ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১২ ফাল্গুন ১৪২৬, ৩০ জামাদিউস সানি ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

মিজান ও বাছিরের বিরুদ্ধে চার্জশিট

ঘুষ লেনদেনের মামলা

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ১৩ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০১ এএম

ঘুষ লেনদেনের মামলায় পুলিশের সাময়িক বরখাস্ত ডিআইজি মিজানুর রহমান ও দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পরিচালক (সাময়িক বরখাস্ত) খন্দকার এনামুল বাছিরের বিরুদ্ধে চার্জশিট দিচ্ছে দুদক। তদন্তে তাদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হওয়ায় এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে সংস্থাটি।
দুদক সচিব মুহাম্মদ দিলোয়ার বখত বলেন, তদন্তে ওই দুজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় কমিশন অভিযোগপত্র (চার্জশিট) অনুমোদন দিয়েছে। শিগগিরই বিচারিক আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেওয়া হবে। দুদকের মামলা থেকে বাঁচিয়ে দিতে ডিআইজি মিজানুর রহমানের কাছ থেকে ৪০ লাখ টাকা ঘুষ নেন দুদকের পরিচালক খন্দকার এনামুল বাছির। অনুসন্ধানে এর প্রমাণ পাওয়া যাওয়ায় গত বছরের ১৬ জুলাই। মিজান ও বাছিরের বিরুদ্ধে মামলা করেন সংস্থাটির পরিচালক মোহাম্মদ ফানাফিল্লাহ। তিনিই মামলার তদন্ত করেন। তার তদন্ত প্রতিবেদনের সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে কমিশনে অভিযোগপত্র দেওয়ার জন্য অনুমোদন দেয়।

মিজান ও বাছিরের বিরুদ্ধে করা মামলার এজাহারে বলা হয়, খন্দকার এনামুল বাছির কমিশনের দায়িত্ব পালনকালে অসৎ উদ্দেশ্যে নিজে আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার আশায় ক্ষমতার অপব্যবহার করেছেন। ডিআইজি মিজানুর রহমানকে অবৈধ সুযোগ দেওয়ার উদ্দেশ্যে তার অবৈধভাবে অর্জিত ৪০ লাখ টাকা ঘুষ হিসেবে নিয়েছেন। ঘুষের ওই টাকার অবস্থান গোপন করেছেন। এর মাধ্যমে তিনি দুর্নীতি প্রতিরোধ আইন এবং মানি লন্ডারিং আইনে অপরাধ করেছেন। একইভাবে ডিআইজি মো. মিজানুর রহমান সরকারি কর্মকর্তা হয়েও তার বিরুদ্ধে ওঠা অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ থেকে অব্যাহতি পাওয়ার আশায় অর্থাৎ অনুসন্ধানের ফলাফল নিজের পক্ষে নেয়ার অসৎ উদ্দেশ্যে খন্দকার এনামুল বাছিরকে অবৈধভাবে প্রভাবিত করেছেন। এ জন্য ৪০ লাখ টাকা ঘুষ দিয়ে পরস্পর যোগসাজশে প্রচলিত আইনে শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন