রোববার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৮ কার্তিক ১৪২৮, ১৬ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

ছাতক পৌর মেয়রের উপর মামলা: প্রতিবাদে নাগরিক সভা ও দুই ঘন্টা কর্মবিরতি

ছাতক (সুনামগঞ্জ) উপজেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২ সেপ্টেম্বর, ২০২১, ৯:০০ পিএম

সুনামগঞ্জের ছাতক পৌরসভার এক নারী কাউন্সিলর কর্তৃক পৌর মেয়র আবুল কালাম চৌধুরীর বিরুদ্ধে সুনামগঞ্জ আদালতে মামলা দায়েরের প্রতিবাদ জানিয়েছেন পৌর কাউন্সিলর, পরিষদের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ নাগরিকবৃন্দ। টানা চার বারের নির্বাচিত পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে মানহানিকর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার এবং নারী কাউন্সিল তাসলিমা জান্নাত কাকলীর বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানান পৌরবাসী। বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) দুপুরে পৌর পরিষদ কর্তৃক আয়োজিত পৌরসভার সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত নাগরিক সমাবেশে এ দাবী জানানো হয়।

নাগরিক সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, বৌলা এলাকার আবদুর রউফ, আয়না মিয়া, সামছু উদ্দিন আহমদ, মোগলপাড়া এলাকার সামছুল ইসলাম, বাগবাড়ী এলাকার রবিন্দ্র নাথ মিন্টু, ছালিক মিয়া চৌধুরী রোকন, নোয়ারাই এলাকার আবদুল মমিন চৌধুরী, আখলুছ মিয়া তালুকদার, চরেরবন্দ এলাকার আবদুস ছাত্তার, মন্ডলীভোগ এলাকার নুর মিয়া তালুকদার, আবুল হায়াত, বাবুল পাল, লায়েক মিয়া, শিখা রানী দে, তাতিকোনা এলাকার শরিফ আলম, ভাজনামহল এলাকার নেছার আহমদ, লেবারপাড়া এলাকার রাজেন্দ্র কুমার রায়, সিরাজ মিয়া, ফকিরটিলা এলাকার মকবুল আলী, শ্যামপাড়া এলাকার ছানু আচার্য্য, মধ্যবাজারের চম্পু দত্ত প্রমূখ।

এদিকে, পৌরসভার মেয়র, কাউন্সিলর ও পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে অশালীন আচরণ এবং অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করায় নারী কাউন্সিলর কাকলীর বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ১০ কাউন্সিলর স্বাক্ষরিত একটি রেজুলেশন করা হয়েছে। অপর দিকে, মেয়রের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা ও পৌর কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে নারী কাউন্সিলর কাকলীর অশুভ আচরণ, গালিগালাজ করার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার বেলা ৩টা থেকে ৫টা পর্যন্ত দুই ঘন্টা কর্মবিরতি পালন করেছে পৌর সভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। কর্মবিরতি পালনের সময় বক্তারা মিথ্যা ও বানোয়াট মামলা এক সপ্তাহের মধ্যে প্রত্যাহার না করলে অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্মবিরতি পালনের ঘোষণা দেন। মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার এবং নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করার জন্য কাউন্সিলর কাকলীর প্রতি আহবান জানান পরিষদের আন্দোলনকারীরা।

উল্লেখ্য, ছাতক পৌরশহরে চলাচলরত ইজবাইক ষ্ট্যান্ড থেকে অবৈধ চাঁদা আদায় নিয়ে ষ্ট্যান্ড ম্যানেজার আতিকুল ইসলামের সাথে সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর তাসলিমা জান্নাত কাকলীর সম্প্রতি বিরোধ সৃষ্টি হয়। পরে ষ্ট্যান্ড ম্যানেজার বিচার চেয়ে মেয়র বরাবরে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগ বলা হয়, শহরের পশ্চিম বাজার ইজিবাইক ষ্ট্যান্ডের ম্যানেজারের কাছ থেকে ৫ হাজার টাকা অবৈধ চাঁদা আদায় করেন নারী কাউন্সিলর কাকলীর স্বামী মাছুম আহমদ। এতে সন্তুষ্ট না হয়ে তা প্রতি মাসে চাঁদা দেয়ার দাবী জানান মাছুম। গত (২২ আগষ্ট) নারী কাউন্সিলর কাকলী মেয়রের কক্ষে প্রবেশ করে বাক-বিতন্ডায় জড়িয়ে পড়েন। ঘটনার সময়ে কক্ষে উপস্থিত পৌর কাউন্সিলর ইরাজ মিয়া জানান, ইজিবাইক শ্রমিকরা বিচার প্রার্থী হওয়ায় নারী কাউন্সিলর চরম উত্তেজিত হয়ে পড়েন। তাকে কোন ভাবেই নিবারণ করা যাচ্ছিল না। এক পর্যায়ে তিনি অকথ্যভাষায় গালাগালসহ মোবাইল ফোনে তার স্বামী ও স্বজনদের ডেকে এনে পৌর কার্যালয়ে তান্ডব চালান। এ ঘটনায় (২৭ আগষ্ট) পৌর কর্মচারী দিপ্ত বণিক বাদী হয়ে দ্রুত বিচার আইনে নারী কাউন্সিলর তাসলিমা জান্নাত কাকলীসহ তার স্বামী ও তার দুই ভায়ের বিরুদ্ধে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। এ মামলায় গত মঙ্গলবার (৩১ আগষ্ট) সুনামগঞ্জ আদালত থেকে পৌর মহিলা কাউন্সিলর তাসলিমা জান্নাত কাকলীসহ অন্যান্য আসামীরা জামিনে আছেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন