মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৩ কার্তিক ১৪২৮, ১১ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

সোনাগাজীতে ধর্ষণের অভিযোগ এনে নির্যাতন

সোনাগাজী (ফেনী) সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ৩০ আগস্ট, ২০২১, ৭:২৯ পিএম

সোনাগাজীতে জামাত নেতার মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগ এনে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। জানা যায়, হামিদুর রহমান আযাদ নামে শিবির কর্মী রবিবার রাতে প্রেমের টানে উপজেলার বগাদানা ইউনিয়নের পাইকপাড়া গ্রামের আশ্রাফ আলী কবিরাজ বাড়িতে যায়। ওই সময় বাড়ির লোকজন তাকে গাছের সাথে বেঁধে, বেদম নির্যাতন করে, সোনাগাজী মডেল থানা পুলিশে সোপর্দ করে। রাতেই প্রেমিকার ভাই দিল মোহাম্মদের ফেসবুক আইডি থেকে শিবির নেতাকে রশি দিয়ে বেঁধে রাখার ছবি সম্বলিত পোষ্ট করে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ চাওয়ার পর বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়।

ওই ঘটনায় বগাদানা ইউনিয়ন জামায়াতের সাধারন সম্পাদক মাওলানা আব্দুল হাই বাদী হয়ে শিবির নেতাকে আসামী করে সোমবার দুপুরে সোনাগাজী মডেল থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেছেন। অভিযুক্ত আযাদ উপজেলার মজলিশপুর ইউনিয়নের চরবদরপুর গ্রামের বেলায়েত হোসেনের ছেলে এবং উপজেলা ছাত্রশিবির উত্তর শাখার সাবেক সভাপতি। ধর্ষণ চেষ্টা মামলার বাদী বলেন, মেয়েকে প্রাইভেট পড়ানোর সুবাদে অভিযুক্তের সাথে আমার পরিবারের সখ্যতা গড়ে উঠে। এ সুযোগে সে আমার কিশোরী মেয়েকে ফুসলিয়ে প্রেমের ফাঁদে ফেলার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। বিষয়টি আমার পরিবার জানতে পেরে তাকে প্রাইভেট পড়ানো থেকে অব্যাহতি দেওয়া হলে সে ক্ষিপ্ত হয়। রবিবার গভীর রাতে সে আমার বাড়িতে চুপিসারে প্রবেশ করে মেয়ের শয়নকক্ষে ডুকে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়ে শারীরিক নির্যাতন করে। পরিবারের সদস্যরা টের পেয়ে তাকে আটক করলে স্থানীয় জনতা জানতে পেরে তাকে রশি পেঁচিয়ে বৈদ্যুতিক খুঁটির সাথে বেঁধে রাখে।

এদিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নির্যাতনের ছবি ছড়িয়ে হেয় প্রতিপন্ন করার অভিযোগে শিবির নেতার পিতা বেলায়েত হোসেন বাদী হয়ে ধর্ষণ চেষ্টা মামলার ভিকটিমের ভাই দীন মোহাম্মদের নামে সোনাগাজী থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা দায়ের করেছেন। পুলিশ দীন মোহাম্মদকেও গ্রেফতার করেন। সোনাগাজী মডেল থানার ওসি সাজেদুল ইসলাম পাল্টাপাল্টি মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ধর্ষণ চেষ্টার মামলার আসামীকে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ভিকটিমের জবানবন্দি গ্রহণ শেষে ভিকটিমকে পরিবারের জিম্মায় হস্তান্তর করা হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Jafar ৩১ আগস্ট, ২০২১, ১:৩৪ এএম says : 0
নিউজ টি পোষ্ট করার জন্য সম্পাদকে ধন্যবাদ
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন