ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০৮ আষাঢ় ১৪২৮, ১০ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

মামুনুল হকের পক্ষে ফেসবুক স্ট্যাটাস দিয়ে ইমামতি হারালেন মুর্শিদুল

বগুড়া ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২০ এপ্রিল, ২০২১, ৮:০২ পিএম

বগুড়ার ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স জামে মসজিদের ইমাম মুর্শিদুল ইসলাম হেফাজত ইসলামের নেতা মুফতি মামুনুল হকের পক্ষে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়ার অপরাধে চাকুরী হারিয়েছেন। মসজিদ কমিটি তাকে বরখাস্ত করে তার নামে বরাদ্দ করা বাড়িও ছেড়ে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে বলে জানা গেছে।

বরখাস্তকৃত ইমাম মুর্শিদুল ইসলাম উপজেলার এলাঙ্গী ইউনিয়নের রাঙ্গামাটি গ্রামের গোলাম রহমানের ছেলে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ও মসজিদ কমিটির সভাপতি ডাঃ হাসানুল হাছিব স্বাক্ষরিত চাকুরী থেকে অব্যাহতি প্রদানের পত্রটি মঙ্গলবার ইমামের হাতে পৌঁছেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মুর্শিদুল ইসলাম প্রায় ১২বছর ধরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জামে মসজিদে ইমামতির চাকুরীর সুবাদে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কোয়ার্টারে পরিবার নিয়ে অবস্থান করতেন। বাংলাদেশ হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে নারী কেলেঙ্কারি নিয়ে ওই দিনই ইমাম মুর্শিদুল ইসলাম তাঁর নিজ নামীয় ফেসবুক পেজে মামুনুল হকের পক্ষে স্ট্যাটাস দেন। এ বিষয়টি মসজিদ পরিচালনা কমিটির লোকজন ও সরকারী দলের নেতাকর্মীদের নজরে আসে। পরে এ বিষয়টি নিয়ে উত্তেজনা দেখা দেওয়ায় পরিস্থিতি মোকাবেলায় ইমামকে সাময়িকভাবে চাকুরী থেকে বরখাস্ত করা হয়। পরবর্তীতে এ বিষয়টি নিয়ে ১৮ এপ্রিল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও), মসজিদ কমিটির সকল সদস্য, মুসল্লি ও সরকারি দলের স্থানীয় নেতাকর্মীরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বৈঠক করে সর্ব সম্মতিক্রমে ইমাম মুর্শিদুল ইসলামকে চাকুরিচ্যুত করা হয়েছে।

এ বিষয়ে মুর্শিদুল ইসলাম বলেন, হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে হেনস্তা করার দৃশ্য দেখে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছিলাম। সেই স্ট্যাটাসে সরকার বিরোধী কোন কথা ছিল না। পরবর্তীতে ভুল বুঝতে পেরে ফেসবুক থেকে সেই স্ট্যাটাস মুছে ফেলে মসজিদ কমিটির সদস্যদের নিকট ক্ষমা চেয়েছিলাম। কিন্তু তারা আমাকে ক্ষমা না করে চাকুরিচ্যুত করেছেন।

ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ হাসানুল হাছিব বলেন, মসজিদ কমিটির সদস্য, উপজেলা প্রশাসন ও সরকারি দলের নেতাকর্মীদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী মুর্শিদুল ইসলামকে চাকুরী থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। একই সাথে তাকে সরকারি বাসা ছেড়ে দেওয়ার তাগিদ দেওয়া হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন