সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৩ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

ব্যবসা বাণিজ্য

‘পাঠাও’ ও গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স’র যৌথ উদ্যোগে রাইড শেয়ারিং সার্ভিসে চালু হচ্ছে বীমা সুবিধা

অর্থনৈতিক রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ২১ অক্টোবর, ২০২১, ৬:৩৭ পিএম

দেশের বৃহত্তম রাইড শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম ‘পাঠাও’ তার ইউজার, ‘রাইডার’ ও ‘ক্যাপ্টেনদের’ জন্য সড়কে নিরাপদ যাতায়াত সেবা নিশ্চিত করতে ‘গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স’ এর সঙ্গে অংশীদারিত্বের মাধ্যমে বীমা কর্মসূচি চালু করেছে। আগামীকাল শুক্রবার (২২ অক্টোবর) ‘জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবসে’ এই বীমা সেবার যাত্রা শুরু হবে।

গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স এর পলিসি অনুযায়ী, পাঠাও অ্যাপের রাইড শেয়ারিং সার্ভিস ব্যবহার করে কোনো ইউজার, ‘রাইডার’ ও ‘ক্যাপ্টেন’ দুর্ঘটনার শিকার হলে তারা বীমা সুবিধা পাবেন। এই বীমা কর্মসূচির মধ্যে অন্তর্ভুক্ত রয়েছে, প্রাথমিক চিকিৎসা খরচ (হাসপাতালে ভর্তি না হলেও), হাসপাতালের ব্যয়, স্থায়ী অক্ষমতায় আর্থিক সাহায্য ও দুর্ঘটনাজনিত মৃত্যুর ক্ষতিপূরণ হিসেবে সর্বোচ্চ ১ লাখ টাকা প্রদান।

নিরাপদ রাইড শেয়ারিং নিশ্চিত করতে পাঠাও ইতিমধ্যে বিভিন্ন সতর্কতামূলক ব্যবস্থা, যেমন- জিপিএস ট্র্যাকিং, চালক ও যাত্রীদের প্রয়োজনীয় তথ্য জমা রাখা, ভিওআইপি কল, জাতীয় জরুরি সেবায় সরাসরি যোগাযোগের জন্য ইমার্জেন্সি বাটন সুবিধা, অ্যাপে ২৪ ঘণ্টা ইনসিডেন্ট রেসপন্স টিমের (আইআরটি) সাহায্য পাওয়ার সুযোগ, রাইড শেয়ারিং চলাকালীন ‘ট্রাস্টেড কন্টাক্ট’ অর্থ্যাৎ পরিবার, বন্ধু বা বিশ্বস্ত কারো সাথে রাইডের বিস্তারিত শেয়ারের অভিনব পদ্ধতি ইত্যাদি চালু করেছে, এতে যাত্রী ও চালকরা সবসময় নিরাপদ ও সংযুক্ত থাকছেন। এবার প্ল্যাটফর্মের ইউজারদের জন্য কোনো একটি ‘ট্রিপ’ এর শুরু থেকে শেষ হওয়া পর্যন্ত সময়ের বীমা সুবিধাও নিয়ে এলো ‘পাঠাও। তবে অফলাইন ট্রিপে (পাঠাও অ্যাপ ব্যতীত রাইড শেয়ারিং) যাতায়াতকালীন দুর্ঘটনা ঘটলে চালক ও যাত্রীরা এই বীমা সেবার সুবিধা পাবেন না।

এ প্রসঙ্গে পাঠাও প্রেসিডেন্ট ফাহিম আহমেদ বলেন, এই ঘোষণা প্ল্যাটফর্মের ইউজার, ‘রাইডার’ ও ‘ক্যাপ্টেনদের’ মানসিক প্রশান্তি এবং তাদের আর্থিক সহযোগিতায় পাঠাও এর পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি-ই পুনর্ব্যক্ত করছে। দিনে দিনে রাইড শেয়ারিং এর জনপ্রিয়তা ও ইউজারদের কাছে এই সেবার গ্রহণযোগ্যতা বাড়তে থাকায়, বাংলাদেশে যাত্রা শুরু করা এই ইন্স্যুরেন্স পলিসি ইন্ডাস্ট্রিতে অন্যদের জন্যও অনন্য দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।

গ্রিন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর অ্যান্ড সিইও ফারজানা চৌধুরী বলেন, রাইড শেয়ারকালীন পাঠাওয়ের ইউজার, ‘রাইডার’ ও ‘ক্যাপ্টেনদের’ দুর্ঘটনাজনিত প্রাথমিক চিকিৎসা খরচ (হাসপাতালে ভর্তি না হলেও), হাসপাতালের ব্যয়, স্থায়ী অক্ষমতা, কিংবা মৃত্যুর ফলে তাদের জন্য এই বীমা সেবা ঘোষণা করতে পেরে আমরা আনন্দিত। ভিন্ন ভিন্ন ভোক্তাদের কথা মাথায় রেখে ইন্স্যুরেন্স সুল্যশন প্রদানের ক্ষেত্রে ঝুঁকি নির্ণয়ে গ্রিন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স এর পারদর্শিতা ও দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতা এই বীমা সেবার সল্যুশন তৈরিতে আমাদের সাহায্য করেছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
মোঃরফিকুল ইসলাম রনি ২১ অক্টোবর, ২০২১, ৭:১২ পিএম says : 0
এতো দিন পর কিছু অসহায় মানুষের কথা ভাবলেন,কিন্তু ইন্সুইরেেন্সর প্রতি মানুষের তো আস্থা নেই।দিলেন যখন টাকার পরিমাণ টা ৫০০০০০/(পাঁচ লাখ) করেন। পাঠাও গ্রীন ডেল্টা কে ধন্যবাদ।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন