ঢাকা, বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ০১ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ সফর ১৪৪১ হিজরী

স্বাস্থ্য

ষাটোর্ধ বয়সী নারীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় আরও কার্যকর ব্যবস্থাপনা জরুরি

গোলটেবিল আলোচনা

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৮:০৬ পিএম

মাত্র ৮ বছরে দেশের মানুষের গড় আয়ূ ছিল ৬৬ যা এখন হয়েছে ৭২। এর মধ্যে পুরুষের গড় আয়ু ৭০ দশমিক ৮ আর নারীদের ৭৩ দশমিক ৮। অর্থাৎ পুরুষের তুলনায় নারীরা ৩ বছর বেশি বেচে থাকছেন। স্বাস্থ্য ও শিক্ষাখাতে সরকারের নানামুখি ইতিবাচক উদ্যোগের ফলে এমন অর্জন মিললেও এর উল্টো পিঠে আয়ু বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে ষাটোর্ধ বয়সের মানুষের দুর্ভোগও বাড়ছে। বিশেষ করে নারীদের শারীরিক ও মানসিক সমস্যাগুলো পুরুষের তুলনায় আরও বেশি। তাই ষাটোর্ধ নারীর স্বাস্থ্য সুরক্ষায় দেশে আরও কার্যকর ব্যবস্থাপনা বাড়ানো জরুরি। বুধবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশ অবস অ্যান্ড গাইনোকলোজি সোসাইটি (ওজিএসবি) ও ষাটোর্ধ মানুষের স্বার্থে কাজ করা সংগঠন ‘৬০+’ এর আয়োজনে অনুষ্ঠিত এক গোলটেবিল আলোচনায় বিশেষজ্ঞরা এ অভিমত ব্যক্ত করেন।

ওজিএসবি’র সভাপতি প্রফেসর ডা. সামিনা চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় প্রফেসর ডা. সায়লা খাতুন। আলোচনা করেন, ওজিএসবির সাবেক সভাপতি প্রফেসর ডা. রওশন আরা বেগম, মহাসচিব প্রপেসর ডা. সালেহা বেগম , প্রফেসর ডা. খুরশীদ মাওলা, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ডা. সুরাইয়া রহমান, প্রফেসর ডা. দিপি বড়–য়া, প্রফেসর ডা. পারুল জাহান, প্রফেসর ডা. দিলরুবা আক্তার, বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের সহকারী এটর্নী জেনারেল অ্যাটভোকেট হাসিনা মমতাজ, ‘৬০+’ এর সম্পাদক মোশরেফা শরীফ প্রমুখ।

আলোচকরা বলেন, আইন হলেও ষাটোর্ধ নারীরা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই এই আইনের বিষয়ে অবহিত নন। আবার আইনের বিষয় জানলেও নানা কারনে আইগনত অধিকার আদায়ে তারা উদ্যোগী নয়। বরং পরিস্থিতির মুখে বেশির ভাগই মানসিক সমস্যায় ভোগেন। তাঁরা অনেক সময়ই সন্তান বা স্বজনদের কাছ থেকে অবহেলা ও বঞ্চনার শিকার হন। এমনকি অনেকে অসুস্থ হলে চিকিৎসারও সুযোগ পান না। অনেকে চিকিৎসার কথা অন্য কাউকে বলতেও পারেন না। শারীরিক অনেক সমস্যা বয়স্ক নারীরা গোপন করায় রোগের জটিলতা আরও বেড়ে যায়। তাই পরিবার, সমাজ ও রাস্ট্রের সব মহল থেকেই এক্ষেত্রে সচেতনতার মাত্রা বাড়াতে হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন