শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২৫ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

আত্মরক্ষায় কারাতে

মো. আলতাফ হোসেন | প্রকাশের সময় : ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

বিভিন্ন ক্রীড়া ডিসিপ্লিনের মধ্যে কারাতে একটি জনপ্রিয় খেলা। কারাতে খেলায় নিয়মিত অংশ নিলে একজন খেলোয়াড়ের মনের বিষন্নতা ও অবসাদ কেটে যায়। এছাড়াও এ খেলাটি নিয়মিত অনুশীলন করলে একজন কারাতেকা সৎ, সাহসী, আত্মপ্রত্যয়ী, পরিশ্রমী ও অধ্যবসায়ী হয়ে ওঠেন। একজন মানুষের সুন্দর চরিত্র গঠনে সহায়ক ভূমিকা পালন করে এ খেলা। সেই সঙ্গে যারা এ খেলায় নিয়মিত অংশ নেন তারা নৈতিক অবক্ষয় থেকে নিজেকে মুক্ত রাখতে পারেন। প্রিয় পাঠক/পাঠিকা ‘আত্মরক্ষায় কারাতে’ ধারাবাহিক প্রতিবেদনের ২১তম পর্বে আজ আমরা আলোচনা করবো ‘না’ কু-কু ইভেন্ট নিয়ে।

‘না’ কু-কু...
‘না’ কু-কু প্রশিক্ষণের শুরুতে অন্যান্য দিনের মতো ওয়ার্মআপ বা ব্যায়াম করে নিতে হবে। ঠিক আগের মতোই সালাম বা বো করে কিবাডাসী পজিশনে শিক্ষার্থীকে অবস্থান নিয়ে ‘না’ কু-কু প্রশিক্ষণ শুরু করতে হবে। নতুন লেসন শুরু করার আগে পূর্বের লেসনগুলো করে নিলে ভালো হয়। ‘না’ কু-কু করার জন্য প্রশিক্ষণার্থীকে প্রথমে কিবাডাসী থেকে ডান পা বাম পায়ে স্পর্শ করে সোজা পেছন বরাবরে নিয়ে যেতে হবে। বাম পা থাকবে হাটু ভাঙ্গা অবস্থায় ও বাম হাতটি থাকবে বাম হাঁটুর উপরে একটু বাকা বøক অবস্থায় এবং ডান হাত থাকবে ডান কোমড়ে। পজিশনে যাওয়ার সময় অবশ্যই শিক্ষার্থীকে হোইস শব্দের মাধ্যমে যেতে হবে। এখন ডান পা সোজা এক স্টেপ সামনের দিকে যাবে, একই সঙ্গে ডান হাতের শাহাদত ও মধ্যমা আঙ্গুল দিয়ে সজোরে মারতে হবে এবং মারার সময় ডান হাতটি থাকবে মুষ্টিবদ্ধ অবস্থায় শুধু আঙ্গুল দুটো খোলা থাকবে। পক্ষান্তরে বাম হাতটি থাকবে মুষ্টিবদ্ধ অবস্থায় বাম কোমড়ে। এরপর দ্বিতীয় স্টেপে ডান হাতটি চলে যাবে ডান কোমড়ে, একই সঙ্গে বাম হাতের শাহাদত ও মধ্যমা আঙ্গুল দিয়ে সজোরে মারতে হবে এবং মারার সময় বাম হাতটি থাকবে মুষ্টিবদ্ধ অবস্থায় শুধু আঙ্গুল দুটো খোলা থাকবে। বাম পা থাকবে হাটু ভাঙ্গা অবস্থায় এবং ডান পা থাকবে বাম হাটুর বরারব পেছনে। এবার তৃতীয় স্টেপে ডান কোমড়ে থাকা ডান হাত দিয়ে এক স্টেপ সামনে গিয়ে অর্থাৎ তৃতীয় স্টেপে সজোরে ডান হাতের শাহাদত ও মধ্যমা এ দুটি আঙ্গুল দিয়ে মারতে হবে।
মারার সময় আঙ্গুল দুটো থাকবে খোলা এবং বাকি আঙ্গুলগুলো মুষ্টিবদ্ধ অবস্থায় থাকবে এবং বাম হাত থাকবে বাম কোমড়ে আর ডান পা থাকবে হাটু ভাঙ্গা অবস্থায় এবং বাম পা হাটু ভাঙ্গা ডান পায়ের বরাবর পেছনে থাকবে। এবার বাম দিকে ঘুরতে হবে। বাম দিকে ঘুরার সময় হাত দুটি ক্রস থাকবে। এসময় বাম হাটু ভাঙ্গা অবস্থায় থাকবে আর বাম হাটুর বরারব পেছনে ডান পা সোজা অবস্থায় থাকবে এবং বাম হাতটি বাম হাটুর উপর বøক অবস্থায় থাকবে এবং ডান হাত থাকবে ডান কোমড়ে মুষ্টিবদ্ধ অবস্থায়। এবার ডান পা এক স্টেপ সামনে যেয়ে হাটু ভাঙ্গা অবস্থায় থাকবে আর ডান হাতে শাহাদত ও মধ্যমা আঙ্গুল দিয়ে সজোরে মারতে হবে। মারার সময় অন্যান্য আঙ্গুল গুলো মুষ্টিবদ্ধ অবস্থায় থাকবে। এরপর ডান দিকে ঘুরতে হবে। ঘুরার সময় ডান হাত বাম হাতের সাথে ক্রস করে হাটু ভাঙ্গা ডান পায়ের উপরে থাকবে বøক অবস্থায় থাকবে সেই সঙ্গে বাম পা থাকবে হাটু ভাঙ্গা ডান পায়ের বরারব পেছনে আর বাম হাতটি থাকবে বাম কোমড়ে মুষ্টিবদ্ধ অবস্থায়। এবার বাম পায়ে এক স্টেপ সামনে যেতে হবে এবং একই সঙ্গে বাম হাতে সজোরে মারতে হবে শাহাদত ও মধ্যমা আঙ্গুল দিয়ে এবং অন্যান্য আঙ্গুলগুলো মুষ্টিবদ্ধ অবস্থায় থাকবে। এবং ডান হাত থাকবে ডান কোমড়ে মুষ্টিবদ্ধ অবস্থায় আর বাম পাটি থাকবে হাটু ভাঙ্গা অবস্থায় এবং ডান পাটি থাকবে হাটু ভাঙা বাম পায়ের বরারব পেছনে। বাম পা দিয়ে ডান পায়ের সঙ্গে স্পর্শ করে বাম দিকে ঘুরতে হবে ঘুরার সময় বাম হাত ডান হাতের সাথে ক্রস করে বাম হাত চলে যাবে হাটু ভাঙা বাম পায়ের উপরে এবং ডান হাত চলে যাবে ডান কোমড়ে, এসময় ডান পাটি থাকবে হাটু ভাঙা বাম পায়ের বরারব পেছনে। আর বাম হাতটি থাকবে বাম হাটুর উপর বøক অবস্থায়।
এবার ঠিক প্রথমে যেভাবে শুরু করার হয়েছিল তিন স্টেপের মাধ্যমে একই কায়দায় আবার উল্টো দিকে তিন স্টেপ সামনে যেতে হবে এবং একই রকম ভাবে এবার ডানে এক স্টেপ ও বামে এক স্টেপ ঘুরে ‘না’ কু-কু মারতে হবে। হাতের ও পায়ের পজিশন আর্টফুল অবস্থায় থাকবে এবং যেখান থেকে শুরু হয়েছিল তিন স্টেপ সামনে এবং এক স্টেপ করে বামে ডানে ঘুরে আবার তিন স্টেপ উল্টা দিকে যেতে হবে। ঠিক একইভাবে ডানে ও বামে এক স্টেপ এগিয়ে ‘না’ কু-কু মারতে হবে। অর্থাৎ কিবাডাসী থেকে ঠিক যেভাবে শুরু করা হয়েছিল ‘না’ কু-কু আবার কিবাডাসী পজিশনে একই স্থানে এসে শেষ হবে।
লেখক: সাবেক জাতীয় ক্রীড়াবিদ, কারাতে কোচ ও চেয়ারম্যান, গ্রীন ক্লাব মানিকগঞ্জ

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন