ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ০৪ জুন ২০২০, ২১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ১১ শাওয়াল ১৪৪১ হিজরী

শান্তি ও সমৃদ্ধির পথ ইসলাম

অবিলম্বে কাদিয়ানীদের রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলিম ঘোষণা করুন- নেজামে ইসলাম পার্টি

জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে উন্মুক্ত অধিবেশনে সভাপতিত্বের বক্তব্য রাখেন দলের সিনিয়র সহসভাপতি মাওলানা আব্দুর রশিদ মজুমদার- ইনকিলাব

স্টাফ রিপোর্টার | প্রকাশের সময় : ৬ এপ্রিল, ২০১৯, ৪:৫১ পিএম

অবিলম্বে কাদিয়ানীদের রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলিম ঘোষণার দাবী জানিয়েছেন বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির নেতৃবৃন্দ। নেতৃবৃন্দ বলেন, কাদিয়ানী সম্প্রদায় নানা অপতৎপরতার মাধ্যমে মুসলমানের বিভ্রান্ত করছে। এদের ইসলাম বিদ্বেষী সকল প্রকার বই-পুস্তক বাজেয়াপ্ত করতে হবে। নেতৃবৃন্দ বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে প্রতিবেদন তৈরি করে ১৫ জন আলেমের নামের তালিকায় কিছু হক্কানী আলেমের নাম জুড়ে দেয়া হয়েছে। হক্কানী আলেম-ওলামাদের কন্ঠ স্তব্ধ করার ষড়যন্ত্র সফল হবে না। আলেম ওলামাগণ ওয়াজ মাহফিলের মাধ্যমে মানুষকে আলোর পথ দেখান।

গতকাল শনিবার জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টি আয়োজিত জাতীয় কাউন্সিল উন্মুক্ত অধিবেশনে নেতৃবৃন্দ একথা বলেন। পার্টির সিনিয়র সহ-সভাপতি মাওলানা আব্দুর রশিদ মজুমদারের সভাপতিত্বে এবং পার্টির সংগঠন সচিব মাওলানা এ কে এম আশরাফুল হকের পরিচালনায় এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নেজামে ইসলাম পার্টির মহাসচিব মাওলানা আব্দুল লতিফ নেজামী, ড.খলিলুর রহমান খান, অধ্যাপক এহেতাম সরওয়ার, মুফতী জিয়াউল হক মজুমদার, লেখক-গবেষক মাহমুদুল হক আনসারী, মুফতী ফয়জুল্লাহ, অধ্যাপক শেখ লোকমান হোসেন, মুফতী তৈয়্যব হোসেন, মাওলানা আতাউর রহমান, মুফতী আব্দুল কাইয়ূম ও মাওলানা আব্দুল বাতেন।

নেতৃবৃন্দ বলেন, পাশ্চাত্যের মতো দেশের স্কুলগুলোতে যৌন শিক্ষার আয়োজন চলছে। মানুষের নৈতিকতা ধ্বংসের লক্ষ্যে ইসলাম বিদ্বেষী চক্র কিছু কিছু শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছাত্র-ছাত্রীদের যৌন শিক্ষা চালুর পাঁয়তারা করছে। নেতৃবৃন্দ বলেন, এদেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রাশ্চাত্ব্যের ধাচের যৌন শিক্ষা চালুর ষড়যন্ত্র বরদাশত করবে না। মাওলানা আব্দুল লতিফ নেজামী বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যৌন শিক্ষা চালু করে এদেশের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব রক্ষা করা যাবে না। ইসলাম বিরোধী গোষ্ঠী সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যৌন শিক্ষা চালুর স্বপ্ন দেখছে। ইসলামী কৃষ্টি-কালচার ধ্বংসের জন্য একটি গোষ্ঠী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যৌন শিক্ষা চালু করতে চায়। বিবিসি সম্প্রতি এ ব্যাপারে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। তিনি বলেন, বৃটিশ বিরোধী আন্দোলনে এদেশের শীর্ষ পর্যায়ের আলেম ওলামাগণ রক্ত দিয়েছেন। ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের মাধ্যমেই ইসলাম বিরোধীদের দাঁত-ভাঙ্গা জবাব দেয়া হবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন