বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯, ০৬ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

খেলাধুলা

মোহামেডানকে হারিয়ে শীর্ষস্থান ধরে রাখল বসুন্ধরা

স্পোর্টস রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৫ মার্চ, ২০২২, ৭:৩৯ পিএম

ঘরোয়া ফুটবলের সর্বোচ্চ আসর বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) নিজেদের সপ্তম ম্যাচে ঐতিহ্যবাহী মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাবকে হারিয়ে তালিকার শীর্ষস্থান ধরে রাখল বর্তমান চ্যাম্পিয়ন বসুন্ধরা কিংস। শনিবার বিকালে বসুন্ধরা কিংস অ্যারেনায় স্বাগতিক দল ২-০ গোলে হারায় সাদাকালোদের। বিজয়ী দলের হয়ে স্থানীয় ফরোয়ার্ড সুমন রেজা ও ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড অধিনায়ক রবসন রবিনহো একটি করে গোল করেন।

লিগে নিজেদের প্রথম ম্যাচে স্বাগতিক স্বাধীনতা ক্রীড়া সংঘের বিপক্ষে হারের পর আর পেছনে ফিরে তাকায়নি কিংসরা। পরের ছয় ম্যাচ টানা জিতে শিরোপা জয়ের পথে এগিয়ে চলেছে তারা। অন্যদিকে পয়েন্ট টেবিলে উপরের দিকে থাকার লক্ষ্য নিয়ে লিগ শুরু করলেও ক্রমেই পিছিয়ে পড়ছে মোহামেডান। শনিবার বসুন্ধরার বিপক্ষেও সাদাকালোদের দৈন্যতা স্পষ্টই চোখে পড়লো। ম্যাচের শুরু থেকে আক্রমণাত্মক ফুটবল উপহার দিয়ে ১১ মিনিটে প্রথম গোলের দেখা পায় বিজয়ীরা। এসময় গোছালো এক আক্রমণে ফরোয়ার্ড বিপলু আহমেদের কাছ থেকে বল পান ফরোয়ার্ড মোহাম্মদ ইব্রাহিম। তিনি কাট ব্যাক করলে বক্সের ভেতর মিডফিল্ডার মাহাদি ইউসুফের কাছে যায় বল। মাহাদি’র ব্যাক হিলে বল যায় সুমন রেজার পায়ে। এই ফরোয়ার্ডের নিখুঁত প্লেসিং শটের বল পোস্টের ভেতরের দিকে লেগে জালে জড়ালে এগিয়ে যায় বসুন্ধরা কিংস (১-০)। ধারাবাহিক আক্রমণের মুখে আট মিনিট পরই দ্বিতীয় গোলের দেখা পায় বিজয়ী দল। ম্যাচের ১৯ মিনিটে ব্রাজিলিয়ান তারকা রবিনহো ম্যাজিক ব্যবধান দাঁড়ায় ২-০। এসময় বিপলুর পাস ধরে দুই ডিফেন্ডারকে ফাঁকি দিয়ে মোহামেডান বক্সে ঢুকে পড়েন রবিনহো। এরপর আরও দুই ডিফেন্ডারের ফাঁক দিয়ে কোনাকুনি শটে গোল করে ব্যবধান বাড়ান তিনি। ছয় গোল নিয়ে সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকায় সাইফ স্পোর্টিং ক্লাবের নাইজেরিয়ান এমেকা ওগবোগের সঙ্গে যৌথভাবে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এলেন এই ব্রাজিলিয়ান। সাত গোল করে তাদের সামনে রয়েছেন কেবল চট্টগ্রাম আবাহনীর নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড পিটার থ্যাঙ্কগড। দুই গোলে পিছিয়ে থেকে বিরতিতে গেলেও বিবর্ণ মোহামেডান দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই দশ জনের দলে পরিণত হয়। বলের নিয়ন্ত্রণের লড়াইয়ে রাজীবের ট্যাকলে পড়ে যান রবিনহো। মাঠে পড়ে থাকা কিংস ফরোয়ার্ডের গায়ে অকারণেই জোরে বল মারেন মোহামেডানের মিডফিল্ডার অনিক হোসেন। এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখান রবিনহো। ফলে দুই পক্ষের মধ্যে ছড়ায় উত্তেজনা। রেফারি দ্বিতীয়বারের মতো হলুদ কার্ড দেখালে মাঠ ছেড়ে বেরিয়ে যান অনিক। ম্যাচের বাকি সময় আর কোন গোল না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত ২-০ ব্যবধানের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে বসুন্ধরা কিংস।

ম্যাচ জিতে সাত খেলায় ছয় জয় ও এক হারে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে তালিকায় সবার আগে বসুন্ধরার নাম। সমান দু’টি করে জয় ও হার এবং তিন ড্রতে ৯ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠস্থানে মোহামেডান।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps