বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১১ কার্তিক ১৪২৮, ১৯ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

খেল দেখানো শুরু করেছে সউদী প্রিন্সের নিউক্যাসেল

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৯ অক্টোবর, ২০২১, ১১:৪০ পিএম

সউদী আরবের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান নিউক্যাসেলের মালিকানা কেনার পর ক্লাবটির সমর্থকরা বেশ খুশি হয়েছেন। কারণ এখন নতুন করে প্রাণ ফিরে পাবে তাদের প্রিয় ক্লাব। তবে টটেনহ্যামসহ বেশ কয়েকটি ক্লাবের মালিক বা বড় কর্তারা বিষয়টি নিয়ে ঘাটাঘাটি করার চেস্টা করছেন। যদিও এসব কিছুকে কানেই তুলছে না নিউক্যাসেলের নতুন মালিকরা।

সউদী আরব তথা মোহাম্মদ বিন সালমান নিউক্যাসেলকে কিনে নেয়ার পরই বোঝা যাচ্ছিল তারা নতুন করে ঝড় তুলবে। সেই ঝড়ের আভাস ইতোমধ্যে শুরু হয়ে গেছে। মালিক পরিবর্তন হওয়ার মাত্র একদিন পরেই নিজেদের খেল দেখানো শুরু করেছে ম্যাগপাইরা।
আর নিজেদের খেলটা তারা শুরু করেছে টটেনহ্যামের বিপক্ষেই। যারা সালমানের মালিকানা কেনার বিষয়টি একদমই মানতে পারছে না।

টটেনহ্যাম দীর্ঘদিন ধরেই অপেক্ষায় আছে পিএসজি থেকে আর্জেন্টাইন তারকা খেলোয়াড় মাউরো ইকার্দিকে আনবে। এখন টটেনহ্যামের এই লক্ষটিকেই ছোঁ মেরে নিয়ে যাওয়ার মিশনে নেমেছে নিউক্যাসেল। ইতালিয়ান সংবাদমাধ্যম সালসিও মারকাতো জানিয়েছে নিউক্যাসলের এখন প্রধান লক্ষ হলো ইকার্দিকে নিয়ে আসা।

নিউক্যাসেল আগামী তিন বছরে কোন নিয়ম না ভেঙে তাদের দল ভারী করার জন্য ২০০ মিলিয়ন ইউরো খরচ করতে পারবে। এখন সউদীর মালিকানায় থাকা ক্লাবটির টাকা পয়সার কোন সমস্যাই নেই। ফলে নিউক্যাসেলের সঙ্গে এখন টটেনহ্যামই হয়ত শেষ পর্যন্ত হেরে যাবে।

তারকায় ভরপুর পিএসজিতে খেলার সুযোগ খুব কম পান ইকার্দি। তাই তিনি ফরাসি জায়ান্টদের ছেড়ে অন্য বড় কোন ক্লাবে যেতে চান, যেখানে খেলার সুযোগও পাবেন আবার যশ খ্যাতিও পাবেন। আর এ ক্ষেত্রে নিউক্যাসেলই হতে পারে তার আদর্শ ঠিকানা।

টটেনহ্যামের পাশাপাশি আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার ইকার্দিকে আবার পেতে চায় জুভেন্টাসও। এখন দেখার বিষয় একজনকে নিয়ে তিন ক্লাবের লড়াইয়ে জয়টা পায় কে!

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
জামাল পাটোয়ারী ১০ অক্টোবর, ২০২১, ৮:৩৬ এএম says : 0
Good
Total Reply(0)
jack ali ১১ অক্টোবর, ২০২১, ১২:৫২ পিএম says : 0
Surah: 21: Ayat:16: “এবং আমি ক্রীড়াচ্ছলে সৃষ্টি করি নি আসমান ও যমীনকে এবং যা কিছু উভয়ের মধ্যখানে আছে” { Surah:45: Ayat:23: “আপনি কি তার প্রতি লক্ষ্য করেছেন যে তার খেয়াল-খুশীকে স্বীয় উপাস্য [আল্লাহ] স্থির করেছে আল্লাহ জেনেশুনে তাকে পথভ্রষ্ট করেছেন, তার কান ও অন্তরে মোহর এঁটে দিয়েছেন এবং তার চোখের উপর রেখেছেন পর্দা. অতএব আল্লাহর পর কে তাকে পথ প্রদর্শন করবে? তোমরা কি চিন্তা ভাবনা করো না?”} Surah:6: Ayat:32: “এই পার্থিব জীবন খেল তামাশা ও আমোদ প্রমোদের ব্যাপার ছাড়া আর কিছুই নয় যারা তাকওয়া (যারা আল্লাহকে ভয় করে) অবলম্বন করে পরকালের জীবনই হবে তাদের জন্য উৎকৃষ্ট. তোমরা কি চিন্তা-ভাবনা করবে না?”] আরবি জানো তোমরা কুরআন পড়ো না আল্লাহই বলছে যে তোমাদেরকে খেল-তামাশা করার জন্য সৃষ্টি করেছি তোমাদেরকে আল্লাহ জাহান্নামে ফুটবল খেলা বে
Total Reply(0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন