ঢাকা, বৃহস্পতিবার , ২১ নভেম্বর ২০১৯, ০৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১ হিজরী

শিক্ষাদিক্ষা

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় নাচের অনুষ্ঠানে কোরআন তিলাওয়াত

ইবি সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২ নভেম্বর, ২০১৯, ৪:১০ পিএম

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে (ইবি) নৃত্যানুষ্ঠান শুরু করা হয়েছে কোরআন তিলাওয়াতের মাধ্যমে। শনিবার বেলা ১১ টায় বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে কর্মশালার সমাপনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এতে পবিত্র কোরআন থেকে তিলাওয়াত করার মাধ্যমে অনুষ্ঠান শুরু করে প্রশাসন।

জানা যায়, গত ২৬ থেকে ৩০ অক্টোবর টিএসসিসির করিডোরে নৃত্য প্রশিক্ষণ কর্মশালা হয়। ছাত্র-শিক্ষক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রের আয়োজনে কলকাতার সোমা গিরি নৃত্য প্রশিক্ষক হিসেবে অংশগ্রহণ করেন। ৫ দিন ব্যাপী এ কর্মশালার সমাপনী দিনে টিএসসিসিতে ‘আমি স্বাধীনতা’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সমাপনী দিনে প্রশিক্ষক ও প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে পুরস্কার প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে কেন্দ্রীয় মসজিদের পেশ ইমাম প্রফেসর ড. আ স ম শোয়াইব আহমেদকে দিয়ে কোরআন তিলাওয়াত করানো হয়। এতে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যাক্ত করেছেন বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। ইসলামী সংস্কৃতিতে নাচ-গানের নিষেধাজ্ঞা থাকলেও সেই নাচের অনুষ্ঠানেই কোরআন তিলাওয়াত করিয়েছে প্রশাসন। ভিসি, প্রো-ভিসি, ট্রেজারের সামনেই কোরআন তিলাওয়াত করানো হয়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষার্থী বলেন, ‘ইসলামী বিশ^বিদ্যালয় এখন কেবল নামের মাঝেই রয়েছে। প্রতিটি কাজেই ইসলাম বিরোধী কর্মকান্ড চালিয়ে আসছে প্রশাসন। ইসলামী অনুষ্ঠান না করলেও নিয়মিত পূজা আর অনৈসলামিক কাজে প্রশাসনের আগ্রহ বেশি।’

অনুষ্ঠানে মার্কেটিং বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. জাকারিয়া রহমানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভিসি প্রফেসর ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারী। বিশেষ অতিথি হিসেবে প্রো-ভিসি প্রফেসর ড. শাহিনুর রহমান, ট্রেজাারার প্রফেসর ড. সেলিম তোহা, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস এম আব্দুল লতিফ ও কলকাতার নৃত্য প্রশিক্ষক সোমা গিরি উপস্থিত ছিলেন। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা অনুষ্ঠান উপভোগ করার জন্য উপস্থিত ছিলেন।

মার্কেটিং বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. জাকারিয়া রহমান বলেন, ‘বিশ^বিদ্যালয়ের অন্যান্য প্রোগ্রামগুলো যেভাবে শুরু করা হয় তারই ধারাবাহিকতায় এটি করা হয়েছে। এ বিষয়ে আমি ভাইস চ্যান্সেলর মহোদয়কে জানালে তিনি অনুমতি দেন এবং তারই অনুমতিক্রমে এটি করা হয়।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (2)
Peyar Ahmed ২ নভেম্বর, ২০১৯, ৫:১৩ পিএম says : 0
It's nothing we are digital muslim
Total Reply(0)
মুহম্মদ আব্দুর রাকিব সিদ্দিকী ৫ নভেম্বর, ২০১৯, ৫:০৬ পিএম says : 0
আমরা মুসলমান ইসলামের সঠিক এলেম থেকে দূরে থাকার কারনে আজ কোরআন শরীফ নিয়ে এইরকম অবমাননা করার সাহস পাচ্ছে। মূলত এটা ইহুদি নাছারাদের চক্রান্ত। আমাদের সকলকে সচেতন হতে হবে। আর এ জন্যই ইসলামের সঠিক জ্ঞান অর্জন করতে হবে।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন