বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২৬ মাঘ ১৪২৯, ১৭ রজব ১৪৪৪ হিজিরী

খেলাধুলা

এবার কমলা চ্যালেঞ্জ জয়ের আশা আর্জেন্টিনার

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ৫ ডিসেম্বর, ২০২২, ১২:০০ এএম

আরেকটি বাধা পেরিয়ে আরেকধাপ এগিয়ে যাওয়া। ৩৬ বছরের শিরোপা খরা ঘোচানোর স্বপ্ন যাত্রায় আরেকটি পদক্ষেপ। তবে এই পথচলায় সবচেয়ে বড় বাধা এবার অপেক্ষায়। আর্জেন্টিনার সামনে এখন নেদারল্যান্ডস। ম্যাচটি যে ভীষণ কঠিন হবে, এক বাক্যেই মেনে নিচ্ছেন লিওনেল মেসি, লিওনেল স্কালোনিরা। তবে এই পরীক্ষায় উতরে যাওয়ার বিশ্বাসও দলে আছে বলে জানালেন আর্জেন্টাইন কোচ।
সউদী আরবের কাছে বিস্ময়করভাবে হেরে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করা আর্জেন্টিনা এরপর থেকে ছুটছে প্রত্যাশার পথ ধরেই। ঘুরে দাঁড়িয়ে গ্রুপ সেরা হয়ে শেষ ষোলোয় ওঠার পর তারা কোয়ার্টার-ফাইনালেও পা রেখেছে শনিবার অস্ট্রেলিয়াকে ২-১ গোলে হারিয়ে। তাদের শেষ চারে ওঠার লড়াই আগামী শুক্রবার, যেখানে প্রতিপক্ষ নেদারল্যান্ডস। শনিবারই তারা কোয়ার্টার-ফাইনালে উঠেছে যুক্তরাষ্ট্রকে ৩-১ গোলে হারিয়ে। এই বিশ্বকাপে এখনও পর্যন্ত কোনো ম্যাচ তারা হারেনি। গ্রুপ পর্বে ৭ পয়েন্ট পাওয়া স্রেফ তিন দলের একটি তারা। ছন্দে থাকা ডাচদের সঙ্গে চ্যালেঞ্জটা যে আগের ম্যাচগুলোর চেয়ে অনেক বড়, ম্যাচ শেষে তা অকপটেই বললেন আর্জেন্টাইন জাদুকর মেসি, ‘এখন নেদারল্যান্ডস সঙ্গে আমাদের সত্যিই কঠিন এক লড়াই হবে। ওরা খুবই ভালো খেলে। ওরা চাইবে আমাদের কাছ থেকে বল কেড়ে নিতে। আমাদের কাজটা সহজ হবে না। দারুণ সব ফুটবলার আছে তাদের, দুর্দান্ত এক কোচ আছেন। এটা বিশ্বকাপের কোয়ার্টার-ফাইনাল। এই ধাপ থেকে বিশ্বকাপ আরও কঠিনতর হতে শুরু করে।’ আর্জেন্টাইন কোচ লিওনেল স্কালোনির ধারণা, ম্যাচটি জমবে দারুণ। সেই লড়াইয়ে তারা মাঠ ছাড়তে চান হাসিমুখে, ‘ঐতিহ্যবাহী দুটি দলের লড়াই, খুব সুন্দর একটি ম্যাচ হবে এটি। দুঃখজনকভাবে কোনো একটি দলকে বিদায় নিতে হবে। আশা করি, আমরাই পরের ধাপে এগিয়ে যাব।’
একসময় নেদারল্যান্ডস দলে যেমন তারকার ছড়াছড়ি ছিল, এবারের দলটায় তেমন নেই। তবে উজ্জীবিত ও গোছানো ফুটবল খেলে তারা এগিয়ে চলেছে। এই দলের বড় শক্তি কোচ লুই ফন খাল। ক্লাব ও আন্তর্জাতিক ফুটবলে দীর্ঘদিনের অভিজ্ঞতায় সমৃদ্ধ এক কোচ তিনি। নেদারল্যান্ডস জাতীয় দলেই এটি চলছে তার তৃতীয় দফার দায়িত্ব। গত বছর ইউরোর দ্বিতীয় রাউন্ড থেকেই নেদারল্যান্ডস বাদ পড়ার পর অবসর ভেঙে আবার দায়িত্ব নেন তিনি। তার কোচিংয়ে সেই থেকে এখনও পর্যন্ত টানা ১৯ ম্যাচে অপরাজিত ডাচরা। ফন গালের প্রতি দারুণ শ্রদ্ধা আছে স্কালোনির। দুজনের বয়সের ব্যবধান অনেক। ফন খালের বয়স যেখানে ৭১, স্কালোনির সবে ৪৪। অনেক আগে থেকেই এই ডাচ কোচকে তার ভালো লাগে বলে জানালেন আর্জেন্টাইন কোচ, ‘সেই সময়টা থেকেই তিনি অনেক খ্যাতিমান। তার মুখোমুখি হওয়াটা গর্বের ব্যপার। ফুটবল থেকে এই তৃপ্তিটা পাওয়া যায়, বিশেষ করে যখন বিশ্বকাপের মঞ্চে এই সুযোগটা হয়। আমরা জানি, ফুটবলে তিনি কতটা কী করেছেন এবং কত লোকে তাকে অনুসরণ করার চেষ্টা করেছে।’ তবে সেই শ্রদ্ধা ও সমীহকে সঙ্গী করেই বিশ্ব মঞ্চের লড়াইয়ে ফন খালের দলকে হারাতে আশাবাদী স্কালোনি, ‘কঠিন এক প্রতিপক্ষের সঙ্গে লড়াই আমাদের। আশা করি আমরা ভালো করব। হয়তো তারা আগের ডাচ দলগুলির মতো তারকায় উজ্জ্বল নয়। তবে নিজেদের কাজটা তারা খুব ভালোভাবে জানে।’

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন