রোববার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৮ কার্তিক ১৪২৮, ১৬ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

১৪ সি-ট্রাকের ১০টিই বন্ধ

বিআইডব্লিউটিসি

নাছিম উল আলম : | প্রকাশের সময় : ২২ মার্চ, ২০২১, ১২:০১ এএম

দেশের উপকূলভাগে দুর্যোগপূর্ণ মৌসুম শুরু হলেও নিরাপদ নৌযোগাযোগ নিশ্চিত হয়নি। বিআইডব্লিউটিসি’র ১৪টি সি-ট্রাকের ১০টি এখন বন্ধ। সরকারি সিদ্ধান্তনুযায়ী প্রতি বছর ১৬ মার্চ থেকে ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত দেশের উপকূলীয় এলাকা ঝঞ্ঝা বিক্ষুব্ধ এলাকা হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। এসময়ে উপকূলীয় নৌযান হিসেবে নিবন্ধিত ছাড়া অন্য কোন নৌযানের চলাচল নিষিদ্ধ। গত দুই দশকে বিআইডব্লিউটিসি ১২টি সি-ট্রাক ছাড়াও ১টি উপকূলীয় যাত্রীবাহী নৌযান সংগ্রহ করেছে। পাশাপশি আরো দুটি উপকূলীয় যাত্রীবাহী নৌযান মেরামত করা হয়েছে সরকারি অর্থে। বিশ্ব ব্যাংকের সুপারিশে সরকার প্রতিবছর সংস্থাটিকে ৫০ লাখ টাকার নগদ ভর্তুকিও প্রদান করছে।

২০১১ সাল থেকে বরিশাল-চট্টগ্রাম রুটে উপকূলীয় যাত্রী ও পণ্যবাহী স্টিমার সার্ভিস বন্ধ রয়েছে। বরিশাল-ইলিশা (ভোলা)-লক্ষ্মীপুর রুটের সি-ট্রাক সার্ভিসটি ইজারাদারের ইচ্ছায় বন্ধ হয়ে গেছে আরো ৫ বছর আগে। অথচ এ রুটে চলাচলকারী সি-ট্রাক এসটি খিজির-৮ এর মাধমে বরিশালের মানুষ লক্ষ্মীপুর হয়ে দ্রুত চট্টগ্রামে যাতায়াত করতে পারতেন। সরকারি অর্থে কেনা এ সি-ট্রাকটি ইজারাদারের ইচ্ছায় এখন ভোলার ইলিশাঘাটে রয়েছে। সংস্থাটির ১৪টি সি-ট্রাকের মধ্যে গতকাল পর্যন্ত মাত্র ৪টি যাত্রী পরিবহনে ছিল। ভোলার শশিগঞ্জ থেকে বিচ্ছিন্ন দ্বীপ মনপুরায় দিনে একবার যাত্রী পরিবহন করছে এসটি শেখ কামাল। এসটি খিজির-৫ ইলিশা-মজুচৌধুরীরহাট রুটে দিনে একবার যাত্রী পরিবহন করছে। এছাড়াও হাতিয়া-বয়ারচর রুটে যাত্রী পরিবহন করছে এসটি শেখ মনি।
এসটি ভাষা শহিদ সালাম ইজারাদারের মাধ্যমে টেকনাফ-সেন্টমার্টিন রুটে চলাচল করার পরে তা এখন বন্ধ। এছাড়া এসটি সুকান্ত বাবু কক্সবাজারে পড়ে আছে। সংস্থাটির এক নম্বর ডকইয়ার্ডে এসটি শেখ রাসেল ২০১২ সালের নভেম্বর মাস থেকে, এসটি শেখ জামাল ২০১৫ সালের জানুয়ারি থেকে এসটি শহিদ অবদুর রব সেরনিয়াবাত ২০১৭ সালের অক্টোবর থেকে মেরামতের নামে পড়ে আছে।
নারায়ণগঞ্জের বাংলাঘাটে সংস্থার পোতাশ্রয়ে এসটি খিজির-৬ ২০১২ সালের সেপ্টেম্বর থেকে, ২০১৪ সাল থেকে এসটি রূপালী এবং ২০০৩ সাল থেকে এসটি মিতালী নামের সি-ট্রাকগুলো পড়ে আছে। এছাড়া চট্টগ্রামে এসটি ভাষা শহিদ জব্বার ২০১৮ সালের অক্টোবর থেকে পড়ে আছে। গত বছর মধ্য আগস্ট থেকে ভোলায় বিকলাবস্থায় পড়ে আছে এসটি খিজির-৭। ইজারাদারের মাধ্যমে চলাচলকারী এ নৌযানটি স্থানীয় একটি বেসরকারি ডকইয়ার্ডে মেরামতের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানা গেছে। ভোলার সাথে লক্ষ্মীপুরের চর আলেকজান্ডার রুটের সি-ট্রাক সার্ভিসটি বন্ধ রয়েছে গত প্রায় ৫ বছর।
এসব বিষয়ে বিআইডব্লিউটিসি’র দায়িত্বশীলদের সাথে আলাপ করা হলে নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, উপকূলীয় নৌযোগাযোগ আরো নিরাপদ করতে আমরা চেষ্টা করছি। অনেক এলাকাতেই সংস্থার নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় সি-ট্রাক সার্ভিস পরিচালনা সম্ভব নয়।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন