মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ১০ কার্তিক ১৪২৮, ১৮ রবিউল আউয়াল সফর ১৪৪৩ হিজরী

স্বাস্থ্য

আইবিএস চিকিৎসায় হোমিও

| প্রকাশের সময় : ৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ১২:০৭ এএম

কথায় বলে পেট ঠিকতো দুনিয়া ঠিক, যার পেট আছে তার সমস্যাও আছে, যার পেটে সমস্যা তার শরীরে সমস্যা লেগেই থাকবে। চোখের সামনে সুন্দর সুন্দর সু-স্বাধু খাবার থাকলেও পেটের সমস্যার কারণে জিহবা সামলে নিতে হয়। আর মনের ভিতরের আপসোস চাপা রেখে না খেয়ে হাত ধৌত করে উঠতে হয়। পেটের সমস্যাগ্রস্থ রোগীর ভোগান্তির অন্ত নেই। আই.বি.এস অনেকের নিকট একটি আতংকের নাম।


আই.বি.এস (ইরেটেবল বাওয়েল সিন্ড্রোম)-এর রোগীরা দীর্ঘ মেয়াদী পেটের সমস্যা, অর্থাৎ বদহজম, আমাশা চির জীবনের সঙ্গী হয়ে যায়। পেটে হঠাৎ করে কামড় দেবে এবং সাথে সাথে টয়লেটে যেতে হবে।

এমনও ব্যক্তি আছে যার দিনে চার-পাঁচ বার টয়লেটে যেতে হয়। ভোর বেলা একবার, ঘুম থেকে উঠার পর একবার, সকালে নাস্তা খাওয়ার পর একবার, বিকেলে ও রাতে একবার করে, অনেক সময় খাবার খাওয়ার পরপরই টয়লেটে যেতে হয়। সারা দিন পেট ডাকে ও পেটের মধ্যে ভুটভাট করে। পেটের অশান্তি বড়ই অশান্তি। যার সমস্যা হয় সে জানে পেটের জ্বালা কি জ্বালা।

ইরেটেবল বাওয়েল সিন্ড্রোম (আ.বি.এস)ঃ এই রোগ নির্ণয়ের জন্য সাধারণত কোনো পরিক্ষার প্রয়োজন হয় না। রোগী যে সমস্যা বা রোগের বর্ণনা দেয়। বেশির ভাগ ক্ষেত্রে তাতেই রোগ নির্ণয় হয়ে যায়। রোগীর মুখের কথায় যাবতীয় লক্ষণ পাওয়া যায়।

আইবিএসের উপসর্গ: বদ হজম, পেটের মধ্যে ভুটভাট শব্দ করে, পেটের মধ্যে কোক কোক করে ডাকা বা আহারের পর পেটের অশান্তি বৃদ্ধি, পায়খানার সাথে বিজল যায়, পেটে কামড় দিয়ে ব্যথা করে, পায়খানা সারার পরও মনে হয় যেন এখনো ভিতরে কি যেন আটকে আছে। পায়খানা করার পর কিছু সময়ের জন্য আরাম অনুভব হবে। মাঝে মধ্যে পায়খানা নরম হবে, আবার কিছু দিন কোষ্ঠকাঠিন্য হবে। বিষন্নতা ও উদ্বিগ্নতা এই রোগ বাড়িয়ে দিতে পারে। আই.বিএসের রোগীরা অনেকে নিজেদের সমস্যা নিজেরা চিহ্নত করতে পারে। কোন খাবার খেলে সমস্যা বাড়ে এবং কোনটাতে কমে তা রোগীরা অনুভাব করতে পারে।

নিষেধ : আইবিএসের রোগীদের আমরা চর্বি যুক্ত খাবার, তৈলাক্ত খাবার, আশযুক্ত খাবার, যব, গম, গমের তৈরি খাবার না খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকি, শাকসবজি, ফল, সালাদ ইত্যাদি নিষেধ। হোটেলের খাবার, দুধ ও দুধের তৈরি খাবার বন্ধ তবে ছানা খাওয়া যাবে। অতিরিক্ত মসলা যুক্ত খাবার ও গুরুপাক বর্জন করতে হবে।

পরামর্শ : নরম ভাত, হালকা ঝোলের তরকারি, কাঁচা-পাঁকা পেঁপে, কাঁচা-পাকা বেল খাবেন, গরম-গরম-টাটকা খাবার খেতে হবে। বাসি পঁচা খাবার খাওয়া যাবে না।

ইরেটেবল বাওয়েল সিমন্ড্রোম (আইবিএস)- হোমিও চিকিৎসা পদ্ধতি লক্ষণ ভিওিক সদৃস বিধান। এর এই রোগের হোমিওপ্যাথি মেডিকেল শাস্ত্রে অনেক পদের ওষুধ আবিষ্কার হয়েছে। অভিজ্ঞ চিকিৎসক ব্যতিত আইবিএস রোগের চিকিৎসায় সুফল পাওয়া অনেক কঠিন।

ডা. এস এম আব্দুল আজিজ
সেক্রেটারী: আইডিয়াল ডক্টর্স ফোরাম অব হোমিওপ্যাথি। মোবাইল ঃ ০১৭১০ ২৯৮ ২৮৭

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন