ঢাকা সোমবার, ২৩ নভেম্বর ২০২০, ০৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৭ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

সেরাটা জমিয়ে রেখেছেন তামিম

নতুন চ্যাম্পিয়ন পাচ্ছে পিএসএল, লাহোর-করাচি ফাইনাল আজ

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৮ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০১ এএম

আগের ম্যাচে নেমেছিলেন রান তাড়া করতে। চাপটা তাই ছিল একটু বেশি। এবার আগে ব্যাট করতে নামায় কিছুটা নির্ভার ছিল পরিস্থিতি। তবে এবারও ঝড়ো শুরু করে ইনিংস লম্বা করতে পারেননি তামিম ইকবাল। তবে তাতেও জয় আটকায়নি লাহোর কালান্দার্সের। মুলতান সুলতানকে ২৫ রানে হারিয়ে প্রথম বারেরমতো পিএসএললের ফাইনালে উঠেছে তামিদের দল।

গতপরশু রাতে করাচি স্টেডিয়ামে আসরের দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে নেমে লাহোরের হয়ে তামিম করেন ২০ বলে ৩০ রান। তার আগ্রাসী ব্যাটে উড়ন্ত স‚চনাই পেয়েছিল লাহোর। পরে সামিথ প্যাটেলের ১৬ বলে ২৬ আর ডেভিড ভিসের ২১ বলে ৪৮ রানে ভর করে লাহোর করে ১৮২ রান। ওই রান তাড়া করে ১৫৭ রানে থামে মুলতান। একই মাঠে আজকের ফাইনালে তামিমদের প্রতিপক্ষ করাচি কিংস। দুই দলের সামনেই টুর্নামেন্টে প্রথম শিরোপার হাতছানি।

তামিমের ছোট্ট কার্যকরী ইনিংসে ছিল ৫টি চারের মার। ৪.৫ ওভারে তামিম যখন আউট হলেন, তার দল লাহোর কালান্দার্সের স্কোর ৪৬। অর্থাৎ সে সময় পর্যন্ত দলীয় স্কোরের ৬৫.২১ শতাংশ রান এসেছে তামিমের ব্যাট থেকে। ওভারপ্রতি প্রায় ১০ করে রান আসছিল তাদের। তবে পঞ্চম ওভারে জুনাইদ খানের বলে থেমে যায় ৫ চারে তামিমের ছোট ঝড়। অফ স্পিনার অ্যাডাম লিথকে এগিয়ে এসে লং অফ দিয়ে চারে শুরু তামিমের। পরের ওভারে সোহেল তানবীরকে মেরেছেন ক্ল্যাসিকাল কাভার ড্রাইভ। মোহাম্মদ ইলিয়াসকে স্কয়ার কাট, আর স্কয়ার ড্রাইভে করেন সীমানাছাড়া। বড় কিছুর আভাসই মিলছিল তখন। কিন্তু জুনায়েন খানের বলে অনসাইডে ঠেলে দিতে গিয়ে বলের গতি বুঝতে পারেননি। টপ এজে সোজা ক্যাচ উঠে পয়েন্টে থাকা খুশদিল শাহর হাতে।

তামিমের সঙ্গী ফখর অবশ্য আরও খানিকক্ষণ টিকেছিলেন। করেছেন ৩৬ বলে ৪৬ রান। শেষ দিকে সামিথ আর ভিসের ব্যাটে লড়াকু প‚ঁজি পায় লাহোর। পরে বল হাতেও জ্বলে ওঠেন দক্ষিণ আফ্রিকান অলরাউন্ডার ভিসা। মুলতানের হয়ে লিথের ২৯ বলে ৫০ ছাড়া আর কেউ ত্রিশ পার করতে পারেননি। ২৭ রানে ৩ উইকেট নিয়ে লাহোরের সেরা বোলার ভিসা। একই সঙ্গে তিনি দুর্দান্ত একটি ক্যাচ নেন বাউন্ডারিতে। ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতেন তিনিই।

ম্যাচের পরপরই পাকিস্তানের জনপ্রিয় এক ক্রিকেট ব্লগের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম অ্যাকাউন্টে প্রশ্ন করা হয়, ‘তামিম ইকবাল কি বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ক্রিকেটার?’ সেখানে অনেকে অনেক রকম জবাব দেন। তবে বেশির ভাগ ক্রিকেটপ্রেমী একমত, তামিমের ব্যাটিং দেখার মতো এবং পিএসএলে সবাই তা ভালোই উপভোগ করছেন। অথচ প্লে-অফের দুটি ম্যাচে তামিমের পরিসংখ্যান বলছে, নিজের সেরাটা তামিম সম্ভবত জমিয়ে রেখেছেন ফাইনালের জন্য!

খেলাধুলায় অবশ্য জমিয়ে রাখা বলতে কিছু হয় না। সব ম্যাচেই নিজের সেরাটা নিংড়ে দিতে হয়। কখনো সফলতা ধরা দেয়, কখনো দেয় না। তবে ভালো করার আভাস থাকলে আশা জাগবেই। পাকিস্তান সুপার লিগে (পিএসএল) তামিমের শেষ দুটি ইনিংসে সেই আভাস ভালোই ছিল। কিন্তু দ্রুত আউট হয়ে যাওয়ায় তামিমের দুটি ইনিংস থেকে পূর্ণ তৃপ্তি তুলে নেওয়ার সুযোগ হয়নি। আর তাই ফাইনালের অপেক্ষায় আছেন তামিমের ভক্তরা।

আজ ফাইনালে করাচি-লাহোর ম্যাচে ভালো করতে পারলে পাকিস্তানে তামিমকে নিয়ে আলোচনাটা আরও বেশি হওয়াই স্বাভাবিক। যেখানে লাহোর কালান্দার্স তাদের নিয়মিত ওপেনার ক্রিস লিনকে প্লে-অফের ম্যাচে না পাওয়ায় এই অস্ট্রেলিয়ানের জায়গায় খেলছেন তামিম। ঠিক যেভাবে ইংলিশ অলরাউন্ডার মঈন আলীর জায়গায় মুলতানে ডাক পেয়েছিলেন মাহমুদউল্লাহ। তবে করোনায় তার খেলা হয়নি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন