ঢাকা, সোমবার, ২৫ মে ২০২০, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০১ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছেই

দেশে করোনাভাইরাস

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৫ মার্চ, ২০২০, ১২:০৯ এএম

দেশে প্রতিদিনই বাড়ছে করোনাভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। এরই ধারাবাহিকতায় নতুন করে আরও ছয়জন আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে একজন মারা গেছেন। ফলে দেশে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে চারজনে। আর আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৯ জনে। গতকাল করোনাভাইরাস সংক্রান্ত অনলাইন লাইভ ব্রিফিংয়ে রোগতত্ত¡, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) পক্ষ থেকে এসব তথ্য জানানো হয়।

পরিচালক প্রফেসর ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৯২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত ৭১২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। যারমধ্যে ৩৯ জনের শরীরে করোনা পজেটিভ এসেছে। অর্থাৎ গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ছয়জন আক্রান্ত হয়েছেন।

তিনি জানান, এই ছয়জনের মধ্যে ইতিমধ্যে একজনের মৃত্যু হয়েছে। তিনি বেশকিছুদিন একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। সবমিলিয়ে মৃতের সংখ্যা চার। নতুন মৃত ব্যক্তির বয়স ৭০ বছরের বেশি। আক্রান্ত বাকি পাঁচজনের একজন সউদী আরব থেকে ওমরাহ করে ফিরেছেন। বাকি চারজন আগের রোগীদের সংস্পর্শে থেকে আক্রান্ত হয়েছেন। ডা. ফ্লোরা জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় আইইডিসিআর’র হটলাইনে করোনাভাইরাস সংক্রান্ত ১৭ শ’ টি কল এসেছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় ৯২টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এ পর্যন্ত মোট ৭১২টি নমুনা পরীক্সা করা হয়েছে। এ পর্যন্ত আইসোলশনে (নিশ্চিত শনাক্ত অথবা সন্দেহভাজন) এমন রোগীর সংখ্যা ৪০ জন। প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে আছেন ৪৬ জন। ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, আমরা বারবার বলছি, এই রোগ প্রতিরোধে যে নির্দেশনাগুলো দেওয়া হয়েছে তা মেনে চলতে হবে। সামাজিক বিচ্ছিন্নকরণের মাধ্যমে করোনা প্রতিরোধের চেষ্টা করা হচ্ছে, এতে সকলের অংশগ্রহণ একান্ত কাম্য। অনেকেই দেখা যাচ্ছে হ্যান্ড স্যানিটাইজারের দিকে ঝুঁকছেন, তবে সম্ভব হলে বারবার সাবান পানি দিয়ে হাত ধুতে হবে। গণপরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের প্রতি আহ্বান জানাবো, যাত্রী পরিবহনের পরে যেন সিটগুলো পরিষ্কার ও জীবাণুমুক্ত করা হয়, সে বিষয়ে তারা নজর দেন।

এদিকে স্বাস্থ্য অধিদফতরে করোনাভাইরাস সংক্রান্ত ‘সমন্বিত নিয়ন্ত্রন কেন্দ্র’ থেকে জানানো হয়েছে, সারাদেশে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিনের জন্য ২৯৪টি প্রতিষ্ঠান প্রস্তুত করা হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানে ১৬ হাজার ৯৪১ জনকে সেবা প্রদান করা যাবে। সারাদেশে আইসোলেশনের জন্য ৪ হাজার ৫৩৯টি শয্যা প্রস্তুত করা হয়েছে। এরমধ্যে ঢাকা শহরেই প্রস্তুত ১ হাজার ৫০ শয্যা।

এছাড়া রাজধানীর কুয়ে মৈত্রী হাসপাতাল, শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতাল, রিজেন্ট হাসপাতাল-উত্তরা, রিজেণ্ট হাসপাতাল মিরপুর এবং যাত্রাবড়ীর সাজেদা ফাউন্ডেশনে ২৯টি ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিট-আইসিইউ শয্যা প্রস্তুত আছে। পাশপাশি আরও ১৬টি আইসিইউ শয্যা প্রস্তুতির কাজ চলছে। আশকোনা হজক্যাম্পে সেনাবাহিনীর ব্যবস্থাপনায় ৩’শ জনের কোয়ারেন্টিনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক প্রফেসর ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, দেশের বিমান, সমুদ্র ও স্থাল বন্দর এবং ক্যান্টনমেন্ট রেলওয়ে স্টেশন হয়ে গত ২৪ ঘন্টায় ৩ হাজার ৩০৮ জন স্ক্রিনিংকৃত যাত্রী দেশে প্রবেশ করেছে। দেশের এসব প্রবেশ পথে গত ২১ জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত মোট প্রবেশ করেছে ৬ লাখ ৬২ হাজার ২৮৯ জন।

সেন্ট্রাল মেডিকেল স্টোরেজ ডিপার্টমেন্ট (সিএমএসডি) থেকে এ পর্যন্ত ২ লাখ ৯৭ হাজার ৮৩০ সেট হ্যান্ড গ্লাভস বিতরণ করা হয়েছে। আরও বিতরণ করা হয়েছে হেক্সিসল ২৫০ এমএল ৩২ হাজার ৭৭০ বোতল, ফেসমাস্ক ৫৬ হাজার ১০০টি, ক্যাপ ৪৮ হাজার ৩৮৫টি, সু-কভার ৪৮ হাজার ৮২০টি, সার্জিক্যাল ফেসমাস্ক ১৯ হাজার টি, কম্বো সার্জিক্যাল প্রোটেকশন ড্রেস ৫০০টি, গাউন ১২ হাজার ৬৬০টি, আই প্রোটেক্টর সেফটি গগোল্র ১৭ হাজার ৫৩৫টি। এছাড়া সাজেদা ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে ১০টি হাসপাতালে দুই হাজার পার্সোনাল প্রোটেকশন ইকুপমেন্ট বিতরণ করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ৩১ ডিসেম্বর শেষ দিকে চীনের উহানে প্রথম শনাক্ত হওয়া করোনাভাইরাস এখন বৈশ্বিক মহামারি। ইতিমধ্যে ভাইরাসটি বিশ্বের ১৮৯টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে। গতকাল সন্ধ্যা (৬টা ৪০ মিনিট) পর্যন্ত এই প্রাণঘাতী ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা তিন লাখ ৯২ হাজার ৪৩৫ এবং মারা গেছেন ১৭ হাজার ১৪৮ জন। অপরদিকে চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে এক লাখ ৩ হাজার ৩৯৫ জন। বাংলাদেশে এ ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে গত ৮ মার্চ। এরপর দিন দিন এ ভাইরাসে সংক্রমণের সংখ্যা বেড়েছে। সর্বশেষ হিসাবে দেশে এখন পর্যন্ত ৩৯ জন আক্রান্ত হয়েছেন, মৃত্যু হয়েছে ৪ জনের। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৫ জন।
করোনার বিস্তাররোধে এরই মধ্যে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে সভা-সমাবেশ ও গণজমায়েতের ওপর। চারটি দেশ ও অঞ্চল ছাড়া সব দেশ থেকেই যাত্রী আসা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। বন্ধ করা হয়েছে দেশের সব বিপণিবিতান, ট্রেন যোগাযোগ ও লঞ্চ চলাচল। এছাড়া মুলতবি করা হয়েছে জামিন ও গুরুত্বপূর্ণ বিষয়াদি ছাড়া নিম্ন আদালতের বিচারিক কাজ।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণরোধে আগামী ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত দেশের সরকারি-বেসরকারি সব ধরনের প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছে সরকার। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে বাস, ট্রেন, লঞ্চসহ সব ধরনের গণপরিবহন। এ কার্যক্রমে স্থানীয় প্রশাসনকে সহায়তার জন্য দেশের সব জেলায় মোতায়েন করা হয়েছে সশস্ত্র বাহিনী।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (12)
সিলেট লিবারেট ২৫ মার্চ, ২০২০, ১:০৫ এএম says : 0
আল্লাহ তোমার দেয়া রহমতের আশা থেকে যেনো নিরাশ না হই। আর তোমার দেয়া সব গজব থেকে তোমার প্রিয় হাবিব সাইয়িদিনা মোহাম্মাদ মোস্তোফা সালেল্লাহু আলাই ওয়া সালল্লামে খাতিরে তাঁর সব উম্মতে মুহাম্মাদিদেরকে কঠিন রুগ মহামারি হতে মুক্তি দিন, আর বিশ্বের সব জাতি হেদায়াত পাক ভালো হোউক তারা আমাদের মানব জাতিয় ভাই ,আমিন
Total Reply(0)
Shahidul Islam ২৫ মার্চ, ২০২০, ১:০৭ এএম says : 0
এখনো সময় আছে পদক্ষেপ গ্রহনের সকল বাহিনীদের উচিত নিজ নিজ উদ্যোগে এক জেলা থেকে অন্য জেলার, এক থানা থেকে অন্য থানার, এক গ্রাম থেকে অন্য গ্রামের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করা তথা যাতায়াত নিষিদ্ধ করা এবং দ্রব্য মূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখার ব্যবস্থা করা ৷ —এটাই হবে দেশের ভবিষ্যতের জন্য মঙ্গলজনক ৷
Total Reply(0)
Md. Rana ২৫ মার্চ, ২০২০, ১:০৭ এএম says : 0
আমাদের কি হবে, ভালো অর্থনীতির, ভালো চিকিৎসা অবকাঠামোর দেশগুলো যেখানে ফেল করল,
Total Reply(0)
Meerajul Mawla ২৫ মার্চ, ২০২০, ১:০৮ এএম says : 0
আমাদের সেনাবাহিনী জীবনের ঝুকি নিয়ে মাঠে নামছে I আলহামদুলিল্লাহ I তারা তাদের দায়িত্ব পালন করবেন I চীন সহায়তা প্রদান শুরু করেছে I আরো করবে I এখন আমাদের দায়িত্ব পালনের সময় I সচেতন হওয়ার সময় I ইনশাল্লাহ আমরা এই কঠিন সময় অতিক্রম করবো I আমরা সবাই বিপদে I সবাইকে তাই একসাথে মোকাবিলা করতে হবে I দোয়া করি সেনাবাহিনী সফলভাবে তাদের দায়িত্ব পালন করবে I অন্ততঃ সবাই ন্যুনতম চিকিৎসা পাবে I ইনফেকশন কমবে I চীনে যখন ইনফেকশন কমেছে, আল্লাহর রহমতে অন্য জায়গায় কমে যাবে I আমীন I
Total Reply(0)
Afrina Aditi ২৫ মার্চ, ২০২০, ১:০৮ এএম says : 0
আল্লাহ একমাত্র রক্ষাকর্তা। তিনি ই আমাদের জন্য যথেষ্ট। এবং তিনি ই সর্বোত্তম সাহায্যকারী। আল্লাহু আকবার।
Total Reply(0)
Kamran Uddin Rayhan ২৫ মার্চ, ২০২০, ১:০৯ এএম says : 0
Stay at home. Stay safe শত সহস্র বছরের গতিময় মানব জীবনকে থামিয়ে দিয়েছে করোনা নামক একটি ভাইরাস! ভাবতে পারেন ! কোন বোমারু বিমান নয়, কোন শক্তিশালী অস্ত্র, বিশ্বের নামকরা প্রশিক্ষিত সেনাবাহিনীও নয়। নয় কোন নাপাম বোমা, মলোটভ ককটেল কিংবা আণবিক বোমা। অজানা অচেনা একটি ভাইরাস কেড়ে নিচ্ছে হাজার হাজার মানব প্রাণ। আক্রান্ত হয়েছে লাখ লাখ মানুষ। মানুষ! তুমি কতো অসহায়! তারপরও তোমার কীসের এতো অহংকার! আর সময় নষ্ট কর না। ফিরে এসো .. ফিরে এসো আল্লাহর দিকে।
Total Reply(0)
Rosse Di Md Balal ২৫ মার্চ, ২০২০, ১:১০ এএম says : 0
করোনা ভাইরাস বুঝিয়ে দিয়েছেন দুনিয়াতে একমাত্র মহান আল্লাহর হুকুম চলবে।
Total Reply(0)
Munira Jahan ২৫ মার্চ, ২০২০, ১:১০ এএম says : 0
বাংলাদেশের অবস্থা কি হবে একমাত্র আল্লাহ ই ভাল জানেন... সত্যি বলতে বিশ্বের প্রতিটি দেশের মানুষের মধ্যে দারুন পরিবর্তন হয়েছে কিন্তু বাংলাদেশের অধিকাংশ মানুষের মধ্যে তেমন কোন পরিবর্তন আসে নি... এরা যেমন তেমনি আছে... আর এদের কারনেই বেশি ভয় হচ্ছে আমাদের উপর গজবের আজাব না আবার বেশি ভয়ংকর হয়ে উঠে... আল্লাহ সুবহানআল্লাহ তাআলা তুমি আমাদের হিফাজত কর ক্ষমা কর....
Total Reply(0)
রিদওয়ানুল খবীর জুনাইদ ২৫ মার্চ, ২০২০, ১:১১ এএম says : 0
আজকে ইসলামিক ফাউন্ডেশনে উলামাদের বৈঠকে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তঃ মসজিদ একেবারে বন্ধ হবেনা৷ ইমাম-মুয়াজ্জিনরা জামাত চালু রাখবেন৷ আর সাধারন মুসল্লীরা নিজ নিজ বাসায় নামাজ পড়তে পারবেন৷ তবে, বাসায় একা নামায না পড়ে পরিবারের সবাই মিলে জামাতের সাথে পড়লে সওয়াব বেশী হবে৷
Total Reply(0)
Hammad sadik ২৫ মার্চ, ২০২০, ৬:২৬ এএম says : 0
আল্লাহ তুমি বিশ্ববাসীকে এ করোনা মহামারি থেকে হেফাজত করুন।আমিন
Total Reply(0)
Hammad sadik ২৫ মার্চ, ২০২০, ৬:২৬ এএম says : 0
আল্লাহ তুমি বিশ্ববাসীকে এ করোনা মহামারি থেকে হেফাজত করুন।আমিন
Total Reply(0)
Hammad sadik ২৫ মার্চ, ২০২০, ৬:২৭ এএম says : 0
আল্লাহ তুমি বিশ্ববাসীকে এ করোনা মহামারি থেকে হেফাজত করুন।আমিন
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন