শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ঝিনাইগাতীতে নৌকা প্রার্থীর দলীয় নেতাকর্মিদের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

ঝিনাইগাতী (শেরপুর) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২ জানুয়ারি, ২০২২, ৩:৪৭ পিএম

পঞ্চম ধাপে ৫ জানুয়ারী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার ৪নং গৌরীপুর ইউনিয়নের বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মো: হাবিবুর রহমান মন্টুর নৌকা প্রতীকের বিপক্ষে অবস্থান নেয়ায় বিদ্রোহী প্রার্থী সহ তার সমর্থক দলীয় নেতাদের বহিস্কারের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন করেছে।
(২ জানুয়ারী) রবিবার সকাল সাড়ে ১১ ঘটিকায় স্থানীয় বনগাঁও বাজারের নির্বাচনী কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মো: হাবিবুর রহমান মন্টু।
লিখিত বক্তব্যে মো: হাবিবুর রহমান মন্টু বলেন, "বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে নৌকা প্রতীক বরাদ্দ দিয়েছেন। আমি দলের প্রার্থী হিসেবে নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছি। কিন্তু দলের সিদ্ধান্ত অমান্য করে উপজেলা আওয়ামীলীগের সদস্য মো. আশরাফুল আলম পলাশ বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে চশমা প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। তার পক্ষ নিয়েছেন ইউনিয়ন কমিটির সভাপতি মো. আব্দুল্লাহ এবং সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুছ ছালাম সহ ১নং ওয়ার্ডের সভাপতি রবিউল ইসলাম, সম্পাদক মন্ডল, ২নং ওয়ার্ডের সভাপতি আমানুল্লাহ, ৩নং ওয়ার্ডের সভাপতি ছাইদুল, সম্পাদক হযরত, ৪নং ওয়ার্ডের সভাপতি হোসেন আলী, সম্পাদক আব্দুল করিম, ৫নং ওয়ার্ডের সভাপতি সাইফুল ইসলাম, সম্পাদক বারিক, ৬নং ওয়ার্ডের সভাপতি আজাহার, ৭নং ওয়ার্ডের সম্পাদক রেজাউল করিম মোঙ্গল, ৮নং ওয়ার্ডের সভাপতি নুর মোহাম্মদ ফকির, সম্পাদক মোজাফর হোসেন, ৯নং ওয়ার্ডের সভাপতি আব্দুল ওহাব। এদের বিষয়ে উপজেলা কমিটিকে অবহিত করানোর পরেও তারা প্রয়োজনীয় কোন পদক্ষেপ না নেয়ায় নৌকার বিজয় অনিশ্চিত হয়ে পড়ছে।
অথচ গত ২৭/১২/২০২১ইং তারিখে প্রেস বিঙ্গপ্তির মাধ্যমে গঠনতন্ত্রের ৪৭ ধারা মতে উপজেলার নলকুড়া ইউনিয়নের নৌকার বিদ্রোহী প্রার্থী মো. মজিবর রহমানকে বহিস্কার করে তার পদ থেকে অব্যহতি দেওয়া হয়েছে। আমি সফল একজন চেয়ারম্যান হিসেবে এখনও দ্বায়িত্ব পালন করছি এবং নৌকার একজন প্রার্থী হওয়া সত্বেও অদৃশ্য কারণে উপজেলা আওয়ামীলীগ থেকে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় কোন পদক্ষেপ নিচ্ছেন না। অপরদিকে নৌকার বিজয় নিশ্চিত করতে মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন,ছাত্রলীগ, যুবলীগ কৃষকলীগ, শ্রমিকলীগ সহ অন্যান্য অঙ্গসহযোগী সংগঠন।
এ বিষয়ে বিদ্রোহী প্রার্থী মো. আশরাফুল আলম পলাশ সহ তার সমর্থক দলীয় নেতাদের বহিস্কারের বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহনে উপজেলা, জেলা ও কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে।
এ ব্যাপারে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এসএমএ ওয়ারেজ নাইম জানান, যাহারা বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ রাজনীতির সাথে যুক্ত তাহারা নৌকা প্রতীকের বিরুদ্ধে যেতে পারেন না। ইতিমধ্যে আমি বিষয়টি জেলা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দকে জানিয়েছি। তারা ফিরে না আসলে প্রয়োজনে তাদের বিরুদ্ধে দলীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন