বুধবার, ১০ আগস্ট ২০২২, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৯, ১১ মুহাররম ১৪৪৪

মহানগর

বায়তুল মোকাররমে ও গওহরডাঙ্গা মাদরাসায় মোনাজাত অনুষ্ঠিত

পদ্মা সেতুর উদ্বোধনে-----

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৫ জুন, ২০২২, ৫:৫২ পিএম

পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষে শুকরিয়া আদায় করে আজ শনিবার বাদ যোহর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের পেশ ইমাম হাফেজ মাওলানা মো. এহসানুল হক৤ দোয়া ও মোনাজাতে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের পরিচালক মোহাম্মদ মহীউদ্দিন মজুমদার, উপ-পরিচালক মোহাম্মদ রফিকুল ইসলামসহ কর্মকর্তা কর্মচারী ও সাধারণ মুসল্লিগণ উপস্থিত ছিলেন৤ উল্লেখ্য, পদ্মা সেতুর উদ্বোধন উপলক্ষ্যে ও বন্যাদুর্গতদের জন্য গতকাল শুক্রবার বাদ জুমা ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাতের আয়োজন করে ইসলামিক ফাউন্ডেশন৤ এছাড়া এ উপলক্ষে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সকল বিভাগীয় ও জেলা কার্যালয়, ৫০ টি ইসলামিক মিশন, ৭টি ইমাম প্রশিক্ষণ একাডেমিতেও বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।
গওহরডাঙ্গা মাদরাসায় কোরআন খতম : পদ্মা সেতু উদ্বোধন হওয়ায় সহস্রাধিক বার কোরআন খতম ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে গওহরডাঙ্গা মাদরাসায়। আজ শনিবার দক্ষিণবঙ্গের গোপালগঞ্জ, মাদারীপুর, শরিয়তপুর, ফরিদপুর, রাজবাড়ী, নড়াইল, খুলনা, বাগেরহাট, সাতক্ষীরা, যশোর, পিরোজপুর, বরিশালের পাঁচ সহস্রাধিক আলেম উলামা, পীর মাশায়েখ, ইমাম খতিব, মাদরাসার মুহতামিম ও তালেবুল ইলমসহ ধর্মপ্রিয় মানুষ গওহরডাঙ্গা মাদরাসায় জমায়েত হন। এ সময় উপস্থিত সকলে স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধন হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান। জমায়েত অনুষ্ঠানে ছদর ছাহেব (রহ.)এর পৌত্র মুফতি উসামা আমিন বলেন, প্রচলিত দোয়া করার মধ্যে কৃত্রিমতা থাকতে পারে কিন্তু যে দোয়া অন্তর থেকে আসে সে দোয়ায কোন কৃত্রিমতা নেই। আজ প্রধানমন্ত্রী পদ্মা সেতু চালু করে দেশের মানুষের বিশেষ করে দক্ষিণ পশ্চিম অঞ্চলের মানুষের অন্তরে স্থান করে নিয়েছেন। ধর্মপ্রাণ মানুষ দোয়ার মধ্যে প্রধানমন্ত্রীকে কৃতজ্ঞতার সাথে স্মরণ রাখবে। দোয়া অনুষ্ঠানে মুফতি উসামা আমিন আরো বলেন, পদ্মা সেতু বাংলাদেশের গৌরবজ্জল ইতিহাসের অন্যতম অধ্যায়। প্রধানমন্ত্রীর সময়োচিত সাহসী সিদ্ধান্তের ফসল আজকের পদ্মা সেতু। প্রধানমন্ত্রী যখন সকল ষড়যন্ত্রের জ্বাল ছিন্ন করে পরাশক্তিকে উপেক্ষা করে নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতুর ঘোষণা দিয়েছিলেন দেশের জনগণ তাঁর আহ্বানে সাড়া দিয়ে সহযোগিতা করেছেন। পদ্মা সেতু আন্তর্জাতিক অঙ্গনে যেমন বাংলাদেশের ভাব মর্যাদা উজ্জ্বল করেছে তেমনি দেশের সক্ষমতার প্রমাণ করেছে। পদ্মা সেতু দেশের উন্নয়ন ও মর্যাদার প্রতীক। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জানিয়ে মুফতি উসামা আমিন বলেন, পদ্মা সেতুর জন্য দেশের আলেম-উলামাদের পক্ষ থেকে আপনাকে ধন্যবাদ জানাই। পদ্মা সেতু ঘোষণার শুরুলগ্ন থেকেই আলেম উলামাদের দোয়া, ভোররাতের চোখের পানি ও সহযোগিতা ছিল। আল্লাহর দরবারে শুকরিয়া বহু বাধা-বিপত্তি ও চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধন হলো। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানসহ পরবর্তী কার্যক্রম ধর্মীয় রীতি মেনে হবে এটাই দেশের মানুষের প্রত্যাশা। মুফতি উসামা আমিন বলেন, এ ধরনের জাতীয় প্রোগ্রামে দেশের শীর্ষ আলেম উলামাদের উপস্থিতি নিশ্চিত করা গেলে অনুষ্ঠানের সৌন্দর্য্য বাড়বে এবং সর্বো মহলে প্রশংসিত হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন