বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১১ কার্তিক ১৪২৮, ১৯ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ফরিদপুরে জাল দিয়ে মাছ ধরার উৎসব

ফরিদপুর জেলা সংবাদদাতা : | প্রকাশের সময় : ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯:২৩ পিএম

ফরিদপুর আলফাডাঙ্গায় চলছে জাল দিয়ে মাছ ধরার উৎসব। আধুনিক যুগে বাংলার পুরনো ঐতিহ্য দলবেঁধে মাছ ধরার দৃশ্য দীর্ঘদিন পরে যেন হারানো স্মৃতি মনে করিয়ে দিয়েছে এলাকাবাসীর। উপজেলার বানা ইউনিয়নের পÐিতের বানা ঐতিহ্যবাহী নিশিনাথ তলা নামক স্থানে খালে মাছ ধরার এমন দৃশ্য দেখা যায়।

গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল থেকে প্রায় দিনভর চলে মাছ ধরা। এলাকার প্রায় ২০ থেকে ২৫ জন শৌখিন মাছ শিকারী খেপলা জাল নিয়ে মাছ ধরায় মেতে উঠেন। এ সময় উপস্থিত হন এলাকার বহু মানুষ। পুঁটি, টেংরা, টাকি, বাইম, চিংড়ি, শোল, বেলেসহ বিভিন্ন প্রজাতির দেশি মাছ খেপলা জালে উঠতে দেখা যায়।
দলবেঁধে মাছ ধরায় অংশ নেয়া স্থানীয় ইসলাম শেখ, হাদি সেখ, ইসাহাক শেখ, হোসাইন, জাকির হোসেন, প্রদিপ, আশুতোষসহ বেশ কয়েকজন জানান, একসময় খেপলা জাল দিয়ে মাছ ধরা ছিল অহরহ বিষয়। এখন তা দেখা যায় খুব কম। খালের পানি আস্তে আস্তে কমতে শুরু করেছে। তাই এলাকার মৎস শিকারিরা মিলে উদ্যোগ নেয় এভাবে মাছ ধরার। খবর পেয়ে অনেকেই উৎসবে যোগ দেয়। তবে আগের মতো জালে আর দেশি মাছ না পাওয়ায় হতাশ অনেকেই।
স্থানীয় ৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. আলিয়ার রহমান জানান, এলাকাবাসীর উদ্যোগে শুরু হয়েছে খেপলা জাল দিয়ে মাছ শিকার। ২৫ জনের সমন্বয়ে একাধিক দল খালের বিভিন্ন স্থানে মাছ ধরছেন। বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হয়েছে হয়তো আরো দুই একদিন এভাবে মাছ ধরার এই উৎসব চলবে।
আলফাডাঙ্গা প্রেস ক্লাবের সভাপতি এনায়েত হোসেন জানান, এক সময় এসব এলাকায় সবাই মিলে মাছ ধরা হতো। এখন তা বিলুপ্তির পথে। বানা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, এমন দৃশ্য এখন আর সচরাচর দেখা যায় না। দীর্ঘদিন পরে এমন দৃশ্য দেখতে পেলাম। খুব ভালো লেগেছে।
আলফাডাঙ্গা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ কে এম জাহিদুল হাসান জাহিদ বলেন, এ দৃশ্য যেন বিলুপ্তির পথে। সাধুবাদ জানাই এলাকাবাসীকে। তারা পুরনো ঐতিহ্য ফিরিয়ে এনে দীর্ঘদিন পরে এমন আয়োজন করেছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন