বৃহস্পিতবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, ০৩ ভাদ্র ১৪২৯, ১৯ মুহাররম ১৪৪৪

সারা বাংলার খবর

বন্যাকবলিত জেলাগুলোকে দুর্গত এলাকা হিসেবে ঘোষণা করুন সংবাদ সম্মেলনে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২০ জুন, ২০২২, ৫:৫৩ পিএম

সিলেটের বন্যাকবলিত জেলাগুলোকে দুর্গত এলাকা হিসেবে ঘোষণা করা হোক। দুর্গত জেলাগুলোতে পর্যাপ্ত পরিমাণ অর্থ সহায়তা ও প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রীসহ জরুরী ঔষধ প্রেরণ নিশ্চিত করতে হবে। বন্যাপরবর্তী সময়ে ঘরবাড়ি হারা মানুষদেরকে পুনর্বাসিত করতে আলাদা বরাদ্দ দেয়া এবং ভেঙ্গে যাওয়া বেড়িবাঁধ ও রাস্তাঘাটগুলোতে ব্যাপক ভাবে সংস্কার কাজ আরম্ভ করতে হবে। সিলেট বিভাগসহ দেশেন বর্তমান বন্যা পরিস্থিতিকে সামনে রেখে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের উদ্যোগে আজ সোমবার পল্টনস্থ দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে নেতৃবৃন্দ এসব কথা বলেন। সিলেট,সুনামগঞ্জ,হবিগঞ্জ,মৌলভীবাজার, নেত্রকোনা,লালমনিরহাট,কুড়িগ্রাম,রংপুর ও নীলফামারীসহ বিভিন্ন জেলায় ৪০ লক্ষ মানুষ পানিবন্দি। অনেক বিলম্বে উদ্ধার তৎপরতা শুরু হলেও তা অপর্যাপ্ত।

দলের সিনিয়র সহসভাপতি আল্লামা উবায়দুল্লাহ ফারুকের সভাপতিত্বে ও প্রচার সম্পাদক মাওলানা জয়নুল আবেদীন এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা মঞ্জুরুল ইসলাম আফেন্দী। সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, আওয়ামীলীগের নেতাকর্মী ছাড়া বন্যার্তদের পাশে কেউ নেই" মর্মে তথ্যমন্ত্রী সম্প্রতি যে বক্তব্য দিয়েছেন তা সম্পূর্ণ অবাস্তব। বন্যা শুরু হওয়ার পর থেকে আজ পর্যন্ত সর্বস্তরের আলেম উলামা,বিভিন্ন রাজনৈতিক অরাজনৈতিক সংগঠন,বিভিন্ন সেবাসংস্থা ও প্রতিষ্ঠান এবং সাধারণ মানুষেরাও ব্যক্তিগত ও সম্মিলিত ভাবে ব্যাপক উৎসাহের সাথে দুর্দশাগ্রস্ত জনতার পাশে দাঁড়িয়েছেন।আজ আমরা আপনাদের মাধ্যমে তাঁদের সকলকে মোবারকবাদ জানাচ্ছি। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, সহসভাপতি আল্লামা আব্দুর রব ইউসূফী,মাওলানা আব্দুল কুদ্দুস কাসেমী, মাওলানা জাকারিয়া আমিনী, মুফতি জাকির হোসাইন কাসেমী, মাওলানা আফজাল হোসাইন রহমানী, মাওলানা আব্দুল গফ্ফার ছয়ঘরী, মাওলানা হেদায়েতুল ইসলাম, মাওলানা মাহবুবুল আলম, মাওলানা ইলিয়াস আমিনী, মাওলানা সলিমুল্লাহ খান,প্রবাসী নেতা মাওলানা আলী নূর, মাওলানা বুরহান উদ্দিন ও মাওলানা নূরে আলম ইসহাকী, মাওলানা বিন ইয়ামিন,ছাত্র নেতা নূর হোসেন। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, পরিস্থিতির ভয়াবহতা বিবেচনা করে দলের সভাপতি আল্লামা শায়খ যিয়া উদ্দীন সাহেবকে আহবায়ক করে ১৫ সদস্যবিশিষ্ট একটি কেন্দ্রীয় ত্রাণ কমিটিও গঠন করা হয়েছে।আশা করি এই কমিটি পরবর্তী ত্রাণ কার্যক্রম সুষ্ঠু ভাবে সম্পাদন করতে সক্ষম হবে ইনশাআল্লাহ। দলীয় নেতা-কর্মী এবং দেশ-বিদেশের সমস্ত সামর্থ্যবান ভাই-বোনদেরকে জাতির এ দুর্দিনে এগিয়ে আসার জন্য উদাত্ত আহ্বান জানাচ্ছি।
সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সহসভাপতি প্রখ্যাত ইসলামী চিন্তাবিদ মাওলানা জুনায়েদ আল হাবীবসহ কারাবন্দি সকল আলমকে অবিলম্বে মুক্তি দেয়া হোক। নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে অবাধ,অর্থবহ ও গ্রহণযোগ্য করার জনদাবি পূরণে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া হোক।দ্রব্যমূল্যের ক্রমাগত উর্ধ্বগতি ও দেশের সার্বিক অর্থনৈতিক সঙ্কটের বড় কারণ হিসেবে আমরা মনে করি দেশ থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ পাচার হওয়া। অতি সম্প্রতি সুইচ ব্যাংকের যে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে তা রীতিমত উদ্বেগজনক।উক্ত প্রতিবেদনে বাংলাদেশের গচ্ছিত অর্থের যে পরিমাণ দেখানো হয়েছে তাও লোমহর্ষক। সুতরাং এ বিষয়ে অনুসন্ধানপূর্বক পাচারকৃত অর্থ ফেরত আনয়ন এবং পাচার রোধে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন