ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০২ কার্তিক ১৪২৬, ১৭ সফর ১৪৪১ হিজরী

সারা বাংলার খবর

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ

নোয়াখালী ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৪ মার্চ, ২০১৯, ৭:৫২ পিএম

সুবর্ণচর উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের উত্তর চরক্লার্ক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু শাহাদাত হোসেন স্বপন (৫০)এর বিরুদ্ধে এক ছাত্রী (১১) কে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। ঘটনায় ভিকটিমের বাবা বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার বিবরণ সূত্রে জানা গেছে, পঞ্চম শ্রেণির ওই ছাত্রী উত্তর চরক্লার্ক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ে। ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু শাহাদাত হোসেন স্বপন বিদ্যালয়ের পাশের একটি কক্ষে বসবাস করেন। কর্মরত অবস্থায় বিভিন্ন সময় সে বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের দিয়ে রান্নাসহ তার নিজস্ব কাজ করাতো। এর সূত্র ধরে গত ৫মার্চ ভিকটিমকে বলে, পরেরদিন (৬মার্চ) বিশেষ কাজ আছে, সে যেন তাড়াতাড়ি বিদ্যালয়ে আসে। শিক্ষকের কথামতো সকাল ৮টা ৩৫মিনিটে বিদ্যালয়ে আসে ভিকটিম। পরে স্বপন তার শয়ন কক্ষে নিয়ে ভিকটিমকে কোলে বসিয়ে তার শরীরের স্পর্শকাতর স্থানে হাত দিয়ে তাকে বিছানায় ফেলে ধর্ষণের চেষ্টা করলে সে শিক্ষকের হাত থেকে ছুটে বাড়ীতে চলে যায়। এরপর থেকে সে বাড়ীতে চুপচাপ থাকতো। বিদ্যালয়ে যাওয়ার কথা বললে কান্না করতো। পরে জিজ্ঞাসাবাদে সে পরিবারের লোকজনকে ঘটনা খুলে বলে। ঘটনায় আত্মীয় স্বজনের সাথে পরামর্শ ও নিরুপায় হয়ে তারা মামলা করে।

অভিযোগ রয়েছে, প্রধান শিক্ষক স্বপন ছাত্রীদের দিয়ে বাহির হতে খাবার পানি সংগ্রহ করতো। পরে সে ছাত্রীদের জড়িয়ে ধরে শরীরের স্পর্শকাতর জায়গায় হাত দিত। এইভাবে প্রতিনিয়ত বিদ্যালয়ের বড় ছাত্রীদেরকে যৌন হয়রানি করত সে।

এবিষয়ে কথা বলতে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষকের মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে মুঠোফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।

সুবর্ণচর উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিম বলেন, প্রধান শিক্ষক শাহদাত হোসেন স্বপনের বিরুদ্ধে অভিযোগটি তিনি শুনেছেন। বিষয়টি সরেজমিনে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা আবদুর রবকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।

চরজব্বার থানার ওসি শাহেদ উদ্দিন জানান, ঘটনায় শনিবার রাতে ভিকটিমের বাবা বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন। পলাতক থাকলেও অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক স্বপনকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Reza ৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ২:২৮ পিএম says : 0
SUBOARNO CHAR IS A PLACE OF HYENA WHERE WOMEN,CHILDREN ARE NOT AT ALL SAVE.
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন