ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট ২০২০, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ২২ যিলহজ ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

ঠুনকো অযুহাতে পেছাল বিপিএল!

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৩০ জানুয়ারি, ২০২০, ১২:০৫ এএম

স্পোর্টস রিপোর্টার : ঘরোয়া ফুটবলের মর্যাদাপূর্ণ আসর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ (বিপিএল) মাঠে গড়ানোর কথা ছিল আজ থেকে। কিন্তু তা আর হচ্ছে না। শুরুর আগেই একদফা পেছাল বিপিএলের নতুন মৌসুমের খেলা! কারণ হিসেবে বাফুফে ধোঁয়া তুলেছে আসন্ন ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচন ও ঢাকা আবাহনী লিমিটেডের এএফসি কাপের প্লে অফ ম্যাচ খেলার। এ দু’টি কারণেই দু’সপ্তাহ পিছিয়ে দিয়েছে বিপিএল বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)। নতুন দিনক্ষণ অনুযায়ী আগামী ১৩ ফেব্রæয়ারি থেকে শুরু হবে লিগ। গতকাল বাফুফে ভবনে অনুষ্ঠিত পেশাদার লিগ কমিটির সভায় এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

এমনিতেই বিপিএলে ‘সেশনজট’ লেগেই আছে। ৬ মাসের লিগ প্রতি বছরই শেষ হতে সময় নেয় ৮/৯ মাস। লিগের মাঝপথে নানা অজুহাতে খেলা বন্ধ রাখে বাফুফে। এবার আসর মাঠে গড়ানোর আগেই ঠুনকো অযুহাতে লিগ পেছানো হয়েছে বলে মনে করছেন ফুটবলবোদ্ধারা। এ প্রসঙ্গে বাফুফের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও লিগ কমিটির চেয়ারম্যান আবদুস সালাম মুর্শেদী বলেন, ‘১ ফেব্রæয়ারি ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচন। নির্বাচনের সময় লিগ আয়োজনের প্রস্তুতি নেয়া কঠিন। এছাড়া ৫ ফেব্রæয়ারি আবাহনী লিমিটেড এএফসি কাপের প্লে অফ ম্যাচ খেলবে ঢাকায়। এএফসির নিয়ম অনুযায়ী ম্যাচের তিন দিন আগে ভেন্যু ম্যাচ কমিশনারকে বুঝিয়ে দিতে হবে। ক্লাবগুলোর সঙ্গে আলোচনা ও সামগ্রিক বিষয় বিশ্লেষণ করেই আমরা ১৩ ফেব্রæয়ারি লিগ শুরুর সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

গত মৌসুমে এক ক্লাবের পক্ষে পাঁচজন বিদেশি রেজিস্ট্রেশন করতে পেরেছিল। যাদের মধ্যে চার জন করে ম্যাচ খেলার সুযোগ পেয়েছেন। এবার ক্লাবগুলোর দাবির প্রেক্ষিতে কিছুটা পরিবর্তন এসেছে। পাঁচ জন বিদেশির সবাই খেলতে পারবেন। তবে প্রথম একাদশে চারজনই খেলবেন। পঞ্চম বিদেশি বদলি হিসেবে নামবেন আরেক বিদেশির জায়গায়। আর তিনি যদি এশিয়ান হন তাহলে তাকে এশিয়ান খেলোয়াড়ের বদলি হিসেবেই নামাতে হবে। এই সিদ্ধান্তে হতবাক হয়েছেন অনেকেই। কারণ সম্প্রতি জাতীয় দলের ব্রিটিশ কোচ জেমি ডে ঘরোয়া ফুটবলে বিদেশি ফুটবলার কোটা আধিক্য নিয়ে সমালোচনা করেছেন। অথচ বাফুফে গেল উল্টোপথে। লিগ কমিটির চেয়ারম্যান অবশ্য কোচের সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করে বলেন, ‘স্থানীয় ফুটবলারদের প্রতিদ্ব›িদ্বতা ও যোগ্যতার ভিত্তিতেই জায়গা করে নিতে হবে। ঘরোয়া পর্যায়ে নিজের জায়গা না করতে পারলে আন্তর্জাতিক ম্যাচে কিভাবে আরেকজন বিদেশির বিরুদ্ধে খেলবে স্থানীয়রা?’

এদিকে ঐতিহ্যবাহী ঢাকা মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব কুমিল্লাকে নিজেদের হোম ভেন্যু হিসেবে বেছে নেয়ায় বেড়েছে বিপিএলের ভেন্যু। গত আসরের নোয়াখালী ভেন্যুর দুই স্বাগতিক নোফেল স্পোর্টিং ক্লাব ও টিম বিজেএমসি অবনমনে যাওয়ায় এবার এই ভেন্যুটি বাতিল হয়েছে। তবে ফের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামকে নিজেদের ভেন্যু করেছে চট্টগ্রাম আবাহনী। লিগের সর্বশেষ আসরের মতো এবারো মুক্তিযোদ্ধার ভেন্যু গোপালগঞ্জের শেখ ফজলুল হক মনি স্টেডিয়াম, সাইফ স্পোর্টিং ও আরামবাগের ময়মনসিংহের শেখ ফজলুল হক মনি স্টেডিয়াম, বসুন্ধরা কিংসের নীলফামারীর শেখ কামাল স্টেডিয়াম, ও শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্রের সিলেট জেলা স্টেডিয়াম হোম ভেন্যু হিসেবে থাকছে।

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন