বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর ২০২২, ২১ আশ্বিন ১৪২৯, ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪ হিজরী

মহানগর

চোরাই মোটরসাইকেল যার কাছে পাওয়া যাবে সেই চোর

নিজস্ব প্রতিবেদক | প্রকাশের সময় : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ৩:১৩ পিএম

চোরাই মোটরসাইকেল যার কাছ থেকে পাওয়া যাবে সেই চোর হবে এবং তাকে গ্রেপ্তার করা হবে বলে জানিয়েছেন ডিএমপির অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (গোয়েন্দা) মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ।

বুধবার ১৫টি চোরাই মোটরসাইকেলসহ চোরচক্রের পাঁচ সদস্যকে গ্রেপ্তার করে
বৃহস্পতিবার দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে একথা জানান তিনি।

ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা (উত্তর) বিভাগের সংঘবদ্ধ অপরাধ ও গাড়ি চুরি প্রতিরোধ টিম অভিযান চালিয়ে মোহাম্মদ আলী, আনোয়ার হোসেন রুবেল, মো. সামছুল হুদা, কামাল হোসেন আকাশ ও মিজানকে গ্রেপ্তার করে। এসময় সময় তাদের কাছ থেকে ১৫টি চোরাই মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়।

বুধবার রাজধানী ঢাকা ও নোয়াখালীর চাটখিল থানা এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে হারুন অর রশিদ বলেন, গত ২০ ফেব্রুয়ারি উত্তরা দক্ষিণখান থানায় একটি মোটরসাইকেল চুরির মামলা করেন একজন ভুক্তভোগী। পরে মামলাটি তদন্ত করতে গিয়ে গোয়েন্দা উত্তরা বিভাগ এ চোরচক্রকে শনাক্ত করা হয়।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তার মোহাম্মদ আলী জানান, তিনি ও তার সহযোগীরা গত কয়েক বছর ধরে ঢাকার উত্তরাসহ বিভিন্ন এলাকা থেকে মোটরসাইকেল চুরি করে নোয়াখালী জেলার চাটখিল ও সোনাইমুড়ী থানা এলাকায় বিক্রি করতেন।

তিনি বলেন, নোয়াখালী জেলার চাটখিল থানার পূর্ব বাজার সংলগ্ন আনোয়ার হোসেনের গ্যারেজে চোরাই মোটরসাইকেল আছে। গ্রেপ্তার মোহাম্মদ আলীর তথ্যের ভিত্তিতে চোরচক্রের মূলহোতা আনোয়ার হোসেন রুবেলসহ অন্যান্য আসামিদের গ্রেপ্তার করা হয়।

ডিবি প্রধান বলেন, নকল চাবি দিয়ে চক্রের সদস্যরা গ্যারেজ ভেঙে অথবা পার্কিং করা অবস্থায় গাড়ি চুরি করে পালিয়ে যেতো।

অতিরিক্ত কমিশনার বলেন, মোটরসাইকেল চুরি হলে অনেকেই থানায় জিডি বা মামলা করেন না। রাজধানী থেকে যে কোনো গাড়ি চুরি হলেই মামলা না করলে অন্তত জিডি করার পরামর্শ দেন হারুন অর রশীদ।

এরপর সেই জিডি ডিবির কাছে দিলে ডিবি তদন্ত করে চোরচক্রকে গ্রেপ্তার করবে এবং মোটরসাইকেল উদ্ধার করবে বলেও জানান তিনি।

ডিবি প্রধান আরও বলেন, দোহার, নবাবগঞ্জ ও নোয়াখালীতে মোটরসাইকেলের কাগজপত্র চেক করা হলে কম সংখ্যক মোটরসাইকেলের সঠিক কাগজপত্র পাওয়া যাবে। এসব চোরাই মোটরসাইকেলের অধিকাংশেরই কাগজ নেই। চোরাই মোটরসাইকেল যার কাছ থেকে পাওয়া যাবে সেই চোর হবে এবং তাকে গ্রেপ্তার করা হবে।

পুরাতন মোটরসাইকেল কেনার আগে অবশ্যই কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করে কেনার পরামরশ দেন ডিবির এ কর্মকর্তা।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন