বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১৬ আষাঢ় ১৪২৯, ২৯ যিলক্বদ ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

দক্ষিণ আফ্রিকায় ভাগ্য বদলের আশায় বাংলাদেশ

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ মার্চ, ২০২২, ১২:০০ এএম

ছয় টেস্টের সবকটিতেই হার, এর পাঁচটিতে ইনিংস ব্যবধানে। যে ম্যাচটিতে প্রতিপক্ষ দুবার ব্যাট করেছে, সেটাতেও দুই ইনিংস মিলিয়ে টপকানো যায়নি তাদের প্রথম ইনিংসের রান। পরিসংখ্যানের এসব তথ্যই ফুটিয়ে তুলছে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে লাল বলের ক্রিকেটে বাংলাদেশের হাল। তবে এই সংস্করণের সঠিক প্রক্রিয়াটা ঠিক রেখে এবার সেখানে ভাগ্য পরিবর্তনের আশা করছেন টেস্ট অধিনায়ক মুমিনুল হক।
দক্ষিণ আফ্রিকায় বাংলাদেশের ফল হওয়া ২৭ ম্যাচে জয় কেবল একটি, ২০০৭ টি-টোয়েন্ট বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। স্বাগতিকদের বিপক্ষে তিন সংস্করণেই আছে দুঃসহ সব হারের স্মৃতি। ক্যারিবিয়ানদের বিপক্ষে সেই জয়ের পরও হয়ে যাচ্ছে ১৫ বছর, এর মধ্যে জয়ের তেমন সম্ভাবনাও খুব একটা জাগাতে পারেনি বাংলাদেশ। ২০১৭ সালের পর আবার দক্ষিণ আফ্রিকায় টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজ খেলতে যাচ্ছে তারা। প্রস্তুতির দিক থেকে একটু এগিয়ে টেস্ট দল। মুমিনুলসহ এই দলের বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার বাংলাদেশ টাইগার্সের ক্যাম্পে অনুশীলন করছেন। বিসিবির পাঠানো ভিডিও বার্তায় টেস্ট অধিনায়ক বললেন, প্রক্রিয়ার ভেতরে থাকায় এবারের সফরে ভালো করার ব্যাপারে তিনি আশাবাদী, ‘বগুড়ার উইকেট সবসময় ভালো হয়। যেমন চেয়েছিলাম তেমন হয়তো হয়নি। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার কন্ডিশনের সঙ্গে এখানকার কন্ডিশনের পার্থক্য অনেক। এমন সফরের আগে একটা প্রক্রিয়ার মধ্যে থাকাটা গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষ করে, বিদেশ সফরের ক্ষেত্রে এটা জরুরি। আমার মনে হয়, এটা আমাদেরকে একটা প্রক্রিয়ার মধ্যে থাকতে সাহায্য করেছে।’
নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সবশেষ সিরিজে মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্টে জেতার পরপরই মুমিনুল বলেছিলেন, এখন থেকে সব দেশই বাংলাদেশকে আরও গুরুত্বের সঙ্গে নেবে। সেই জয়ের পর এটাই হবে প্রথম সফর। তাই দক্ষিণ আফ্রিকায় এবার আরও বেশি চ্যালেঞ্জ দেখছেন অধিনায়ক, ‘মাউন্ট মঙ্গানুই টেস্টে জয় অবশ্যই আমাদের আত্মবিশ্বাস বাড়াবে। কারণ, একটা বড় দলের বিপক্ষে তাদের মাটিতে ম্যাচ জেতা বড় ব্যাপার। তবে আমাদের অতীত নিয়ে বেশি ভাবনার প্রয়োজন নেই। আমাদের দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ নিয়ে ভাবতে হবে। যেহেতু আমাদের নিয়ে মানুষের প্রত্যাশাও বেড়েছে, তাই আমাদের পরবর্তী চ্যালেঞ্জ হিসেবে দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজে কেমন করি, সেটা গুরুত্বপূর্ণ। অন্যান্য দলগুলো আমাদের আগে যেভাবে দেখত, এখন নিশ্চয়ই সেভাবে দেখবে না। দলগুলো এখন আমাদের আরও গুরুত্ব দেবে। সেই চ্যালেঞ্জও থাকবে।’
বগুড়ার এই ক্যাম্প দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজে ভালো করার নিশ্চয়তা দিচ্ছে না। তবে মুমিনুল চান, বাংলাদেশ টাইগার্সের কার্যক্রম চলমান থাকুক, ‘আমি এখানে ক্যাম্প করেছি তাই দক্ষিণ আফ্রিকায় ভালো করব, এই নিশ্চয়তা দিতে পারব না। আমি প্রক্রিয়াটা ঠিক রাখতে চাই। প্রক্রিয়া ঠিক থাকলে ভালো করতে পারব। এখানকার কন্ডিশনও খুব ভালো ছিল। ব্যাটসম্যান-বোলার সবার জন্যই। যারা বাংলাদেশের জন্য ভবিষ্যতে খেলবে, তাদের জন্য এটা খুব ভালো একটা ক্যাম্প হয়েছে বলে আমার মনে হয়।’
আগামী সোমবার শেষ হবে বাংলাদেশ টাইগার্সের ক্যাম্প। ১১ মার্চ দক্ষিণ আফ্রিকার উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়বে বাংলাদেশ দল।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps