সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৩ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

মহানগর

রাজধানীতে পৃথক ঘটনায় শিশুসহ প্রাণ গেল তিনজনের

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১০ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ১২:০৭ এএম

রাজধানীতে পৃথক ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন তিনজন। তাদের মধ্যে মালিবাগ রেলগেট এলাকায় ট্রেনে কাটা পড়ে এলাহী বক্স আব্দুল্লাহ (৫২) নামে এক মাদরাসা শিক্ষকের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল সকালে মালিবাগ বাজার রেলগেট এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত আব্দুল্লাহ কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার বাসিন্দা। তিনি চার সন্তান ও স্ত্রীকে নিয়ে বর্তমানে মালিবাগ এলাকার একটি মাদরাসার কোয়াটারে থাকতেন।

ঢাকা রেলওয়ে থানার এসআই রফিকুল ইসলাম জানান, মালিবাগ রেলগেট এলাকায় কমলাপুর থেকে ছেড়ে যাওয়া একটি ট্রেনে কাটা পড়ে ঘটনাস্থলেই মারা যায় আব্দুল্লাহ। নিহত ওই এলাকার একটি মাদরাসার বাংলা বিভাগের শিক্ষক ছিলেন। তবে পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

এদিকে, বনানীর কড়াইল বস্তি এলাকায় পিকআপের চাপায় নুর মোহাম্মদ নুরাজ (৫) নামে এক শিশু মারা গেছে। গতকাল বেলা ১১টার দিকে কড়াইল বস্তির বাসার সামনে ঘটনাটি ঘটে। এ সময় বাসার সামনেই অন্যান্য শিশুদের সঙ্গে খেলছিল সে। মৃত নুরাজ শেরপুর সদর উপজেলার গাজিখামা গ্রামের আনিছুর রহমানের ছেলে। পরিবারের সঙ্গে বনানী কড়াইল বস্তিতে থাকতো।

শিশুটির মা স্বর্না আক্তার জানান, তার দুই ছেলের মধ্যে নুরাজ ছিল ছোট। বড় ছেলের নাম আবু বক্কর। ওদের বাবা আনিচুর চার বছর আগে অন্যত্র চলে গেছেন। নিজে বাসা বাড়িতে কাজ করে সংসার চালান। তিনি আরও জানান, সকালে বাসার সামনে খেলছিল নুরাজ। এ সময় একটি পিকআপ ভ্যান তাকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই নুরাজ মারা যায়।

বনানী থানার ওসি নুরে আজম মিয়া জানান, বেলা ১১টার দিকে কড়াইল বস্তি এলাকায় বাসার সামনের রাস্তায় খেলার সময় একটি শিশুকে পিকআপ ভ্যান চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই শিশুটি মারা যায়। তিনি আরও জানান, এ ঘটনার পর চালকসহ পিকআপটি জব্দ করা হয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। তবে পরিবারের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে শিশুটির লাশ ময়নাতদন্ত ছাড়াই স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

এদিকে, ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে খোরশেদ আলম (৬০) নামে এক হাজতির মৃত্যু হয়েছে। গতকাল বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে অচেতন অবস্থায় তাকে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগার (কেরানীগঞ্জ) থেকে হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।
ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের (কেরানীগঞ্জ) কারারক্ষী মো. রবিউল ইসলাম জানান, কারাগারে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে দ্রুত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে নেওয়ার পরপরই চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এর আগেও তাকে ঢাকা মেডিকেল ও মিটফোর্ড হাসপাতালে ভর্তি রেখে চিকিৎসা করানো হয়েছিল।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন