ঢাকা রোববার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২০, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ২০ রবিউস সানি ১৪৪২ হিজরী

ইসলামী বিশ্ব

পাকিস্তানে আইনমন্ত্রীর পদত্যাগ : অবস্থান ধর্মঘট প্রত্যাহার

ইসলামপন্থীদের বিক্ষোভের মুখে নমনীয় সরকার

ইনকিলাব ডেস্ক: | প্রকাশের সময় : ২৮ নভেম্বর, ২০১৭, ১২:০০ এএম

ইসলামপন্থীদের পদত্যাগের দাবি ও বিক্ষোভের মুখে পদত্যাগ করেছেন পাকিস্তানের আইনমন্ত্রী জাহিদ হামিদ। রবিবার রাতে তিনি পদত্যাগ করেন বলে সোমবার দেশটির রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন পিটিভি জানিয়েছে। ধর্ম সংক্রান্ত একটি বিলকে কেন্দ্র করে দীর্ঘ অবস্থান ধর্মঘট এবং বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে পুলিশের রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের পর তিনি পদত্যাগ করলেন। তার পদত্যাগের পর বিক্ষোভকারীরা কর্মসূচি প্রত্যাহার করেছে। পদত্যাগী মন্ত্রীর উদ্ধৃতি দিয়ে পিটিভি জানায়, ‘দেশে শান্তি ফিরিয়ে আনতে আমি পদত্যাগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ তবে প্রধানমন্ত্রী শহিদ খাকান আব্বাসী আইনমন্ত্রীর পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেছেন কিনা তা জানা যায়নি।
এদিকে তার পদত্যাগের পর তিন সপ্তাহ ধরে চলা এই অবস্থান ধর্মঘটের অবসান টানতে সরকার ও বিক্ষোভকারীরা একটি চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছে।
জিও টিভি জানিয়েছে, আন্দোলনকারীদের সঙ্গে সরকারের সমঝোতা হওয়ার বিক্ষোভ প্রত্যাহার করা হয়েছে। ওই ধর্মঘটের কারণে পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদ ও এর পাশের নগরী রাওয়ালপিন্ডিতে বড় ধরনের যানজট সৃষ্টি হয়। পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে ছয়জন নিহত ও দুই শতাধিক আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।
উল্লেখ্য, স¤প্রতি পাকিস্তানের নির্বাচনি আইনে একটি সংশোধন করা হয়। তার পরেই আইনমন্ত্রীর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ ফেটে পড়ে জনতা। কট্টরপন্থী বিক্ষোভকারীদের দাবি, ওই আইন ইসলাম বিরোধী। সামনেই পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচন। তার আগে আইনমন্ত্রীর বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমে পড়ে দেশের অধিকাংশ ধর্মীয় সংগঠন। তাদের দাবি, নির্বাচনী আইন সংশোধন করে মহানবী সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের নামের আগে থেকে খাতেমুন নাবীয়্যীন শব্দদ্বয় অপসারণ করে অপমান করা হয়েছে। এ নিয়ে গত ৬ নভেম্বর থেকে রাজধানী ইসলামাবাদসহ দেশের একাধিক শহরে বিক্ষোভ ফেটে পড়ে জনতা। রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ বহু রাস্তা অবরোধ করে তারা জনজীবন অচল করে দেয়। পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আবার এই বিক্ষোভে ভারতের হাত রয়েছে বলেও মন্তব্য করেন। শেষ পর্যন্ত আধাসেনা নামিয়েও সেই বিক্ষোভ দমন করা যায়নি। ফলে, উপায় নেই দেখে বিক্ষোভকারীদের দাবিই মেনে নিতে বাধ্য হল সরকার বলে মনে করছে কূটনৈতিক মহল। সূত্র : ওয়েবসাইট।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন