রোববার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৮ কার্তিক ১৪২৮, ১৬ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

সংস্কার-আধুনিকায়ন হচ্ছে ৫২ রেল স্টেশন

কমলাপুর স্টেশনে রেলমন্ত্রী

বিশেষ সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৩ আগস্ট, ২০২১, ১২:০১ এএম

৫২ রেল স্টেশন সংস্কার ও আধুনিকায়ন করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন। গতকাল রোববার রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশন সংলগ্ন একটি পাবলিক টয়লেট নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে এ কথা জানান তিনি।
রেলমন্ত্রী বলেন, রেলকে নতুন গতিতে ও নতুন আঙ্গিকে গড়ার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। একটি আধুনিক, যুগোপযোগী ও উন্নত রেল যোগাযোগ ব্যবস্থা করার লক্ষ্যে বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। এখন সারাদেশে ৫২টি স্টেশন সংস্কার ও আধুনিকায়ন করা হচ্ছে। এসব স্টেশনগুলোতে এই আধুনিক টয়লেটের ডিজাইন ব্যবহার করা হবে। এছাড়া কমলাপুরের মতো ওয়াটার এইড বাংলাদেশ রেলওয়ের সহায়তায় বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম রেলওয়ে স্টেশন, পঞ্চগড় ও ঈশ্বরদী রেলওয়ে স্টেশনে অনুরূপ আরও দুইটি আধুনিক পাবলিক টয়লেট নির্মাণ করবে।

তিনি বলেন, রেলে অনেক প্রকল্প চলমান আছে এবং অনেক প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। পুরোনো লাইন ও ব্রিজ সংস্কার করা হচ্ছে। নতুন নতুন কোচ এবং ইঞ্জিন নিয়ে আসা হচ্ছে। নতুন ট্রেনগুলোতে বায়ো টয়লেটের ব্যবস্থা করা হচ্ছে যাতে পরিবেশ নষ্ট না হয়। রেলমন্ত্রী বেশকিছু প্রকল্পের কথা উল্লেখ করে বলেন, আগামী বছর খুলনা থেকে মংলা নতুন রেললাইন চালু হবে। এছাড়া টঙ্গী-জয়দেবপুর পর্যন্ত ডাবল লাইন চালু হবে। রেলের বর্তমান অবস্থা আরও উন্নত অবস্থায় থাকতো করোনার কোনো প্রভাব না থাকলে বলে তিনি উল্লেখ করেন। ভবিষ্যতে নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় কনসালটেন্সি ফার্ম গঠন করার উদ্যোগ নিয়েছে বলে রেলমন্ত্রী বলেন, নিজস্ব সক্ষমতা বাড়ানোর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এর মাধ্যমে আমরা নিজস্ব লোকবল দ্বারা কনসালটেন্সি সেবা দিতে সক্ষম হব এবং বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয় হবে।

অনুষ্ঠানে রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. সেলিম রেজা, অতিরিক্ত সচিব ভুবন চন্দ্র বিশ্বাস, মন্ত্রীর একান্ত সচিব ও যুগ্ম সচিব মোহাম্মদ আতিকুর রহমান, বাংলাদেশ রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, ওয়াটার এইড বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর হাসিন জাহান, বাংলাদেশ রেলওয়ের মহাপরিচালক ধীরেন্দ্র নাথ মজুমদার প্রমুখ বক্তব্য দেন।

বাংলাদেশ রেলওয়ে ও ওয়াটার এইড বাংলাদেশ লিমিটেডের যৌথ উদ্যোগে এই টয়লেট স্থাপন করা হচ্ছে। পাবলিক টয়লেটে সব আধুনিক সুবিধা রাখা হবে। এখানে পুরুষ এবং নারীদের জন্য আলাদা প্রবেশ পথ ও কক্ষ এবং টয়লেটগুলো হবে নারী, শিশু ও প্রতিবন্ধী বান্ধব। শিশুকে দুধপান করানোর ব্যবস্থাসহ নিরাপদ পানীয় এবং বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ প্রযুক্তিসহ সৌরশক্তির ব্যবহারের সুযোগ রাখা হবে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন