শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

মাশরাফি-রিয়াদকে ঘিরেই উৎসব

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২৭ ডিসেম্বর, ২০২১, ১২:০০ এএম

নানা প্রতিক‚লতা কাটিয়ে অবশেষে মাঠে গড়াতে যাচ্ছে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) অষ্টম আসর। ৬ দল নিয়ে ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেটে আগামী ২১ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে এবারের আসর। ১৮ ফেব্রæয়ারি ফাইনালের মধ্য দিয়ে পর্দা নামবে দেশের ক্রিকেটের সবচাইকে জমজমাট এই ক্রিকেট লিগের। তবে মাঠের লড়াইয়ে নামার আগে দল গোছানোর জন্য আজই ভিন্ন এক লড়াইয়ে নামছে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো। এদিনই যে অনুষ্ঠিত হবে বিপিএলের প্রতীক্ষিত প্লেয়ার্স ড্রাফট। বেলা ১২টায় ঢাকার এক পাঁচতারকা হোটেলে হওয়া এই খেলোয়াড় নিলাম অনুষ্ঠান সরাসরি সম্প্রচার করবে জিটিভি ও টি স্পোর্টস। দেখা যাবে বিসিবির ফেসবুক পেজেও।
এরমধ্যেই অবশ্য ছয়জন দেশী ক্রিকেটারকে দলে টেনেছে ছয় ফ্র্যাঞ্চাইজি। অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানকে বরিশাল, মুস্তাফিজুর রহমানকে কুমিল্লা, মুশফিকুর রহিমকে খুলনা, সৌম্য সরকারকে ঢাকা, তাসকিন আহমেদকে সিলেট ও নাসুম আহমেদকে চট্টগ্রামের ফ্র্যাঞ্চাইজি দলে টেনেছে। মাশরাফি, তামিম ও মাহমুদউল্লাহর মতো সিনিয়রদের ভাগ্য এখনও নিশ্চিত হয়নি। ড্রাফটের মূল আকর্ষণই থাকবেন এই তিন তারকা।
এদিকে, শর্ত পূরণ না করার কারণে বিপিএলে ঢাকার ফ্র্যাঞ্চাইজি বদলে ফেলছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। গত ২২ ডিসেম্বর দেওয়া সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে রুপা ফেব্রিকস ও মার্ন স্টিলকে ঢাকার মালিকানাপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান হিসেবে উল্লেখ করেছিল বিসিবি। তবে ওই দুটি কোম্পানিকে বিপিএলের ঢাকা দলের মালিকানা দেওয়া হচ্ছে না। এক সূত্র জানিয়েছে, নির্ধারিত সময়ে পে-অর্ডার দিতে না পারায় এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিসিবি। বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরী বলেছেন, কিছু শর্ত পূরণ না করার কারণেই ঢাকার দলের মালিকানা পাচ্ছে না ওই দুই কোম্পানি, ‘আমাদের কিছু শর্ত ছিল। সেসব পূরণ না হওয়ার করার কারণে আমরা তাদের সঙ্গে না এগোনোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’
জানা গেছে, বিসিবি নিজেরাই এখন ঢাকার দলটি সামলাতে পারে। সেখানে খেলতে পারেন ড্রাফটে এ ক্যাটাগরিতে থাকা তামিম ইকবালও। এবারের টুর্নামেন্টে অংশ নেওয়ার কথা ঢাকার সঙ্গে আরও পাঁচটি দলের- বরিশাল (ফরচুন শুজ), চট্টগ্রাম (ডেল্টা স্পোর্টস), কুমিল্লা (কুমিল্লা লিজেন্ডস), খুলনা (মাইন্ড ট্রি) ও সিলেট (প্রগতি গ্রিন অটো রাইস মিলস)।
করোনাভাইরাসের কারণে প্রায় দুই বছর পর হচ্ছে বিপিএল। আকর্ষণের কথা মাথায় রেখে বিদেশি ক্রিকেটারের কোটাতে একাধিক ক্রিকেটারদের সরাসরি চুক্তি করে নিয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো। ড্রাফটের বাইরে সর্বোচ্চ তিনজন খেলোয়াড় কেনার সুযোগ পুরোটাই কাজে লাগিয়েছে অনেকে। দল পূর্ণ দল করতে আজ ড্রাফটে নামছে তারা।
এবারের বিপিএলে একাদশে বিদেশি ক্রিকেটারের কোটা কমানো হয়েছে। একাদশে সর্বোচ্চ তিনজন খেলাতে পারবে দলগুলো। তাই স্বাভাবিকভাবেই দেশি খেলোয়াড়দের চাহিদা বেড়েছে। তবে স্কোয়াডে সর্বোচ্চ আটজনকে বিদেশি অন্তর্ভুক্ত করতে পারবে দলগুলো। স্থানীয় খেলোয়াড়দের কোটা সর্বনিম্ন ১০ থেকে সর্বোচ্চ ১৪ জন। ড্রাফটে উঠবে মোট ২১০ জন ক্রিকেটারের নাম। আইকনবিহীন এবারের আসরের প্লেয়ার্স ড্রাফটে ৬টি গ্রেডে বাংলাদেশি ক্রিকেটারদের ভাগ করা হয়েছে। বরাবরের মতো ‘এ’ গ্রেডের ক্রিকেটাররা পাচ্ছেন সর্বোচ্চ ৭০ লাখ টাকা। এই গ্রেডে আছেন দেশের পাঁচ সিনিয়র ক্রিকেটার সাকিব, মুশফিক, তামিম, মাশরাফি ও মাহমুদউল্লাহদের সঙ্গে আছেন পেসার মুস্তাফিজও। ‘বি’ গ্রেডে থাকা ক্রিকেটাররা পাবেন ৩৫ লাখ টাকা করে। এই ক্যাটাগরিতে আছেন ১৫ জন ক্রিকেটার। ‘সি’ গ্রেডে থাকা ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক ২৫ লাখ টাকা। আছেন ৩৩ জন ক্রিকেটার। ১৮ লাখ টাকা মূল্যের ‘ডি’ ক্যাটাগরিতে আছেন ৪৫ ক্রিকেটার। ‘ই’ গ্রেডে থাকা ৩৫ জন ক্রিকেটারদের মূল্য ১২ লাখ টাকা। এছাড়া ৫ লাখ টাকা মূল্যের ‘এফ’ গ্রেডে সর্বাধিক ৭৬ জন ক্রিকেটার রয়েছেন।
সবমিলিয়ে ড্রাফটে থাকছে ২১০ জন দেশি ক্রিকেটার। আর বিদেশি খেলোয়াড়ের চারশ’রও বেশি। তবে পাকিস্তান সুপার লিগ (পিএসএল) প্রায় একই সময়ে হয়ে যাওয়ায় অনেক তারকা খেলোয়াড় পাচ্ছে না বিপিএলের ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো।

একনজরে অষ্টম বিপিএলের প্লেয়ার্স ড্রাফট তালিকা (বাংলাদেশি ক্রিকেটার)
‘এ’ গ্রেড (৬ জন), পারিশ্রমিক ৭০ লাখ : সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম, তামিম ইকবাল, মাশরাফি বিন মুর্তজা, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মুস্তাফিজুর রহমান।
‘বি’ গ্রেড (৩৫ জন), পারিশ্রমিক ৩৫ লাখ : নুরুল হাসান সোহান, মেহেদী হাসান মিরাজ, লিটন দাস, নাজমুল হোসেন শান্ত, ইমরুল কায়েস, মুমিনুল হক, তাসকিন আহমেদ, নাঈম শেখ, শেখ মেহেদী হাসান, আফিফ হোসেন ধ্রুব, নাসুম আহমেদ, শরিফুল ইসলাম, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, সৌম্য সরকার ও মোহাম্মদ মিঠুন।
‘সি’ গ্রেড (৩৩ জন), পারিশ্রমিক ২৫ লাখ : রুবেল হোসেন, কামরুল ইসলাম রাব্বি, আরাফাত সানি, তানজিদ হাসান তামিম, তৌহিদ হৃদয়, জিয়াউর রহমান, আমিনুল ইসলাম বিপ্লব, তাইজুল ইসলাম, আবু জায়েদ চৌধুরী রাহী, এনামুল হক বিজয়, সাইফ হাসান, শুভাগত হোম চৌধুরী, ফরহাদ রেজা, নাহিদুল ইসলাম, ইরফান শুক্কুর, ফজলে মাহমুদ রাব্বি, ইয়াসির আলী চৌধুরী, মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন, শামীম হোসেন পাটোয়ারি, রনি তালুকদার, আরিফুল হক, নাজমুল ইসলাম অপু, সানজামুল ইসলাম, নাঈম হাসান, আল-আমিন হোসেন, শহিদুল ইসলাম, শামসুর রহমান শুভ, জাকির হাসান, জাকের আলী অনিক, তানভীর ইসলাম, মাহমুদুল হাসান জয়, পারভেজ হোসেন ইমন ও হাসান মুরাদ।
‘ডি’ গ্রেড (৪৫ জন), পারিশ্রমিক ১৮ লাখ : অলক কাপালি, আবু হায়দার রনি, মুকিদুল ইসলাম মুগ্ধ, নাসির হোসেন, শফিউল ইসলাম, জহুরুল ইসলাম, আল-আমিন জুনিয়র, মেহেদী হাসান রানা, সৈকত আলী, রেজাউর রহমান রাজা, এবাদত হোসেন, সাব্বির রহমান, সঞ্জিত সাহা, সোহাগ গাজী, জুনায়েদ সিদ্দিকী, আকবর আলী, সৈয়দ খালেদ আহমেদ, মোহাম্মদ আশরাফুল, মার্শাল আইয়ুব, মাহমুদুল হাসান লিমন, আব্দুল মজিদ, নাদিফ চৌধুরী, মিজানুর রহমান, মোহাম্মদ শরীফউল্লাহ, মনির হোসেন খান, মোহাম্মদ ইলিয়াস, এনামুল হক জুনিয়র, মুক্তার আলী, আলাউদ্দিন বাবু, সোহরাওয়ার্দী শুভ, মেহেদী মারুফ, নাঈম ইসলাম, রাকিবুল হাসান সিনিয়র, সাকলাইন সজীব, মোহর শেখ অন্তর, সুমন খান, রাহাতুল ফেরদৌস জাভেদ, রবিউল হক, সালমান হোসেন, মাইশুকুর রহমান, আনিসুল ইসলাম ইমন, সাদমান ইসলাম, অমিত হাসান, মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী ও নাবিল সামাদ।
‘ই’ গ্রেড (৩৫ জন), পারিশ্রমিক ১২ লাখ : নাজমুল হোসেন মিলন, শুভাশীষ রায়, ইমতিয়াজ হোসেন তান্না, আসিফ আহমেদ রাতুল, তাসামুল হক, ফরহাদ হোসেন, অভিষেক মিত্র, অমিত মজুমদার, আসাদউল্লাহ আল গালিব, জাবিদ হোসেন, পিনাক ঘোষ, তানবীর হায়দার, আসিফ হাসান, দেলোয়ার হোসেন, ইমরানউজ্জামান, সাকলাইন সজীব, ধীমান ঘোষ, কাজী অনিক, ইফতেখার সাজ্জাদ রনি, মোহাম্মদ হাসানউজ্জামান, তাইবুর রহমান পারভেজ, মুনিম শাহরিয়ার, প্রীতম কুমার, শাহাদাত হোসেন দিপু, সালাউদ্দিন শাকিল, রুয়েল মিয়া, শফিকুল ইসলাম, নোমান চৌধুরী, শাহবাজ চৌহান, শাহীন আলম, সুজন হাওলাদার, শাহনুর রহমান, ফারদিন হোসেন এনি, রবিউল ইসলাম রবি ও রুবেল মিয়া।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
পলাশ ২৭ ডিসেম্বর, ২০২১, ৩:২৬ এএম says : 0
বরিশালের উচিত মাশরাফিকে নেয়া
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন