ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬, ১৯ মুহাররম ১৪৪১ হিজরী।

জাতীয় সংবাদ

১৫ ফেব্রুয়ারির মধ্যে নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলা করবে বিএনপি

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ১২:০৫ এএম

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট চুরি, আগের রাতে ভোট প্রদান, ভোটারদের ভোট প্রদানে বাধা প্রদানসহ অন্যান্য অনিয়মের অভিযোগ এনে নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলা করবে বিএনপি। আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারির মধ্যে দেশের বেশ কিছু আসনে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে এই নির্বাচনে অংশ নেয়া বিএনপির প্রার্থীরা এই মামলা করবেন। গতকাল (শনিবার) দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ২০টি জেলার প্রার্থীদের সাথে স্কাইপিতে বৈঠকে অংশ নিয়ে মামলা করার বিষয়ে নির্দেশনা প্রদান করেন। 

বিএনপি সূত্রে জানা যায়, গতকাল বিকেল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ২০টি জেলার ধানের শীষের প্রার্থীদের নিয়ে বৈঠক করেন দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান। তিনি লন্ডন থেকে স্কাইপিতে তাদের সাথে যুক্ত হন। বৈঠকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটের আগের রাতে ব্যালট বাক্সে ব্যালট পেপার সিল মেরে রাখা, ভোট চুরি, জালিয়াতি, ভোটারদের ভোট প্রদানের বাধা প্রদানসহ অন্যান্য অনিয়মের জন্য মামলা করা সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। বৈঠকে অংশ নেয়া প্রার্থীদের দু’একজন মামলার বিষয়ে দ্বিমত পোষণ করলেও অধিকাংশ প্রার্থীই নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলার করার বিষয়ে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের সাথে একমত হন। প্রার্থীদের পরামর্শেই তারেক রহমান আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারির মধ্যে জেলা ভিত্তিক একটি করে মামলা করার নির্দেশনা দিয়েছেন।
বৈঠকে অংশ নেয়া বিএনপির এক প্রার্থী জানান, আমাদেরকে ডাকা হয়েছিল নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলা করার বিষয়ে আলোচনার জন্য। সেখানে অধিকাংশ প্রার্থীই মামলা করার বিষয়ে একমত হয়েছেন। দু’একজন এর বিপক্ষে যুক্তি তুলে ধরেন। তবে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান অধিকাংশ প্রার্থীর মতামত শুনে মামলার করার নির্দেশনা দিয়েছেন। এছাড়া অন্য কোন বিষয়ে আলোচনা হয়েছে কিনা জানতে চাইলে ওই প্রার্থী বলেন, একটিই এজেন্ডা ছিল নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলা করা। এছাড়া অন্য কোন বিষয়ে আলোচনা হয়নি।
বৈঠকের বিষয়ে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য হাবিবুর রহমান হাবিব বলেন, নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলার বিষয়ে আমাদের সিদ্ধান্ত হয়েছে। আমরা পরামর্শ দিয়েছি কমপক্ষে প্রতিটি জেলায় একটি করে হলেও মামলা করতে হবে। আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান মামলা করার বিষয়ে নির্দেশনা দিয়েছেন। আমরা আগামী ১৫ তারিখের মধ্যে মামলা করব।
মামলার সিদ্ধান্ত কেন জানতে চাইলে পাবনা-৪ আসন থেকে ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করা এই প্রার্থী বলেন, এটা কোন নির্বাচনই হয়নি। ভোটের আগের রাতেই ব্যালট বাক্স সিল মেরে ভর্তি করে রাখা হয়েছে। এতো বড় অনিয়মের পরও তারা (সরকার) এটাকে সুষ্ঠু নির্বাচন বলতে চাইছে। নির্বাচন যে, সুষ্ঠু হয়নি তার প্রমাণসহ আমরা মামলা করবো। বিএনপি নেতা বলেন, আদালত হয়তো মামলা খারিজ করে দেবে, তারপরও আমরা মামলা করতে চাই। অনিয়ম যে হয়েছে তা আবারও সবাইকে মনে করিয়ে দিতে চাই।
বৈঠকে বিএনপির প্রার্থী মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, মিজানুর রহমান মিনু, জয়নুল আবদীন ফারুক, হাবিবুর রহমান হাবিব, শরিফুল আলম, শামা ওবায়েদ, আজিজুল বারী হেলাল, জি কে গউছ, লুৎফর রহমান কাজল, মিজানুর রহমান চৌধুরী, আনিসুর রহমান তালুকদার খোকন, ব্যারিস্টার ইরফান ইবনে আমান অমি, হাজী মুজিব, রফিকুল আলম মজনু, মাইনুল ইসলাম খান শান্ত প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।#

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (15)
Mr Rayman ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:০১ এএম says : 0
BNP is the 2nd largest political party. looks like their organizations is not organized.
Total Reply(0)
Mohammed Shah ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:০২ এএম says : 0
একটা দলের ভুল কাজের দিকে নজর না দিয়ে আপনারা কি করতে চান জনগণকে জানাতে পারেন। আপনাদের প্রতিষ্ঠানগুলোতে সেই নজির স্থাপন করুন। তাহলে জনগণ আপনাদেরকে বিশ্বাস করবে। শুধু নির্বাচনের কথা না ভেবে জনগণের পাশে থাকা জরুরী। তাহলে জনগণই আপনাদের খুঁজে নেবে। জনগণ এখন অনেকটা সুবিধাবাদী।
Total Reply(0)
S. M. Abdul Haque ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:০২ এএম says : 0
মামলা করলে সরকার সেটাকে চার-পাঁচ বছর পর্যন্ত ঝুলাবে মনে করেন ঐক্যফ্রন্টের নেতারা।
Total Reply(0)
Sengupta ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:০২ এএম says : 0
নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলায় নয়, এটা হতে পারে সরকারের সাথে আলোচনার মাধ্যমে, না হলে রাজপথে আন্দোলনের মাধ্যমে।
Total Reply(0)
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:০৩ এএম says : 0
আপনারা আদালতে গিয়ে যদি সঠিক ভাবে বিষয়টি উপস্থাপন করতে পারেন তবে অনেক বড় ঘটনা উন্মোচিত হবে।
Total Reply(0)
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:০৩ এএম says : 0
অবশ্যই আদালতে যাওয়া উচিত।আমরা জানি কোনো ফয়দা হবেনা কিন্তু রেকর্ডটি তো থেকে যাবে।
Total Reply(0)
আবদুল মকিম চৌধুরী ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:০৪ এএম says : 0
পাবলিক মেমোরি ইজ শর্ট।তথ্য-প্রমাণ দিয়ে ঐক্যফ্রন্ট একটি শ্বেতপত্র প্র্রকাশ করতে পারে।
Total Reply(0)
তাসলিমা বেগম ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:০৪ এএম says : 0
এটা কিন্তু ভাল উদ্যোগ, কোন কিছু হয়ত পক্ষে আসবে না আদালত থেকে কিন্তু রেকর্ড হয়ে তো থাকবে। ভবিষ্যতে হয়ত কাজে লাগবে
Total Reply(0)
Md Hossain ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:০৫ এএম says : 0
যদিও দলের বিষয় নিয়ে আর লিখতে মন চায় না তবুও বলছি ঐ সব মামলা করে কোনদিন আলোর মুখ দেখবেনা ক্ষমতা পেতে হলে আন্দোলনে কোন বিকল্প নেই।
Total Reply(0)
Hasina Munni ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:০৫ এএম says : 0
কোন লাভ নেই, এখন সবাই আওয়ামীলীগ এর গোলাম
Total Reply(0)
Rabiul Islam ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:০৬ এএম says : 0
ভোটারদের মাত্র 20% পার্সেন ভোটের ব্যালট পেপার এর ফিংগারপিন গুলা চেক করা হোক তাহলে বুঝা যাবে ভোট সুষ্ঠু হয়েছে কিনা না দুর্নীতি হয়েছে
Total Reply(0)
Obaidul Choudhury ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:০৬ এএম says : 0
ব্যালেট পেপারের পাঁচশত মুড়িতে একইজনের টিপসই! ফিঙ্গারপ্রিন্ট মিলিয়ে আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা করলে ইসি ও সরকার ফেঁসে যাবে, নিশ্চিত।
Total Reply(0)
Nazim Rubel ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:০৭ এএম says : 0
কার ট্রাইব্যুনাল? কোন ট্রাইব্যুনাল? যে দেশে সত্য কথা বলার জন্য প্রধান বিচারপতিকে দেশ ছেড়ে চলে যেতে হয় সেই দেশে আদালতে মামলা করবেন!! এইটা হাস্যকর বড় হাস্যকর
Total Reply(0)
Shahariar Imran ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:০৭ এএম says : 0
কার কাছে কার বিরুদ্ধে মামলা করবেন মামা। আমি বলি কি আপনাদের বয়স হইছে এইবার একটু শান্তি মতন বাসায় যেয়ে গুমান। আপনাদের এখন ও বুঝার বয়স হয় নাই যে, মায়ের কাছে মামার বাড়ির গল্প বলে কোন লাভ নাই। মামার বাড়ির সব গল্প ই মায়ের জানা আছে। তরুনদের হাতে ক্ষমতা ছেড়ে দেন। আর বাকিটা বইসা বইসা দেখতে থাকেন কি করে।
Total Reply(0)
Mohammed Kowaj Ali khan ১০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ২:৪৮ এএম says : 0
আপনারা মামলা করিবেন। ভালো কথা সুন্দর কথা। সারা বিশ্ব জানেন এই ভোট চুরদের কথা। পুলিশ, পুলিশ এই ভোট চুরদেরকে ধরিয়ে দাও। ইতিহাসের বিখ্যাত ভোট চুর একেবারে নিম্নমানের ভোট চুর, এই ভোট চুর। ওদেরকে ধরিয়ে দাও। দিক্ষার জানাই এই ভোট চুরদের। জাতি বড় ঘৃণা করেন এই ভোট চুরদের। এই সকল ভোট চুর বাংলাদেশের কলংক। এই ভোট চুরদের শ্বাস্থী হওয়া দরকার। নিরবাচন কমিশন এত বড় অজ্ঞ। এই চুরেরা কিভাবে যে মুখ দেখায় ওদের নাই কোনো হায়া নাই কোনো শরম। আমি এই চুর, চুন্নিদের,,সরবো উচ্ছ স্বাস্থী কামনা করি। ভোট চুর অপরাধ যুদ্ধ অপরাধীর চেয়ে ও জঘন্য তাই এই চুরদের সরবোউচ্ছ স্বাস্থীর ব্যবস্থা করা হোক। যাহাতে আর কোনো দিন বাংলাদেশে এই ভোট চুরদের জন্ম না হয়। পাকহানাদারেরা যে জঘন্য অপরাধ করেনি, ভোট চুরি। আমাদের দেশের ইঁদুর হানাদারেরা করিলো ভোট চুরি। সবাই মিলে মিশে এই ভোটচুরদের ধরেন আর ওদেরকে জুতা ধুলাই দেন। ইনশাআল্লাহ।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন