বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১১ কার্তিক ১৪২৮, ১৯ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

সম্পাদকীয়

চিঠিপত্র

| প্রকাশের সময় : ১৪ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০৩ এএম

ক্ষুদ্র ও মাঝারি ব্যবসায়ীদের প্রণোদনা দিতে হবে

বাংলাদেশের অর্থনীতির চাকা ঘোরাতে মধ্য ও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা লড়ে যাচ্ছে। করোনা মহামারিতে এই ব্যবসায়ীদের মধ্যে অনেকে আর্থিক সংকটে রয়েছে। মহামারির প্রথম লকডাউন কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই আবার তৃতীয় ধাপের লকডাউন চলছে। এমন অবস্থায় বিশেষ করে ক্ষুদ্র এবং মধ্য আয়ের ব্যবসায়ীরা লোকসানে পড়েছে। তাদের দোকান ভাড়া, কর্মচারীদের বেতন, অনেকের ব্যাংকের ঋণসহ নানামুখী সংকটে পড়েছেন। সুতরাং এমন অবস্থায় সরকারের উচিত, এই খাতের উপর নজর প্রদান এবং প্রণোদনা ঘোষণা করা।

ইফাত ইসলাম শাহীন
শিক্ষার্থী, ঢাকা কলেজ।

 

টিকার পাশাপাশি জনসচেতনতা জোরদার করতে হবে
দেশে করোনার সংক্রমণ ও মৃত্যুহারের ঊর্ধ্বগতি কিছুতেই থামানো যাচ্ছে না। জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, শুধুমাত্র গণটিকাদান কর্মসূচি বহাল রেখেই সম্পূর্ণভাবে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের বিস্তার ঠেকানো সম্ভব নয়। টিকার পাশাপাশি জনসাধারণের মধ্যে সচেতনতা বাড়াতে হবে। দেশের অধিকাংশ মানুষ বিশেষ করে গ্রামের সাধারণ মানুষ করোনা ভাইরাসের ভয়াবহতা সম্পর্কে যথেষ্ট অবগত নয়। অনেকের মধ্যে টিকার প্রতি ভয় বা আস্থার অভাব লক্ষা করা যায়। এছাড়া যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মানার ক্ষেত্রেও উদাসীন তারা। ফলে কুরবানি ঈদের ছুটি শেষ হতে না হতেই দেশের গ্রামগুলোতে করোনা ভাইরাস ভয়ংকর রূপ ধারণ করেছে এবং প্রতিদিন রেকর্ড সংখ্যক করোনা রোগী শনাক্ত হচ্ছে। করোনার এই ঊর্ধ্বগতি থামাতে না পারলে বড় ধরনের বিপর্যয়ের আশঙ্কা রয়েছে এবং অর্থনীতিতে এর ক্ষতিকর প্রভাব আরও বাড়বে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ইমরান হোসেন
শিক্ষার্থী, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন