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা সহ জনপ্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।
সভায় এক পর্যায়ে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রীর সঙ্গে মোবাইলে কথা বলেন শামীম ওসমান। ওই সময়ে প্রতিমন্ত্রী মোবাইলে ডিএনডি প্রকল্প নিয়ে সরকারের অবস্থান ব্যক্ত করেন। সেই সঙ্গে আগামী রোববার তিনি নারায়ণগঞ্জ আসবেন জানান।শামীম ওসমান পরে বলেন, আগামী রোববার মন্ত্রী আসবে এর আগেই আমাদের বসে একটি সুষ্ঠু সমাধানের পথে আসতে হবে যাতে মন্ত্রীকে বিষয়গুলো অবহিত করা যায়।
শামীম ওসমান বলেন, যখন ডিএনডি তৈরি করা হয়েছিল তখন ছিল বেহেশতের টুকরো এখন তা অভিশাপ। ফতুল্লার লালপুর যা অভিশপ্ত এলাকা হয়ে গেছে। জায়গাটা হল নিচু এবং পানি বের হওয়ার যে রাস্তাগুলো আছে সেগুলো উচু। নিচু জায়গা থেকে তো পানি আর উচু জায়গায় যেতে পারবে না। লিংক রোডের কাজের জন্য প্রায় আট কিলোমিটার রাস্তায় আমরা বালু ভরাট করছি। ওই আট কিলোমিটার রাস্তায় ডিএনডির যে খালগুলো তাদের কোন সংযোগ আছে কী না আমরা তা জানি না। কুতুবপুরে ওয়াসার পাশে আমাদের একটা রাস্তা আছে। আগে সেই এলাকায় প্রতি বর্ষায় ওয়াসা দশটি করে অস্থায়ী পাম্প বসাতো। এখন ঢাকা সিটি করপোরেশন ওয়াসার দায়িত্ব নিয়েছে। ফলে সেই পাম্পটা এখন চলছে না। তাদের সাথে আমার কথা হয়েছে। আশাকরি তারা সেই পাম্পগুলো চালু করে দেবেন।
তিনি বলেন, আমার প্রশ্ন গতবছর বৃষ্টিতে তো এমন বাজে অবস্থা হয়নি। এবার এমন এত বাজে অবস্থা। সিটি করপোরেশন এলাকার পানিটা গোরস্থানের দিক দিয়ে এসে ফতুল্লা গাবতলী হয়ে বেরিয়ে যাচ্ছে। সেটা যেখান দিয়ে বের হওয়ার কথা সেই জায়গাটা আটকে যাচ্ছে এবং এইসব এলাকার মানুষ পানিতে ভাসছে। সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকাতে আমি কোন ড্রেন করতে পারছি না। কারণ সেটা সিটি করপোরেশনের।
তিনি আরও বলেন, দুই বছর আগে জালকুড়িতে সিটি করপোরেশনকে ডাম্পিং করার জন্য জায়গা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। যেন সেখানে ময়লা ফেলে তা দিয়ে ইলেকট্রিসিটি উৎপাদন করা যায়। জালকুড়ির মানুষের চরম আপত্তির পরেও জেলা প্রশাসন ওই জায়গা বরাদ্দ দেন। আজ পর্যন্ত সেই কাজের কোন অগ্রগতি নেই। ময়লাটা ফালানো হচ্ছে লিংক রোডের পাশে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন