বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪, ০৬ আষাঢ় ১৪৩১, ১৩ যিলহজ ১৪৪৫ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৭ আহত ৪

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৬ অক্টোবর, ২০২২, ১২:০০ এএম

গতকাল দেশের তিন জেলায় সড়ক দুর্ঘটনায় ৭ জন নিহত হয়েছে। এর মধ্যে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের তেলিপাড়া এলাকায় বাসের চাপায় ভ্যানগাড়ীর ৪ আরোহী নিহত হয়েছে। আমাদের সংবাদদাতাদের পাঠানো তথ্যে বিস্তারিত।

গাজীপুর জেলা সংবাদদাতা জানান, ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের তেলিপাড়া এলাকায় গতকাল সকালে বাসের চাপায় ভ্যানগাড়ীর ৪ আরোহী নিহত হয়েছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমেদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে। গাজীপুর মহানগরীর বাসন থানার ওসি মালেক খসরু খান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, শনিবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে গাজীপুর মহানগরীর চান্দনা চৌরাস্তা থেকে একটু উত্তরে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের তেলিপাড়া এলাকায় মহাসড়কের পাশে দাড়ানো একটি মাছের ভ্যানগাড়িতে ময়মনসিংহগামী বেপরোয়া একটি যাত্রীবাহী বাস ধাক্কা দেয়। এতে ভ্যানগাড়িতে থাকা ৮ জন ঘটনাস্থলেই নিহত হয়েছেন। ধারণা করা হচ্ছে এরা সকলেই মাছ ব্যবসায়ী ছিলেন। তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের পরিচয় জানা সম্ভব হয়নি। এ ঘটনায় পুলিশ বাসটি আটক করেছে। চালক পলাতক রয়েছে। তাকে গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।
বরিশাল ব্যুরো জানায়, বরিশালের গৌরনদীতে বাসের সাথে থ্রি-হুইলারের সংঘর্ষে সুনীল দেউরি নামে এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছে। নিহত সুনীল উপজেলার মাহিলারা ইউনিয়নের বাঘার গ্রামের বাসিন্দা। গতকাল দুপুরে উপজেলার মাহিলারা ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কে এ দুর্ঘটনায় থ্রি হুইলার চালকসহ আহত হয়েছেন আরও তিনজন। আহতদের মধ্যে থ্রি হুইলার চালক এরশাদ হাওলাদারকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন।

গৌরনদী হাইওয়ে থানা পুলিশ জানায়, গৌরনদী থেকে যাত্রী নিয়ে থ্রি-হুইলারটি বরিশাল-ঢাকা মহাড়ক হয়ে মাহিলারা ইউনিয়ন পরিষদের কাছাকাছি সড়কে থ্রি-হুইলারটিকে বরিশালগামী অন্তরা পরিবহনের একটি বাস পেছন থেকে ধাক্কা দেয়। এতে থ্রি হুইলারের যাত্রী ঘটনাস্থলেই নিহত হয়। ঘাতক বাস ও চালককে উজিরপুরের ইছলাদী এলাকায় আটক করে হাইওয়ে থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

ঝিনাইদহ জেলা সংবাদদাতা জানান, ঝিনাইদহে পৃথক সড়ক দুঘর্টনায় দুই মটরসাইকেল আরোহী নিহত হয়েছে। নিহতরা হলেন, জেলার শৈলকুপা উপজেলার ব্রহ্মপুর গ্রামের মুজিবর হোসেনের ছেলে কলেজ ছাত্র রাফি হোসেন ও সদর উপজেলার ধোপাবিলা গ্রামের শ্রীবাস সরকারের ছেলে শংকর কুমার সরকার। গতকাল সকালে ও শুক্রবার রাতে পৃথক এ দুর্ঘটনায় তারা নিহত হন। শৈলকুপা থানার ওসি আমিনুল ইসলাম জানান, শুক্রবার রাতে কলেজ ছাত্র রাফি বাড়ি থেকে বের হয়ে মোটরসাইকেল নিয়ে পাশ্ববর্তী নাদপাড়া গ্রামের উদ্দেশে রওয়ানা হন। পথে উপজেলার সারুটিয়া ইউনিয়নের ব্রহ্মপুর গ্রামে পৌঁছালে একটি পাটকাঠি বোঝাই ইঞ্জিনচালিত করিমন গাড়ির সঙ্গে মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে গুরুতর আহত হন রাফি। তাকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে রাত ১০টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এদিকে ঝিনাইদহ সদর উপজেলার শৈলমারী এলাকায় শনিবার সকালে মোটরসাইকেল ও নসিমনের সংঘর্ষে শংকর কুমার সরকার নামের এক ফার্নিচার মিস্ত্রি আহত হন। তাকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. ফালগুনি তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ সোহেল রানা বলেন, দুর্ঘটনার পর নসিমনটি আটক করা হলেও চালক পলাতক রয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন