সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ২১ শাওয়াল ১৪৪৩ হিজরী

জাতীয় সংবাদ

পৃথিবীতে আসার পরই কপালে ৯ সেলাই

ফরিদপুরে প্রশিক্ষণবিহীন নার্সের কীর্তি

আনোয়ার জাহিদ, ফরিদপুর থেকে | প্রকাশের সময় : ১৬ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০১ এএম

ফরিদপুরে আল-মদিনা নামে একটি প্রাইভেট হাসপাতালে রুপা আক্তার নামে এক প্রসূতি নারীকে প্রশিক্ষণবিহীন এক নার্স সিজার করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এসময় নবজাতকের মাথাসহ শরীরের কয়েক জায়গায় কেটে ফেলে সে। ওই প্রসূতি মায়ের বাড়ি রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দ এলাকায়।

গতকাল শনিবার সকালে জেলা শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত হাসপাতালটিতে গর্ভবতী মায়ের সিজার করার সময় নবজাতকের মাথার কয়েক জায়গায় কেটে ফেলে ওই নার্স। নার্সের নাম চায়না বেগম। পরে সদ্য ভ‚মিষ্ট নবজাতকের মাথায় ৯টি সেলাই দেওয়া হয়েছে। তবে নবজাতকের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা যায়। পরে নবজাতকসহ মাকে উদ্ধার করে ফরিদপুরের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

অভিযোগ রয়েছে, কোনো প্রাতিষ্ঠানিক প্রশিক্ষণ না থাকলেও এর আগে ৫০ থেকে ১০০ গর্ভবতী নারীর সিজার ও ডেলিভারি করান ওই নার্স। তবে হাসপাতালটির নার্স চায়না বেগম অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, সে একটি প্রতিষ্ঠান থেকে ছয় মাসের প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। তবে প্রশিক্ষণ নেওয়ার কথা বললেও স্থানীয় প্রশাসন ও গণমাধ্যম কর্মীদের কাছে কোনো প্রশিক্ষণের সনদ দেখাতে পারেননি। একজন নার্স কোনো প্রসূতি মায়ের সিজার করতে পারেন কি না এ নিয়ে ফরিদপুরে আলোচনার ঝড় বইছে।
ভুক্তভোগী পরিবারের অভিযোগ, স্বাভাবিক ডেলিভারি হতে পারতো। তবে ওটি চার্জ পাওয়ার লোভে গর্ভবতী মাকে সিজার করার জন্য তড়িঘড়ি করে ওই নার্স। কিন্তু ওটি চার্জ হাতছাড়া হওয়ার লোভে সে দ্রæত ওটিতে ঢুকায় সিজার করার জন্য। কিন্তু আমরা জানতাম ডাক্তার সিজার করবে। তবে ওই নার্স যে সিজার করবে তা জানা ছিলো না। আমরা ওই নার্স ও হাসপাতাল মালিকের বিচার চাই।

পরে খবর পেয়ে প্রাইভেট হাসপাতালটি পরিদর্শন করেন ফরিদপুরের সিভিল সার্জন ডা. সিদ্দিকুর রহমান, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মাসুদুল আলম, জেলা স্বাচিবের সভাপতি ও জেলা আওয়ামী লীগের স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. আব্দুল জলিল।

এ ব্যাপারে সিভিল সার্জন ডা. সিদ্দিকুর রহমান বলেন, এ হাসপাতালে এ রকম অনিয়ম হয় তা জানা ছিলো না। এ ব্যাপারে স্বাস্থ্য বিভাগের পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে। এ ঘটনার পর ওই হাসপাতালটির মালিক পলাশ মোল্যা ও প্রসূতি মাকে সিজার করার অভিযোগ ওঠা চায়না বেগম নামে ওই নার্সকে আটক করে পুলিশ।
কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমএ জলিল বলেন, খবর পেয়ে হাসপাতালটির মালিক পলাশ ও নার্স চায়নাকে আটক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পুলিশ কাজ করছে।

প্রসঙ্গত, ফরিদপুরে সিভিল সার্জন অফিসের ছত্রচ্ছায়ায় ব্যাঙের ছাতার মত গড়ে উঠছে শাতাধিক বেসরকারি হাসপাতাল। কেউ মানছে না সরকারি কোন নিয়ম কানুন। সিভিল সার্জনের প্রধান অফিস সহকারী মো. জালাল বলেন, মাঝে মাঝেই বিভিন্ন ক্লিনিক ও হাসপাতালের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিলেও বেশরম কিছু হাসপাতাল মালিক আছেন তারা কিছুই মনে করেন না।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (12)
মোহাম্মদ দলিলুর রহমান ১৬ জানুয়ারি, ২০২২, ২:১০ এএম says : 0
উপযুক্ত শাস্তি দিতে অনুরোধ করা হইল,এবং ক্ষতি পূরণ অবশ্যই দিতে হবে,নয় সেলাইয়ের নয় লক্ষ্য টাকা দিতে হবে অবশ্যই।
Total Reply(0)
মোহাম্মদ খান ১৬ জানুয়ারি, ২০২২, ৩:৫৫ এএম says : 0
খুব দুঃখ জনক. একজনের ভুল চিকিৎসার বলি এই শিশু টা
Total Reply(0)
M H Hossain NY ১৬ জানুয়ারি, ২০২২, ৩:৫৬ এএম says : 0
খুব মর্মান্তিক.. অনেক কষ্ট লাগতেছে!!
Total Reply(0)
Shahinur Rahman ১৬ জানুয়ারি, ২০২২, ৩:৫৬ এএম says : 0
এখন প্রশিক্ষণ লাগে না শুধু জয় বাংলা বললেই চলে
Total Reply(0)
MD Oli MD Oli ১৬ জানুয়ারি, ২০২২, ৩:৫৬ এএম says : 0
বারবার একই ঘটনা অথচ বিচার নেই,ভুল চিকিৎসার নামে মারা হচ্ছে রুগি কোন বিচার নেই,বড় অভাগা এদেশের জনগন
Total Reply(0)
Golam Sarwar Rajon ১৬ জানুয়ারি, ২০২২, ৩:৫৬ এএম says : 0
আল্লাহ সহায়।
Total Reply(0)
Md Kobir ১৬ জানুয়ারি, ২০২২, ৪:১৭ এএম says : 0
এই হলো আমাদের অভিজ্ঞ ডাক্তার ও নার্স। দুঃখজনক বিষয় শিশু কপালে ৯ সেলাই
Total Reply(0)
Mahamud Al Hasan ১৬ জানুয়ারি, ২০২২, ৩:৫৮ পিএম says : 0
অনতিবিলম্বে সারাদেশ থেকে এসব ক্লিনিক ও হাসপাতাল বন্ধ করা হোক
Total Reply(0)
টুটুল ১৬ জানুয়ারি, ২০২২, ৩:৫৯ পিএম says : 0
এই ধরনের চিকিৎসা কেন্দ্র গুলো মানুষ মারার প্রতিষ্ঠান!
Total Reply(0)
গোলাম মোস্তফা ১৬ জানুয়ারি, ২০২২, ৩:৫৯ পিএম says : 0
ওদের মৃত্যুদন্ড দেয়া হোক
Total Reply(0)
ইমরান ১৮ জানুয়ারি, ২০২২, ৮:৫৫ এএম says : 0
শিশুটি ভালো হওয়ার আগ প্রযন্ত হাসপাতালকে দায়িত্ব নিতে হবে। এবং জরিমানা দিতে হবে।
Total Reply(0)
jack ali ১৮ জানুয়ারি, ২০২২, ১২:০৩ পিএম says : 0
If our country ruled by Quran then no body dare to commit crime.
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন