ঢাকা বুধবার, ২৫ নভেম্বর ২০২০, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৯ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

রংপুরে পুলিশ সদস্যের নেতৃত্বে স্কুলছাত্রীকে গণধর্ষণ : আটক ডিবি পুলিশ

রংপুর থেকে স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৬ অক্টোবর, ২০২০, ১০:৪৭ এএম

এবার রংপুরে এক ডিবি পুলিশ স্কুলছাত্রীকে ধণধর্ষণের অভিযোগে গ্রেপ্তার হয়েছেন। রংপুর মেট্রোপলিটন ডিবি পুলিশের এএসআই রায়হানুল ইসলামকে গতরাতে গ্রেপ্তার করা হয়।


রংপুর মেট্রোপলিটন ডিবি পুলিশের একজন এএসআইয়ের নেতৃত্বে মহানগরীর হারাগাছ থানার ক্যাদারের পুল এলাকায় একটি বাড়িতে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ডেকে এনে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। পুলিশ ওই কিশোরীকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেছে। আটক করা হয়েছে ভাড়াটিয়া আলেয়া নামের এক মহিলাকে।

ভুক্তভোগীর পরিবার সূত্র জানায়, রংপুর মহানগরীর হারাগাছ থানার ময়নাকুঠি কচুটারি এলাকার নবম শ্রেণির এক ছাত্রীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন মেট্রোপলিটন ডিবি পুলিশের এএসআই রায়হানুল ইসলাম। পরিচয়ের সময় রায়হান তার ডাক নাম রাজু বলে জানায় ওই ছাত্রীকে।

সম্পর্কের সূত্র ধরে রোববার সকালে ওই ছাত্রীকে রায়হান ডেকে নেয় ক্যাদারের পুল এলাকার শহিদুল্লাহ মিয়ার ভাড়াটিয়া আলেয়া বেগমের বাড়িতে। সেখানে রায়হান ওই ছাত্রীকে ধর্ষণের পর তার আরও কয়েকজন পরিচিত যুবককে দিয়ে ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করায়। এ ঘটনায় ওই ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়লে সেখান থেকে বের হয়ে পুলিশকে বিষয়টি জানায়। রাত সাড়ে আটটার দিকে পুলিশ ভুক্তভোগী ছাত্রীকে ওই বাড়ি থেকে ভাড়াটিয়া আলেয়া বেগমসহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। খবর দেয়া হয় পরিবারকে।

জিজ্ঞাসাবাদ শেষে ছাত্রীর পিতা আয়নাল বাদি হয়ে পুলিশ সদস্য রাজুসহ ২ জনের নাম উল্লেখ করে ধর্ষণ মামলা করেন। রাত পৌনে ১২টায় পুলিশ অসুস্থ ছাত্রীকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে ভর্তি করায়। ওই পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে ওই বাড়িতে বিভিন্ন সময়ে মেয়ে নিয়ে গিয়ে অসামাজিক কার্যকলাপের অভিযোগও আছে।

ওই ছাত্রীর মা জানান, ডিবি পুলিশের এএসআই রায়হানের সাথে আমার মেয়ে কথা বলতো এবং মাঝেমধ্যে দেখা সাক্ষাৎ করতো।

মামলার সাক্ষী ভুক্তভোগীর পাশের বাড়ির চাচা আতিয়ার রহমান জানান, মামলার আসামি ধরতে গিয়ে আমার ভাতিজির সাথে পরিচয় এএসআই রায়হানুলের। তারপর থেকেই তাদের সাথে ভালো সম্পর্ক তৈরি হয়। আমার ভাতিজি তার সাথে কথাবার্তা বলতো। আমার ভাতিজি ময়নাকুঠি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী। সে পড়াশুনায় খুব ভালো।

এদিকে, এ ঘটনায় রাত ১২টায় হারাগাছ থানায় মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) আবু মারুফ হোসেন জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তাকে দুইজন ধর্ষণ করেছে বলে জানা গেছে। এরমধ্যে রাজু নামের একজন পুলিশ সদস্যের কথা জানিয়েছেন তিনি। তবে ওই রাজু ডিবি পুলিশের এএসআই রায়হানুল কিনা তা নিশ্চিত হতে রায়হানুলকেও পুলিশের জিম্মায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। মামলার তদন্ত কার্যক্রম এখনও প্রাথমিক পর্যায়ে বলেও জানান তিনি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
H M NOORUN NABI CHOWDHURY ২৮ অক্টোবর, ২০২০, ৯:২৭ পিএম says : 0
আইজি (পি) এর নিকট আকুল আবেদন এই যে, আমরা আসহায় নীরিহ মানুষ বিপদে-আপদে, যে কোন ধরনের সংকটের সময় পুলিশের সাহায্য কামনা করি। পুলিশকে আমাদের রক্ষক হিসাবে ভাবিয়া তাহাদের আশ্রয় লাভের প্রত্যাশা করি। শেষ ভরসার স্থল যদি আমাদের মা, বোন, মেয়ে, স্ত্রী এর সাথে এমন ধরনের আচরণ করে তবে সাধারণ নীরিহ মানুষগুলো কোথায় যাবে? বাংলাদেশ পুলিশ এর প্রতি ক্ষোভ অথবা অভিযোগ নয়, বিনীতভাবে অনুরোধ করিতেছি যে, পুলিশের সকল সদস্যগণ যেন মানুষের প্রতি মানবিক আচরণ করে। অন্যায়ের বিরুদ্ধে যেন প্রতিবাদ করে। সমাজের বা দেশের অন্যায় অত্যাচার, দুর্নীতি, রাহাজানি, সন্ত্রাস, খুন, ধর্ষণ, দাঙ্গা-হাঙ্গামা, চুরি-ডাকাতি, প্রতারণা, মাদক, চাঁদাবাজি, মানব পাচার, নারী নির্যাতন, অপহরণ ইত্যাদি অপরাধ নির্মুলে পুলিশ কাজ করিবে। পুলিশ যদি নিজের দায়িত্ব পালন না করিয়া নিজেই অপরাধে জড়াইয়া পড়ে তবে দেশটা রসাতলে যাইবে। পুলিশের নিকট সকল নাগরিকের প্রত্যাশা, তাহদের মধ্যে সততা, দেশ-প্রেম, ন্যায় পরায়ন, সৎ চরিত্রের অধিকারী হইয়া নিষ্ঠার সাথে দেশ গড়ার কাজে নিজেকে নিয়োগ করিবে এবং নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করিবে। বিষয়টির উপর গুরুত্ব দিবেন বলিয়া আমাদের প্রত্যাশা। গুটি কয়েক সদস্যের জন্য সকল পুলিশ সদস্যদের বদনাম হইবে অবশ্যই আপনি তাহা কামনা করিবেন না। সকল পুলিশ সদস্য মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় কাজ করিবে।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন