ঢাকা মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ৩০ চৈত্র ১৪২৭, ২৯ শাবান ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

বগুড়ায় পৌর নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি

বিশেষ সংবাদদাতা, বগুড়া ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৬:৫০ পিএম

বগুড়া পৌরসভা নির্বাচনের ঠিক ৩ দিন আগে অন্যতম মেয়র প্রার্থী আব্দুল মান্নান আকন্দের বিরুদ্ধে বগুড়ার স্পেশাল জজ আদালতের বিচারক এমরান হোসেন চৌধুরী গ্রেফতারী পরোয়ানা জারী করায় বগুড়া জুড়ে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

সাধারণভাবে ধারণা করা হচ্ছিল একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েও তিনি বগুড়ার বড় দুটি রাজনৈতিক দল আওয়ামীলীগ প্রার্থী ওবায়দুল হাসান ববি ও বিএনপি প্রার্থী রেজাউল করিম বাদশার জন্য চ্যালেঞ্জ হয়ে উঠেছিলেন। সাধারণ মানুষের মুখে সম্ভাব্য বিজয়ী হিসেবেও উচ্চারিত হচ্ছিল তার নাম ।

বৃহষ্পতিবার দুপুরের পর পরই বগুড়ার স্পেশাল জজ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক মান্নান আকন্দের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারীর পরপরই তার বিরোধি পক্ষের বিভিন্ন ফেসবুক আইডিতে তার ছবির সাথে আওয়ামীলীগ থেকে বহিষ্কৃত, কিংবা দুদকের মামলায় পলাতক ইত্যাদী বলে পোষ্ট ছড়ানো হয় ।

আদালতে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, বগুড়ার সোশ্যাল ইসলামী ব্যাংকের ( এসআইবিএলের ) ৩১ কোটি টাকা দুর্নীতির মামলায় বৃহস্পতিবার চার্জ গঠনের দিন ধার্য ছিল। নির্বাচনী ব্যস্ততার জন্য আব্দুল মান্নান আকন্দ নিজের আইনজীবীর মাধ্যমে আদালতে অনুপস্থিত থাকার জন্য আবেদন দিয়েছিলেন। কিন্তু বিজ্ঞ আদালত ওই আবেদন নামঞ্জুর করে তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারির নির্দেশ দেন। মোট ৩১ কোটি টাকা দুর্নীতির এই মামলায় আব্দুল মান্নানের বিরুদ্ধে ২৬ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ রয়েছে। এই মামলায় অভিযুক্ত অন্যরা হলেন ব্যাংকের বরখাস্ত হওয়া কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম, আতিকুল কবির, মাহবুবুর রহমান সহ ব্যাংকের গ্রাহক আকতার হোসেন. জহুরুল হক মোমিন, এনামুল হক, মাকসুদুল আলম খোকন ও ফেরদৌস আলম।

ঘটনা সম্পর্কে জানার জন্য আব্দুল মান্নান আকন্দের মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে পোন বন্ধ পাওয়া যায়। তবে তিনি নিজের ফেসবুক একাউন্টের লাইভে এসে চলন্ত গাড়ীর ভেতর থেকে দেওয়া ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন , তাঁকে নির্বাচন থেকে সরানোর জন্য যা কিছুই করা হোকনা কেন , তিনি জীবীত থাকলে নির্বাচন থেকে সরে যাবেননা । তিনি তার কর্মী সমর্থক ও ভোটারদের উদ্দেশ্যে বলেন, যা কিছুই ঘটুকনা কেন তিনি নির্বাচনে লড়বেন। তাই ভোটের দিন পর্যন্ত সবাই যেন নিজ নিজ দায়িত্ব পালন করেন এবং ভোট প্রদান করে বাসায় ফিওে তার জন্য দোওয়া করেন ।

এপ্রসঙ্গে জানতে চাইলে বগুড়ার সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মাহবুব আলম শাহ জানান, কোন প্রার্থীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়না হলেও তাকে গ্রেফতারে নির্বাচন কমিশনের অনুমতি লাগবে। এখন পর্যন্ত আব্দুল মান্নানের বিষয়ে পুলিশ প্রশাসনের কেউ তাকে গ্রেপতারের জন্য অনুমতি নিতে আসেননি।

উল্লেখ্য বগুড়ায় করোনাকালের শুরু থেকেই আব্দুল মান্নান আকন্দ নিয়মিত ভাবে বগুড়ার পৌরসভা এলাকার গরীব দুঃখি মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের চাল,ডাল,লবন ,তেল , কাপড় চোপড়, নগদ অর্থ ও রান্না করা খাবার বিতরণ করে ব্যাপকভাবে আলোচিত হয়েছেন । এছাড়াও তিনি এনজিওর কিস্তি আদায় ও প্রভাবশালী রাজনীতিবিদ, এনজিও কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নিয়মিত নেতিবাচক বক্তব্য উপস্থাপন করে তাদের বিরাগভাজন হয়েছেন ।

এছাড়া দলের সিদ্ধান্তের বাইরে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে পৌরনির্বাচনে মেয়র পদে ভোট করায় বগুড়া শহর আওয়ামীলীগের পক্ষ থেকে দেওয়া এক প্রেসরিলিজে তাকে দল থেকে বহিষ্কারের ঘোষনাও দেয়া হয় সম্প্রতি।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন