ঢাকা, শুক্রবার, ০৩ জুলাই ২০২০, ১৯ আষাঢ় ১৪২৭, ১১ যিলক্বদ ১৪৪১ হিজরী

শান্তি ও সমৃদ্ধির পথ ইসলাম

শান্তি কোথায় মেলে

উবায়দুর রহমান খান নদভী | প্রকাশের সময় : ৩০ মে, ২০২০, ১২:০১ এএম

সুখ শান্তি সবাই চায়। তবে প্রকৃত শান্তি তারাই পায় যারা শান্তির ঠিকানা জানে। অধিকাংশ মানুষ শান্তির ছায়ার পেছনে ছুটে মরছে। সেই নির্বোধ মানুষের মতো যে একটি পাখি ধরবে বলে পাখির ছায়ার পেছনে ছুটছিল। তাকে একজন বুদ্ধিমান লোক বলেছিলেন, ছায়ার পেছনে না ছুটে মূল পাখিটাকে ধরো। অনেক মানুষই মূল শান্তি না চিনে শান্তির ছায়া ধরতে জীবনভর ছুটে বেড়ায়। মহান আল্লাহ বলেন, জেনে রাখো, অন্তরের শান্তি ও স্বস্তি রয়েছে আল্লাহর যিকিরের মধ্যে।

বিস্তারিত অর্থে আল্লাহর হুকুম মানা ও তার নিষেধ থেকে বিরত থাকা শান্তির প্রধান পথ। মানুষের জীবনে শান্তি রয়েছে কেবল একটি পথেই। সেটি সুন্নতের পথ, শরীয়তের পথ। মানুষ যখন ঈমান, আমল ঠিক করে নেয় এবং পরস্পরের হক দিয়ে দেয়, কাউকে কষ্ট না দেয়ার অঙ্গীকার করে তখনই ধূলির ধরা পরিণত হয় এক ধরনের জান্নাতে। জান্নাত তো এ জগতে দেখা বা কল্পনাও করা যাবে না। তবে পৃথিবীতে অপার্থিব আনন্দ আর সুখকে আমরা জান্নাতী সুখ বলে আখ্যা দিয়ে থাকি।

এক ব্যক্তি রাস্তায় সড়ক-বাতির আলোয় কী যেন খুঁজছিল। দু’য়েকজন পথচারী এসে তাকে জিজ্ঞেস করলো, কী খুঁজছেন ভাই? আপনি কি কিছু হারিয়েছেন? লোকটি জবাবে বলল, একটি দামি অলঙ্কার। তখন সবাই মিলে তন্ন তন্ন করে অনেক্ষণ ধরে খুঁজল। যখন কিছুতেই পাওয়া গেল না তখন একজন পথচারী প্রশ্ন করল, একটি জিনিস হারিয়ে গেল, আমরা এতগুলো লোক এতক্ষণ ধরে খুঁজে মরছি। কিছুতেই পেলাম না। তাহলে জিনিসটি গেল কোথায়? অলঙ্কারের মালিককে সে প্রশ্ন করল, আপনার জিনিসটি ঠিক কোথায় হারিয়েছেন, বলুন তো।
মালিক জবাব দিলো, হারিয়েছে আমার গ্রামে কিন্তু সেখানে আলো নেই। শহরে এসে দেখলাম এ জায়গাটি বেশ আলোকিত। ভাবলাম, এখানে খুঁজলে পাওয়া যাবে। তার জবাব শুনে সব পথচারী রেগে গেল। কেউ কেউ তাকে নির্বোধ বলে গাল দিয়ে চলে গেল। অনেকেই তার মাথা ঠিক নয় বলে মন্তব্য করতে লাগল।
এখানে নিজ আচরণের জন্য আমরা এ লোকটিকে বোকা অথবা পাগল বলতে পারি, কিন্তু পৃথিবীতে প্রায় সব মানুষই এ ধরনের ভুল পন্থা অবলম্বন করে আছে। তারা শান্তির মালিক আল্লাহকে অবলম্বন না করে অন্যত্র শান্তি খুঁজে মরছে। শরীয়ত ও সুন্নাহর পথ ত্যাগ করে যখন তারা সুখ-শান্তি হাতছাড়া করে ফেলেছে তখন অন্য জায়গায় তা খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা করছে। মানুষ তেতো ফলের গাছ লাগিয়ে মিষ্টি ফল আশা করছে। সন্তানদের দীনি শিক্ষা না দিয়ে মহব্বত ও আনুগত্য আশা করছে। ঈমান আমল ঠিক না করে দয়া, মায়া ও মানবতা আশা করছে। অঙ্গীকার ভঙ্গ করেও দীনদার হতে চাইছে। আমানতের খেয়ানত করেও ঈমানদার হতে চাইছে। হারাম উপার্জন করেও পরহেযগার হতে চাইছে। অন্যের সম্পদ গ্রাস করেও মুত্তাকী হতে চাইছে। এ যেন অগ্নিকুন্ডে ঝাঁপ দিয়ে নিরাপদ থাকার বৃথা আশা।

আমার কাছে গত ৩০/৩৫ বছরে যত মাসআলা, সমস্যা বা জিজ্ঞাসা নিয়ে মানুষ এসেছে তার মধ্যে অসংখ্য ছিল বান্দার হক সম্পর্কে। আমি লক্ষ করেছি, যত মানুষ বান্দার হক নষ্ট করে তাদের চেয়ে আল্লাহর হক নষ্টকারী মানুষের পরিমাণ কম। যেসব লোক আমার পরামর্শ চেয়েছেন তাদের সংখ্যা বললাম। সমাজের বাকি মানুষের সংখ্যা এমন হতে পারে বা নাও হতে পারে।

একবার মক্কা শরীফে এক মজলিসে আমি হালাল জীবিকার ওপর বয়ান করলাম। পরদিন ঢাকার এক হজযাত্রী দেখা করতে এলেন। তিনি বললেন, আমি আমার মাকে নিয়ে হজ করতে এসেছি। গতকাল আপনার বয়ান শুনে আমার মা ও আমি দুজনই খুব অস্থির। কারণ, দেশে আমাদের প্রায় সকল সম্পত্তিই হারাম উপায়ে অর্জিত। হালাল উপার্জন দিয়ে আমরা অতি সাধারণ জীবনযাপন করতে পারতাম কি না সন্দেহ। তবে ঘুষের টাকায় আমার বাবা একাধিক বাড়ি করেছেন। দুর্নীতির দ্বারা অনেক সম্পদ জমা করে গেছেন। আমরা এখনো সুদমুক্ত নই। আমার আম্মা খুব পরহেযগার। আমি নিয়মিত নামাজ রোজা করি না। আমাকে দীনের পথে আনার জন্য মা খুবই চেষ্টা করছেন। আমি তাদের সমস্যা বুঝতে পেরে ঢাকার একজন আলেমের পরামর্শে চলার এবং সবকিছু সংশোধন করার পরামর্শ দিয়েছি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (8)
কামাল রাহী ৩০ মে, ২০২০, ১:২১ এএম says : 0
ইসলামের কিতাব আলকুরআন মানুষকে নাজাতের পথ দেখায়। কী থেকে নাজাতের? প্রথমত আখিরাতের মহা বিপদ থেকে নাজাতের।
Total Reply(0)
তরুন সাকা চৌধুরী ৩০ মে, ২০২০, ১:২২ এএম says : 0
কেউ ইসলাম ছাড়া অন্য কোনো দ্বীন কবুল করতে চাইলে তার নিকট থেকে তা কখনও গ্রহণ করা হবে না। আর সে হবে আখিরাতে ক্ষতিগ্রস্তদের অন্তর্ভুক্ত। -সূরা আলে ইমরান (৩) : ৮৫
Total Reply(0)
জাহিদ খান ৩০ মে, ২০২০, ১:২২ এএম says : 0
কে না জানে শান্তি ও প্রশান্তির কেন্দ্রবিন্দু হচ্ছে মানুষের মন। মনে যদি শান্তি থাকে তাহলে গোটা সত্তায় শান্তি বিরাজ করে। আর মন যদি অশান্ত হয় মানবের গোটা সত্তা অশান্তিতে আক্রান্ত হয়। মনের শান্তির একমাত্র উপায় আল্লাহর স্মরণ, তাঁর প্রতি আস্থা ও সমর্পণ এবং জীবন ও জগতের সকল বিষয়ে তাঁর ফয়সালায় সন্তুষ্টি।
Total Reply(0)
জোবায়ের আহমেদ ৩০ মে, ২০২০, ১:২৩ এএম says : 0
মনের শান্তির একমাত্র উপায় আল্লাহর স্মরণ, তাঁর প্রতি আস্থা ও সমর্পণ এবং জীবন ও জগতের সকল বিষয়ে তাঁর ফয়সালায় সন্তুষ্টি। এই সম্পদ যে পেয়েছে জীবনে তার দুঃখ-কষ্ট থাকতে পারে, উপায়-উপকরণের স্বল্পতাও থাকতে পারে কিন্তু অশান্তি থাকে না। কারণ মহান আল্লাহ তার হৃদয়কে পরিতুষ্টি ও পরিতৃপ্তি দ্বারা পূর্ণ করে দেন। আল্লাহর প্রতি আস্থার অবলম্বনে তাঁর হৃদয় থাকে ভারমুক্ত ও শঙ্কামুক্ত।
Total Reply(0)
Anwar ৩০ মে, ২০২০, ১০:৪৫ এএম says : 0
কেউ ইসলাম ছাড়া অন্য কোনো দ্বীন কবুল করতে চাইলে তার নিকট থেকে তা কখনও গ্রহণ করা হবে না। আর সে হবে আখিরাতে ক্ষতিগ্রস্তদের অন্তর্ভুক্ত। -সূরা আলে ইমরান (৩) : ৮৫
Total Reply(0)
মাহফুজ আহমেদ ৩০ মে, ২০২০, ৯:০৩ এএম says : 0
ইসলামী অনুশাসন মেনে চলার মাঝেই আছে শান্তি
Total Reply(0)
Firoz Khan ৩০ মে, ২০২০, ৯:০০ এএম says : 0
Thanks a lot to the writer and the Daily Inqilab
Total Reply(0)
Md. Munzurul Morshed ১ জুন, ২০২০, ৫:৫০ এএম says : 0
Thanks to writer.
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন