মঙ্গলবার, ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯, ১০ মুহাররম ১৪৪৪ হিজরী

ইসলামী জীবন

কিশোর অপরাধ : আইনি ও ইসলামী দৃষ্টিকোণ

মুহাম্মাদ মনজুর হোসেন খান | প্রকাশের সময় : ২৯ অক্টোবর, ২০২১, ১২:০৩ এএম

জৈবিক কারণ : বংশগতি বা উত্তরাধিকার সূত্রে প্রাপ্ত জৈবিক বৈশিষ্ট্য কিশোর অপরাধের অন্যতম একটি কারণ। শিশু উত্তরাধিকার সূত্রে যে দৈহিক ও মানসিক বৈশিষ্ট্য লাভ করে সেটিই তার বংশগতি। জীববিজ্ঞানীরা মনে করেন যে, ব্যক্তির মন-মানসিকতা, দৃষ্টিভঙ্গি, আচার-ব্যবহার, চিন্তাধারা প্রভৃতি বিষয় বংশগতির মাধ্যমে নির্ধারিত হয়ে থাকে। জন্মগতভাবে শারীরিক ও মানসিক ত্রুটি শিশু-কিশোরদের স্বাভাবিক বিকাশকে বাধাগ্রস্ত করে। ফলে তারা অস্বাভাবিক আচরণ ও অপরাধমূলক কর্মে জড়িয়ে পড়ে। ‘উবূদুস সিরাজ, ‘ইলমূল ইজরাম ওয়া ‘ইলমূল ইকাব, প্রাগুক্ত, পৃ. ১৮৩’। জন্মগত শারীরিক ও মানসিক ত্রুটিগুলো যেমন মাথার খুলি স্বাভাবিকের চেয়ে ছোট বা বড়, গাঢ় ও ঘন ভ্রু, চেপ্টা নাক, প্রশস্ত হাতের তালু, প্রশস্ত কান, ঘন চুল, লম্বা বাহু, চোখ বসা, হাত-পায়ে অতিরিক্ত আঙ্গুল, সংকীর্ণ কপাল, অসামঞ্জস্য দাঁত, দুর্বল চিত্ত, ক্ষীণ বুদ্ধি, আত্ম-নিয়ন্ত্রণহীন, অসৎ প্রকৃতি ও বেদনার প্রতি অতি সংবেদনশীলতা ইত্যাদি। ‘প্রাগুক্ত, ইবরাহীম ‘আব্দুহু আশ-শুরফাবী, জারাইমুস সিগার ফী মীযানিশ শার’ঈ, আল-কাহেরা : দারু আহ্লিল কুরআন, ১৪২৩ হি., পৃ. ২২-২৩; Schafer Stephen, Theories in Criminology, New York : Raudom House, 1969, p. 120; বোরহান উদ্দীন খান, অপরাধ বিজ্ঞান পরিচিতি, প্রাগুক্ত, পৃ. ৮৪; বি.এল. দাস, অপরাধ বিজ্ঞান পরিচিতি, ঢাকা : কামরুল বুক হাউস, ২০০১ খ্রি., খ. ১, পৃ. ৭৬’। উপর্যুক্ত ত্রুটিগুলো থেকে পাঁচটি ত্রুটি শিশু-কিশোরের মধ্যে বিদ্যমান থাকলে অপরাধকর্মে প্রবৃত্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। ‘ইবরাহীম ‘আব্দুহু আশ-শুরফাবী, জারাইমুস সিগার ফী মীযানিশ শার’ঈ, প্রাগুক্ত, পৃ. ২৩ ’।

মার্কিন মনোবিজ্ঞানী ড. ঐবধষু শিকাগো শহরে পরিচালিত এক গবেষণায় দেখিয়েছেন যে, কিশোর অপরাধীদের ৩১% এর দৈহিক বিকাশ অস্বাভাবিক। এছাড়াও ইতালিতে সাম্প্রতিক গবেষণায় প্রতীয়মান হয় যে, দৈহিক অক্ষমতা দূর করা গেলে কিশোরদের অপরাধমূলক আচরণ থেকে রক্ষা করা যেতে পারে। ‘মো: আমিনুল হক, বিকাশ মনোবিজ্ঞান, ঢাকা : হাসান বুক হাউস, ২০১২ খ্রি., পৃ. ১৪১’। তবে কিশোর অপরাধের কারণ হিসেবে বংশগতিকে দায়ী করলে প্রশ্ন দেখা দিতে পারে যে, একই ব্যক্তির একাধিক সন্তানের মধ্যে ভিন্নধর্মী আচরণের জন্য কী কারণ দায়ী? যদি বংশগতিকেই অপরাধের কারণ মনে করা হয়, তাহলে মানুষ কেন তার কর্ম সম্পর্কে জিজ্ঞাসিত হবে? কেননা বংশগতির বিষয়ে মানুষের কোন হাত নেই। আর আল্লাহ তা’আলার নীতি হলো একজনের ভার অন্য জনের উপর চাপিয়ে না দেয়া। এ প্রসঙ্গে আল-কুরআনে বলা হয়েছে, কেউ অন্য কারো ভার বহন করবে না। ‘আল-কুরআন, ৬ : ১৬৪’। অর্থাৎ কোন ব্যক্তি অপরের পাপের বোঝা বহন করবে না। অন্য একটি আয়াতে আল্লাহ তা’আলা বলেন, আল্লাহ তোমাদেরকে তোমাদের মায়ের গর্ভ থেকে বের করেছেন, তোমরা কিছুই জানতে না। ‘আল-কুরআন, ১৬ : ৭৮’।
রাসূলুল্লাহ স. বলেছেন, ‘প্রত্যেক সন্তান ফিতরাত বা স্বভাব ধর্মের উপর জন্মগ্রহণ করে।’ ‘ইমাম আল-বুখারী, আস-সহীহ, অধ্যায় : আল-জানাইষ, অনুচ্ছেদ : মাকীলা ফী আওলাদিল মুশরিকীন, আল-কাহেরা : মাকতাবাতুস সাফা, ১৪২৩ হি., খ. ১, পৃ. ৩০৩, হাদীস নং-১৩৮৫’। উপর্যুক্ত আয়াতসমূহ ও হাদীস দ্বারা বুঝা যায় যে, বংশগতি কিশোর অপরাধের জন্য দায়ী নয়।
পারিবারিক কারণ : কিশোর অপরাধ অনুসন্ধানের ক্ষেত্রে সবসময় পরিবারকে সর্বাধিক গুরুত্ব দেয়া হয়ে থাকে। কেননা পরিবার মানুষের আদি সংগঠন এবং সমাজ জীবনের মূল ভিত্তি। পরিবারের সূচনা হয় স্বামী-স্ত্রীর বৈবাহিক বন্ধনের মাধ্যমে। আর পারিবারিক পরিমন্ডলে সন্তানের জন্ম হয় এবং বিকাশ লাভ করে। সন্তানের স্বাভাবিক ও সুস্থ বিকাশের জন্য পিতামাতার মধ্যে স¤প্রীতিময় দাম্পত্য জীবন একান্ত অপরিহার্য। পিতা-মাতার মধ্যে মনোমালিন্য ও কলহ বিবাদ থাকলে সন্তানের উপর তার বিরূপ প্রভাব পড়ে, যা পরিণামে শিশু-কিশোরদের অপরাধপ্রবণ হতে বিশেষভাবে সাহায্য করে। ‘আহ্মাদ মুহাম্মদ কুরাইষ, আর-রিয়া’আতুল ইজতিমা’ইয়াহ লিল আহ্দাছিল জানিহাইন, দামিশক: মাতবা’আতুল ইন্শা, ১৪০০ হি., পৃ. ১৮০-১৮১; প্রফেসর মো. আতিকুর রহমান, সামাজিক সমস্যা এবং সমস্যা বিশ্লেষণ কৌশল, প্রাগুক্ত, পৃ. ২৭৫’। অনুরূপভাবে পরিবারের অন্যান্য সদস্য যদি অনৈতিক বা সমাজ বিরোধী কর্মকান্ডে নিয়োজিত থাকে তাহলে পরিবারে কিশোর অপরাধ সমস্যা বিকশিত হওয়ার সুযোগ পায়। ‘আব্দুল হাকিম সরকার, অপরাধবিজ্ঞান তত্ত্ব ও বিশ্লেষণ, প্রাগুক্ত, পৃ. ১৬৭; আহ্মাদ মুহাম্মদ কুরাইষ, আর-রিয়া’আতুল ইজতিমা’ইয়াহ লিল আহ্দাছিল জানিহাইন, প্রাগুক্ত, পৃ. ১৮১-১৮২’। তেমনিভাবে ভগ্ন পরিবার ও কিশোর অপরাধের মধ্যে নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে। কেননা ভগ্ন পরিবারে সন্তানের শারীরিক ও মানসিক বিকাশ নানাভাবে বাধাগ্রস্ত হয় এবং পরিবারের নিয়ন্ত্রণ সংক্রান্ত বিষয় দুর্বল হয়ে পড়ে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন