ঢাকা মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১, ০৭ বৈশাখ ১৪২৮, ০৭ রমজান ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

কর্মস্থলমুখী যাত্রীদের দুর্ভোগ

দৌলতদিয়া-পাটুরিয়ায় যানজট

ইনকিলাব ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১২:০০ এএম

কয়েকদিনের ছুটি থাকায় দক্ষিণাঞ্চলের সড়কপথে যাত্রী ও যানবাহনের বাড়তি চাপ দেখা গেছে। দৌলতদিয়া ফেরি ঘাটে পারের অপেক্ষায় রয়েছে শত শত যানবাহন। চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে যাত্রীদের।
বরিশাল ব্যুরো জানায়, টানা তিনদিন বন্ধের সুযোগে দক্ষিণাঞ্চলের সাথে রাজধানীর যাত্রী চলাচল অস্বাভাবিক বেড়ে যাওয়ার চরম দুর্ভোগের যাত্রীরা। বেশীরভাগ পরিবহন ব্যবসায়ীর এ সুযোগকে কাজে লাগিয়ে বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ উঠলেও প্রশাসনিক কোন পদক্ষেপ ছিলো না। এমনকি বরিশাল-ঢাকা রুটে বেসরকারি দুটি এয়ারলাইন্স তিনগুণ ভাড়ায়ও যাত্রী পরিবহন করেছে। টানা বন্ধে অনেকেই পরিবার পরিজন নিয়ে দক্ষিণাঞ্চলের বিভিন্ন এলাকায় এসেছিলেন নাড়ীর টানে। অনেকেই আবার কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে এসেছিলেন অবকাশ যাপনে। কিন্তু ঢাকা থেকে বরিশাল, পটুয়াখালী, ভোলা, পিরোজপুর, বরগুনা ও ঝালকাঠিমুখী শতাধিক নৌযানে এ কয়দিন ধারণক্ষমতার দ্বিগুণেরও বেশী যাত্রী পরিবহন করেও ভিড় সামাল দেয়া যায়নি। একটি কেবিন টিকেটের জন্য যাত্রীদের ঘুরতে হয়েছে এক নৌযানের অফিস থেকে আরেক অফিসে। কিছু কিছু নৌযানের টিকেট কালো বাজারে বিক্রিরও অভিযোগ ওঠে।
সড়ক পথেও প্রতিদিন শতাধিক এসি-নন এসি কোচে একটি সিটের জন্য মানুষকে চরম দুর্ভোগে পড়তে হয়েছে। মাওয়া ও আরিচা ফেরি ঘাটে শত শত যানবাহনকে ৬ থেকে আট ঘণ্টা পর্যন্ত অপেক্ষায় থাকতে হয়েছে। তিন দিনের ছুটি কাটিয়ে অনেকেই ঢাকায় ফিরতে পারেননি যানবাহনের অভাবে।
তবে রেকর্ড গড়েছে বরিশাল-ঢাকা আকাশ পথের বেসরকারি ‘ইউএস-বাংলা’ ও ‘নভো এয়ার’। প্রতিদিন একাধিক ফ্লাইট পরিচালনা করেও ভিড় সামাল দিতে না পারায় ৩ হাজার দুশ’ টাকায় কয়েকটি টিকেট বিক্রির পরেই তা ধাপে ধাপে ৯ হাজার টাকায়ও বিক্রি করেছে তারা। গত বৃহস্পতিবার থেকে গতকাল সকাল পর্যন্ত দুটি বেসরকারি আকাশ পরিবহনই প্রতিটি ফ্লাইটে ৯ হাজার টাকা করেও টিকেট বিক্রি করেছে।
রাজবাড়ী জেলা ও গোয়ালন্দ উপজেলা সংবাদদাতা জানান, তিন দিনের ছুটি শেষ ও ফরিদপুরের আটরশির ওরশ ফেরত বাড়তি যানবাহনের চাপে যানজটের তৈরি হয়েছে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাটে। বিআইডবিøটিসি দৌলতদিয়া কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, গত শুক্র, শনি ও রোববার ছিলো সরকারি ছুটি। এই তিন দিন ছুটি কাটিয়ে আবার কর্মস্থলে ফিরছে মানুষ। এছাড়াও ফরিদপুরের আটরশিতে ওরশ চলায় বাড়তি যানবাহন যোগ হয়েছে সড়কে। যে কারণে গত তিন দিন যাবৎ যানজট থেকেই যাচ্ছে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাটে।
গতকাল বিকেলে রাজবাড়ীর দৌলতদিয়া ঘাটে গিয়ে দেখা যায়, ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের দৌলতদিয়া জিরো পয়েন্ট থেকে গোয়ালন্দ ফিড মিল পর্যন্ত সাড়ে চার কিলোমিটার এলাকায় এক সাড়িতে পারের অপেক্ষায় আটকে আছে অন্তত ৫শ’ যাত্রীবাহী বাস। এছাড়াও দৌলতদিয়া ঘাট থেকে ১২ কিলোমিটার পেছনে গোয়ালন্দ মোড়ে পারের অপেক্ষায় আটকে আছে আরো অন্তত ৪ শত পণ্যবাহী ট্রাক।
বিআইডব্লিটিসি দৌলতদিয়া ঘাটের সহকারী ব্যবস্থাপক মাহাবুবুর রহমান জানান, ৩ দিনের ছুটি ও আট রশির ওরশ ফেরত যানবাহনের কারণে গত রোববার দুপুরের পর থেকেই দৌলতদিয়া ঘাটে জানজটের তৈরি হয়েছে। গতকাল সকালেও সেই যানজট ছিল।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন