রোববার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ১৭ আশ্বিন ১৪২৯, ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

সরকারের নীরবতায় জনগণ বিস্মিত

মহানবী (সা.) কে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদ মঙ্গলবার ভারতীয় দূতাবাস অভিমুখে গণমিছিল বিক্ষোভে উত্তাল সারাদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১৮ জুন, ২০২২, ১২:০০ এএম

ভারতে মহানবী (সা.) কে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদ ও দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে গতকাল বাদ জুমা রাজধানী ঢাকাসহ সারা দেশে নবীপ্রেমিক মুসল্লিরা বিক্ষোভে ফেটে পড়েন। একই দাবিতে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেট থেকে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। এ দলের আহ্বানে বিভিন্ন জেলাও বিক্ষোভ-সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিক্ষুব্ধ জনতা অবিলম্বে ভারতের দুই কুলাঙ্গারের ফাঁসির দাবি এবং জাতীয় সংসদে নিন্দা প্রস্তাব পাসের অনুরোধ জানান। নেতৃবৃন্দ বলেন, মহানবী (সা.) শানে বেয়াদবির ঘটনায় সরকারের নীরবতায় জনগণ বিস্মিত। মহানবী (সা.) কে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে আগামী ২১ জুন বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন ভারতীয় দূতাবাস অভিমুখে গণমিছিল এবং স্মারকলিপি প্রদানের কর্মসূচি ঘোষণা করেছে।

বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস : ভারতে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) সম্পর্কে অবমাননাকর বক্তব্যের প্রতিবাদে জাতীয় সংসদে নিন্দা প্রস্তাব পাস, ভারতীয় হাইকমিশনারকে তলব ও নূপুর শর্মা ও নবীন কুমার জিন্দালকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের উদ্যোগে গতকাল বাদ জুমা সারা দেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে দলের উদ্যোগে বাদ জুমা বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেটে বিক্ষোভ-সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, নবীর শানে বেয়াদবির ঘটনায় সরকারের নীরবতায় দেশের জনগণ বিস্মিত। তারা বলেন, অবিলম্বে জাতীয় সংসদের নিন্দা প্রস্তাব পাস করতে হবে। ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে ডেকে তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাতে হবে। অন্যথায় আগামী জাতীয় নির্বাচনে জনগণ দাঁতভাঙা জবাব দিবে। দলের সিনিয়র সহ-সভাপতি মাওলানা হাসান জুনাঈদের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, দলের নায়েবে আমির মাওলানা ইউসুফ আশরাফ। সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আব্দুল মুমিন, সহ-সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আনোয়ার হোসাইন রাজীর যৌথ পরিচালনায় ঢাকার বায়তুল মোকাররম উত্তর গেটে বিক্ষোভ পূর্ব সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদ, যুগ্ম-মহাসচিব মাওলানা আব্দুল আজীজ, কেন্দ্রীয় অফিস ও সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুর রহমান হেলাল মাওলানা আবুল হাসানাত জালালী ও মাওলানা আবু হানিফ।

একই দাবিতে শরীয়তপুর জেলা শাখা সভাপতি মাওলানা শাব্বির আহমদ উসমানীর সভাপতিতে শহরে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। গাজীপুর জেলা শাখা সভাপতি মাওলানা রায়হান শরীফের সভাপতিত্বে ও গাজী মাওলানা রুহুল আমীন রাহমানীর পরিচালনায় বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। ফরিদপুর জেলা শাখার উদ্যোগে জেলা সভাপতি মাওলানা আমজাদ হোসাইনের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় যুগ্ম-মহাসচিব মুফতি শরাফত হোসাইন। নারয়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগরের উদ্যোগে জেলা সাধারণ সম্পাদক মাওলানা এমদাদুল্লাহ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ-সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় সহ বায়তুলমাল সম্পাদক মাওলানা ফজলুর রহমান। কুমিল্লা পশ্চিম জেলা সভাপতি মাওলানা আবু ইউসুফ মুন্সীর সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। এ ছাড়া নরসিংদী জেলা, খুলনা জেলা ও মহানগর, হবিগঞ্জ জেলা, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা, ময়মনসিংহ জেলা, ফেনী জেলা, চাঁদপুর, বগুড়া জেলাসহ বিভিন্ন জেলায় বিক্ষোভ-সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশ জমিয়তে তালাবায়ে আরাবিয়া ঢাকা মহানগরী : জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে বাদ জুমা বাংলাদেশ জমিয়তে তালাবায়ে আরাবিয়া ঢাকা মহানগরীর উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল পরবর্তী সমাবেশে নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে নূপুর শর্মা ও নবীন জিন্দালের গ্রেফতার করে ফাঁসি কার্যকর করার আহ্বান জানান। পুরানা পল্টন মোড়ে জমিয়তে তালাবায়ে আরাবিয়া ঢাকা মহানগরীর সভাপতি মো. জুবায়েরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি মুহাম্মদ জহিরুল ইসলাম। আরো বক্তব্য রাখেন, কেন্দ্রীয় প্রধান সম্পাদক মুহাম্মদ আহসান হাবীব, সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি মুহাম্মদ আব্দুর রহমান, ইবি শাখার সাবেক সহ-সভাপতি মাওলানা মুহাম্মদ আবু বকর সিদ্দিক, ঢাকা মহানগরীর সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ ওবায়দুল্লাহ, সরকারী মাদরাসা-ই- আলিয়া শাখার সভাপতি মুহাম্মদ মিজানুর রহমান। পরে নগরীতের বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়।

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন : ভারতের ক্ষমতাসীন দলের নেতা-নেত্রী কর্তৃক বিশ্বনবী মুহাম্মদ (সা.) ও হজরত আয়েশা (রা.)-এর শানে কটূক্তিকারীদের মৃত্যুদণ্ড ও ভারতে মুসলিম নির্যাতন বন্ধের দাবিতে গতকাল বাদ জুমা লালবাগ-কামরাঙ্গীরচর বেড়িবাঁধে নবী প্রেমিক তাওহিদী জনতার বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন খেলাফত আন্দোলনের আমীরে শরীয়ত মাওলানা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী ও ওলামায়ে কেরাম। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে ভারতের দুই কুলাঙ্গারকে মৃত্যুদণ্ড কার্যকর এবং জাতীয় সংসদে নিন্দা প্রস্তাব পাস করার জোর দাবি জানান। তারা আগামী ২১ জুন দুই কুলাঙ্গারের ফাঁসির দাবিতে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের উত্তর গেটে বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে ঢাকাস্থ ভারতীয় হাইকমিশন অভিমুখে গণমিছিল এবং স্মারকলিপি প্রদানের কর্মসূচি ঘোষণা করেন। এসময় চকবাজার, লালবাগ, হাজারীবাগ এলাকা থেকে শতাধিক ইমাম ও হাজার হাজার মুসল্লিরা এসে মিছিলে যোগ দিলে সমাবেশটি জনসমুদ্রে পরিণত হয়। সকলের একটাই দাবি বিশ্ব নবীর দুশমনদের ফাঁসি চাই, দিতে হবে।

বিক্ষোভ সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, খেলাফত আন্দোলনের মহাসচিব মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াজি, জাতীয় ইমাম পরিষদ বাংলাদেশের সভাপতি মুফতি আব্দুল্লাহ ইয়াহ ইয়া ও মহাসচিব মুফতি আ ফ ম আকরাম হোসাইন, নাস্তিক মুরতাদ নির্মুল কমিটির সভাপতি মুফতি সুলতান মহিউদ্দিন, মাওলানা হাবিবুর রহমান, অধ্যাপক আব্দুল করীম, মুফতি আব্দুর রহমান বেতাগী, মাওলানা হামিদুল হক, মাওলানা আবু সুফিয়ান মোমেনী, মাওলানা সাইফুল্লা নোমানী, মাওলানা সাইফুল ইসলাম সুনামগঞ্জী, মাওলানা সাজেদুর রহমান ফয়েজী, মুফতি হুসাইন সোহরাব, মুফতি রশীদ আহমদ নাঈম, মুফতি মুতাসিম বিল্লাহ, মুফতি দিলাওয়ার হুসাইন আশরাফী, মুফতি শাব্বীর আহমদ, মুফতী ইলিয়াছ মাদারীপুরী ও মাওলানা ইসমাঈল। পরে বিশাল মিছিল বের করা হয়।

খতমে নবুওয়াত সংরক্ষণ কমিটি ঢাকা জেলা উত্তর : ভারতে মহানবী হজরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ও হজরত আয়েশা সিদ্দীকা (রা.) এর শানে অবমাননাকর কটূক্তির প্রতিবাদে খতমে নবুওয়াত সংরক্ষণ কমিটি ঢাকা জেলা উত্তরের উদ্যোগে শুক্রবার বাদ আসর সাভার পৌরস্থ রাজারবাড়ী মাদরাসা মিলনায়তনে সীরাত কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সংগঠনটির ঢাকা জেলা উত্তরের সভাপতি গেরুয়া মাদরাসার মুহতামিম মুফতি মাহবূবুর রহমান নবাবগঞ্জীর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক রাজারবাড়ী মাদরাসার মুহতামিম মুফতি নাজমুল হাসান বিন নূরীর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন প্রবীণ আলেমেদ্বীন শাইখুল হাদীস আল্লামা উবায়দুল্লাহ ফারুক। কনফারেন্সে দুই কুলাঙ্গারের শাস্তির দাবিতে অন্যান্যের মাধ্যে বক্তব্য রাখেন, শাইখুল হাদীস আল্লামা আশিকুর রহমান কাসেমী, হাফেজ মাওলানা আলী আকবর কাসেমী, মুফতি সাঈদ আহমাদ লাকসামী, মুফতি আব্দুর রহীম কাসেমী।

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখা। ভারতে মহানবী (সা.) কে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদ ও দোষীদের শাস্তির দাবিতে আগামী ২১ জুন ভারতীয় দূতাবাস অভিমুখে গণমিছিল ও স্বারকলিপি প্রদান কর্মসূচি সফল করার জন্য বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন নারায়ণগঞ্জ জেলা শাখার আমির আলহাজ আতিকুর রহমান নান্নু মুন্সি সকল নবীপ্রেমিকদের প্রতি উদাত্ত আহবান জানিয়েছেন। এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, নবীর দুশমনরা ভারত থেকে ইসলাম ও মুসলিম শূন্য করতে চায়। মহান আল্লাহপাকই ইসলাম ও মুসলমানদের হেফাজতের দায়িত্ব নিয়েছেন। তিনি অবিলম্বে জাতীয় সংসদে নবীর শানে বেয়াদবিকারীদের বিরুদ্ধে নিন্দা প্রস্তাব পাস করার জোর দাবি জানান।

চট্টগ্রাম ব্যুরো জানায়, ভারতে রাসুল (সা.) এর অবমাননার ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদে গতকালও উত্তাল ছিল চট্টগ্রাম। বৃষ্টিপাত উপেক্ষা করে বাদ জুমা নগরীর মসজিদগুলো থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন মুসল্লিরা। এতে তৌহিদি জনতা প্রতিবাদ বিক্ষোভে ফেটে পড়েন। হেফাজতে ইসলাম, ইসলামি আন্দোলন, আহলে সুন্নাত ওয়াল জামাত, গাউছিয়া কমিটি, নেজামে ইসলাম পার্টিসহ নানা ব্যানারে আয়োজিত প্রতিবাদ কর্মসূচিতে মানুষের ঢল নামে। নগরীর জমিয়াতুল ফালাহ মসজিদ থেকে লালখান বাজার বাগঘোনার সর্বস্তরের তৌহিদি জনতার ব্যানারে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। এছাড়া নগরীর আন্দরকিল্লা শাহী জামে মসজিদসহ বিভিন্ন মসজিদ থেকে মিছিল হয়। সমাবেশে বক্তাগণ রাষ্ট্রীয়ভাবে ভারতের এমন ন্যাক্করজনক আচরণের প্রতিবাদ জানানোর পাশাপাশি জাতীয় সংসদে নিন্দা প্রস্তাব পাস করারও দাবি জানান।

খুলনা ব্যুরো জানায়, লক্ষ লক্ষ তৌহিদী মুসলিম জনতার নারায়ে তাকবীর-আল্লাহু আকবার সেøাগানে প্রকম্পিত খুলনা মহানগরী। ডাকবাংলো থেকে জোড়াগেট পর্যন্ত প্রায় ৫ বর্গকিলোমিটার এলাকায় তিল ধারণের কোনো জায়গা নেই। ধর্ম প্রাণ মুসল্লিরা ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন। নবীজিকে (সা.) নিয়ে অবমাননাকারী মন্তব্য দেয়া উগ্র সাম্প্রদায়িক ক্ষমতাসীন বিজেপির মুখপাত্র নূপুর শর্মা ও মিডিয়া সেল প্রধান নবীন জিন্দালের দৃষ্টান্তমূলক কঠোর শাস্তি তারা দাবি করছেন। একই সাথে ভারতীয় পণ্য বর্জনের ডাক দিয়েছেন। এ সময় মুরতাদ আখ্যা দিয়ে নূপুর শর্মা ও নবীন জিন্দালের কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়। ইমাম পরিষদের এ কর্মসূচির সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে শরীক হন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, খেলাফত মজলিস, মজাহিদ কমিটিসহ বিভিন্ন ইসলামী সংগঠনের নেতা ও কর্মীরা। মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) ও উম্মাহাতুল মুমিনীন হজরত আয়েশা সিদ্দীকা (রাযি.) কে নিয়ে চরম অশ্লীল ও অবমাননাকর মন্তব্য করার প্রতিবাদে খুলনা জেলা ইমাম পরিষদ গতকাল শুক্রবার দুপুর ৩টায় প্রতিবাদ সমাবেশের ডাক দেয়। জুম্মার নামাজের পর থেকে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা জড়ো হতে থাকেন নিউমার্কেট বায়তুন নুর জামে মসজিদ চত্বরে। বিকাল ৫টার মধ্যে জনসমুদ্রে পরিণত হয় নিউমার্কেট, বাবরী চত্বর, জোড়াগেট এলাকা। প্রতিবাদ সমাবেশে খুলনা মহানগরী ও জেলার বিভিন্ন উপজেলা থেকে হাজার হাজার মুসল্লি যোগ দেন।

বরিশাল ব্যুরো জানায়, মহানবী (সা.)-কে কটূক্তিসহ ভারতীয় ক্ষমতাসীন দল বিজেপি সরকারের মুসলিম নিধন কর্মকাণ্ডের পাশাপাশি ইসলামবিরোধী নানা পদক্ষেপের প্রতিবাদে বরিশাল মহানগরীতে প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন করেছে জমিয়াতে হিজবুল্লাহ জেলা ও মহানগর শাখা। গতকাল শুক্রবার বিকেলে নগরীর সদর রোডে টাউন হল প্রাঙ্গনে ছারিছনা মাদরাসার প্রিন্সিপাল সাহেবের সভাপতিত্বে এ প্রতিবাদ সমাবেশে বরিশাল জামে এবাদুল্লাহ মছজিদের প্রধান খতিব আলহাজ হজরত মাওলানা মির্জা নুরুর রহমান বেগ সাহেব ছাড়াও মহানগর ইমাম-মুয়াজ্জিন কল্যাণ সমিতির সভাপতি ও কেন্দ্রীয় জামে কসাই মসজিদের খতিব আলহাজ হজরত মাওলানা আবদুল মান্নান সাহেব প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

মানিকগঞ্জ জেলা সংবাদদাতা জানান, গতকাল শুক্রবার বাদজুম্মা মানিকগঞ্জ সম্মিলিত ইমাম ও মুসল্লি পরিষদের উদ্যোগে বিশ্বনবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) এর অবমাননার প্রতিবাদে শহরে বৃষ্টি উপেক্ষা প্রতিবাদ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সাবেক পৌর কমিশনার ও মানিকগঞ্জ জেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি মো. খবিরুল আলম চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, মাওলানা মো. আশিকুর রহমান, মাওলানা আ. মতিন, মাওলানা মুহাম্মাদ রফিকুল ইসলাম, মাওলানা মুহাম্মাদ মুরাদ হোসাইন, মাওলানা মুহাম্মদ শরিফুল ইসলাম, মাওলানা মুহাম্মাদ মাহবুবুর রহমান, মাওলানা মুহাম্মাদ ইলিয়াস প্রমুখ। মাওলানা মজিবুর রহমানের দোয়া ও মোনাজাতের মধ্য দিয়ে প্রতিবাদ সমাবেশ শেষ হয়।

ইসলামপুর (জামালপুর) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, মহানবী (সা.) ও তার সহধর্মিণী শানে কটূক্তির প্রতিবাদে জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
জানা যায়, ভারতেরে ক্ষমতাসীন দল বিজেপির মূখপাত্র নুপুর শর্মা ও মিডিয়া সেলের প্রধান নবীন কুমার জিন্দাল কর্তৃক কটূক্তির প্রতিবাদে শুক্রবার ১৭ জুন বাদ জুম্মা নামাজ শেষে মাওলানা মো. আমিনুল ইসলামের নেতৃত্বে উপজেলা মডেল মসজিদ এক বিশাল বিক্ষোভ মিছিল বের হয়। মিছিলটি পৌর শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে থানা মোড় বটতলা চত্বরে এক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

নরসিংদী থেকে স্টাফ রিপোর্টার জানান, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিশ এর আমির আল্লামা ইসমাইল নুরপুরী বলেছেন, যারা দেশে ও দেশের বাইরে মহানবী (সা.) কে নিয়ে কটূক্তি করছে। আমাদের দেশের সরকার মুসলমান হয়েও তাদের বিরুদ্ধে কোনো প্রতিবাদ করছে না। এখনো নীরব ভূমিকা পালন করছে। যদি মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) এর প্রতি ভালোবাসা থাকে, তাহলে তাদের বিরুদ্ধে নিন্দা প্রস্তাব করুন। দেশের ভেতরে যে কুলাঙ্গার আইনজীবী সাইফুর রেজা রয়েছে তাকে গ্রেফতার করুন। তিনি গতকাল বাদ জুমা বাংলাদেশ খেলাফত মজলিশ নরসিংদী জেলা শাখা আয়োজিত মহানবী (সা.) এর বিরুদ্ধে কটূক্তি প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিলের পর বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন। বিক্ষোভ মিছিলটি প্রচণ্ড বৃষ্টি উপেক্ষা করে নরসিংদী শহরের পৌরসভা থেকে শুরু করে বিভিন্ন রাস্তা প্রদক্ষিণ করে নরসিংদী রেল স্টেশন এসে শেষ হয়।

ধামরাই (ঢাকা) উপজেলা সংবাদদাতা জানান, মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে ঢাকার ধামরাইয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার জুমার নামাজের পরে বৃষ্টি উপেক্ষা করে উপজেলার বাথুলী ও ভাড়ারিয়ার সর্বস্তরের উলামা মাশায়েখ ও তৌহিদী জনতা বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে। বিক্ষোভ মিছিলটি প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে ভাড়ারিয়া স্ট্যান্ডে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, হাফেজ মাওলানা মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন, মাওলানা শাহাদাত হোসেন, দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও ঢাকা জেলার সভাপতি টিএইচ খান, সাংগঠনিক সম্পাদক হাফেজ লিয়াকত হোসেন প্রমুখ।

ভোলা জেলা সংবাদদাতা জানান, ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির দুই নেতা মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) সম্পর্কে কটূক্তি ও অবমাননাকর মন্তব্য, ভারতে বাড়িঘড় ভাঙচুর ও হামলা করার প্রতিবাদে ভোলা জেলায় মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ করেছেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। ভোলা জেলা মুসলিম ঐক্য পরিষদের আহ্বানে গতকাল শুক্রবার জুমার নামাজের পর এই বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ হয়। মিছিল নিয়ে শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে হাজার হাজার মুসল্লিরা সমাবেশে যুক্ত হন ভোলা হাটখোলা মসজিদ চত্বরে।
ভোলা জেলা মুসলিম ঐক্য পরিষদের সভাপতি মাওলানা আব্দুর রহমান খান তালুকদারে সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন দৈনিক আজকের ভোলার সম্পাদক আলহাজ্ব মোহাম্মদ শওকাত হোসেন, খলিফা পট্রি জামে মসজিদের খতিব আলহাজ মাওলানা মুজির উদ্দিন, ভোলা জেলা মুসলিম ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ও কামিল মাদরাসার উপাধ্যক্ষ, ভোলা জেলা জমিয়াতুল মোদার্রেছীনে সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মো. মোবাশ্বিরুল হক নাঈম, ভোলা জেলা ইসলামি আন্দোলনের সহ-সভাপতি মাওলানা আতাউর রহমান মোমতাজি।

নওগাঁ জেলা সংবাদদাতা জানান, ভারতে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.) এর পবিত্রতম চরিত্র সম্পর্কে কটূক্তি করার প্রতিবাদে নওগাঁ জেলা ইমাম মুয়াজ্জিন কমিটির আহ্বানে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে বিভিন্ন মসজিদ থেকে মুসল্লিরা বের হয়ে বিভিন্ন সেøাগানসহ নওযোয়ান মাঠে সমবেত হয়। সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি আ.ন.ম আকরাম হোসাইনের সভাপতিত্বে সমাবেশে সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন, মাও. রেদোয়ান উল্লাহ্, মাও. আইয়ুব আলী, মাও. হাফিজুর রহমান, মাও. হাবিবুর রহমান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

মহাখালী কওমী মাদরাসা ঐক্য পরিষদ : মহাখালী কওমী মাদরাসা ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে বাদ জুমা নগরীর মহাখালী থেকে বিক্ষোভ সমাবেশ শেষে সর্বস্তরের তৌহিদী জনতাকে নিয়ে বিশাল মিছিল বের করা হয়। বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন আল্লামা ইকবাল সিরাজী। মুফতি রুহুল আমীন ও মুফতি মাহমুদুল হাসানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, মাওলানা মুজিবুর রহমান ফরাজী, হাফেজ ক্বারী ইবরাহীম বিন আলী (পীর সাহেব মহাখালী), মুফতি আব্দুল্লাহ আল মুর্তাজা কাসেমী, মুফতি রিয়াজুল আমীন, মাওলানা জাকারিয়া, মুফতি এহতেশামুল হক, মাওলানা ওবায়দুল্লাহ নূরানী। নেতৃবৃন্দ বলেন, অবিলম্বে অপরাধীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান এবং ভারত সরকারকে মুসলিম উম্মাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করতে হবে।

আধিপত্য প্রতিরোধ আন্দোলন : শুক্রবার বাদ জুমা আধিপত্য প্রতিরোধ আন্দোলনের উদ্যোগে রাসূুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর অবমাননা ও ভারতীয় মুসলমানদের হত্যা নির্যাতনের প্রতিবাদে পল্টন মোড় থেকে বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়ে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে গিয়ে প্রতিবাদ সভার মাধ্যমে সমাপ্ত হয়। আধিপত্য প্রতিরোধ আন্দোলনের আহ্বায়ক ও বাংলাদেশ মুসলিম সমাজের চেয়ারম্যান মাসুদ হোসেনের সভাপতিত্বে এবং সংগঠনের সদস্য সচিব তৃণমূল নাগরিক আন্দোলনের সভাপতি মফিজুর রহমান লিটনের সঞ্চালনায় এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ মুসলিম লীগের মহাসচিব কাজী আবুল খায়ের, এনডিপি’র চেয়ারম্যান কে এম আবু তাহের, বাংলাদেশ ইসলামিক সমাজ তান্ত্রিক পার্টির চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার হাফিজুর রহমান, বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির সভাপতি মওলানা ওবায়েদুল হক, বাংলাদেশ মুসলিম লীগের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান।

এদিকে, হেফাজত ইসলামের আমির আল্লামা মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী জানান, প্রিয় নবীকে অবমাননাকর বক্তব্যের প্রতিবাদে অবিলম্বে বাংলাদেশের জাতীয় সংসদে নিন্দা প্রস্তাব পাশ করতে হবে। একই সাথে ভারতীয় হাইকমিশনারকে তলব করে নুপুর শর্মা ও নবীন কুমার জিন্দালকে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাতে হবে। গতকাল চট্টগ্রামের জমিয়তুল ফালাহ্ মসজিদ ময়দানে শানে রেসালত সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি এসব কথা বলেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (5)
MNI Khan ১৮ জুন, ২০২২, ২:৩০ এএম says : 0
We hate the Govt. for their silence in this matter. Allah SWT will not forgive them.
Total Reply(0)
Alim Uddin ১৮ জুন, ২০২২, ৭:৪০ এএম says : 0
বাংলাদেশ এই নিন্দা জানানোর সাহস পাইলো না
Total Reply(0)
Rukunuzzaman Salim ১৮ জুন, ২০২২, ৭:৩৮ এএম says : 0
৷ এটা, দুঃখজনক আমাদের দেশ সরকারি ভাবে নিন্দা জানায় নাই। এটা ক্ষমতাসীনদের নগ্ন, ভারতপ্রীতি। যা এদেশের বেশীর ভাগ লোক সমর্থন করে না।।
Total Reply(0)
Amin Ul ১৮ জুন, ২০২২, ৭:৩৯ এএম says : 0
বাংলাদেশ কার দিকে চেয়ে আছে?
Total Reply(0)
Mohmmed Dolilur ১৮ জুন, ২০২২, ৩:৫৪ এএম says : 0
কুমিল্লা জেলার মুসলমানরা কি দেখছে না আওয়ামী লীগ সরকার,নবী করিম (সাঃ)কে কটূক্তি করেছে ভারতের নুপুর সরমা এবং আরও অনেকে,কিন্তু আওয়ামী লীগ সরকার এই বেপারে পতিবাদ করেন নাই,এবং করবেন সেই আশা ও করা যাচ্ছে না,কিন্তু সব কিছু জেনেও কুমিল্লার ধর্মপ্রাণ মুসলমান নবী করিম( সাঃ) এর জীবন দিতে গিয়ে ভোট কোথায় দিলেন,বিচার বিবেচনা করে দেখেন মাত্র কুমিল্লার মুসলমানের ভোট কোথায়,আর বাকি জেলা গুলি ও দেখার অপেক্ষায় থাকেন,
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন