ঢাকা, সোমবার, ৩০ মার্চ ২০২০, ১৬ চৈত্র ১৪২৬, ০৪ শাবান ১৪৪১ হিজরী

খেলাধুলা

পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে আইপিএলের সিদ্ধান্ত

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ১৫ মার্চ, ২০২০, ১২:০০ এএম

করোনাভাইরাস আতঙ্কে সৃষ্টি হওয়া উদ্ভ‚ত পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত আইপিএল পিছিয়ে দেওয়ার কথা একদিন আগেই ঘোষণা করেছিল বোর্ড অব ক্রিকেট কন্ট্রোল ফর ক্রিকেট ইন ইন্ডিয়া (বিসিসিআই)। তবে প‚র্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট লিগের ভবিষ্যৎ নির্ধারণ করতে গতকাল মুম্বাইয়ে বোর্ডের প্রধান কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল বিসিসিআই-আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের বৈঠক। বোর্ড সভাপতি সঙ্গে আলোচনায় বসেছিলেন বিভিন্ন ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিকেরা।

সেখানে উপস্থিত হাজির ছিলেন শাহরুখ খান, পার্থ জিন্দাল, নেস ওয়াদিয়া সহ বিভিন্ন ফ্র্যাঞ্চাইজির মালিকেরা। বৈঠকে আলোচনার বিষয়বস্তু ছিল এমন উদ্ভ‚ত পরিস্থিতিতে আদৌ আইপিএল আয়োজন করা সম্ভব কিনা, আর সম্ভব হলেও সেটা কবে আয়োজন করা হবে। পাশাপাশি দর্শকহীন গ্যালারিতে ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট লিগ আয়োজনে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর সম্মতি রয়েছে কিনা, সেটাও দেখার বিষয় ছিল। একইসঙ্গে অনুষ্ঠিত বৈঠকে আলোচিত হয় অল্প সময়ের মধ্যে টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে হলেও ম্যাচসংখ্যা কাটছাঁট করে কিংবা দিনে ‘ডাবল হেডার’ রেখে আইপিএল আয়োজন করা সম্ভব কতটা।

আলোচনায় যে কোনও ভাবে টুর্নামেন্ট আয়োজনের পথ খোলা রেখেছে টুর্নামেন্টের ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলি। তবে সেটা হতে হবে নিরাপদ পরিবেশে এবং অবশ্যই ক্রিকেটার এবং ক্রিকেট অনুরাগীদের স্বাস্থ্য সচেতনতার দিকটি মাথায় রেখে। বিসিসিআইয়ের পক্ষ থেকে সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ‘শনিবার (গতকাল) মুম্বাইয়ে বোর্ডের প্রধান কার্যালয়ে বিসিসিআইয়ের সঙ্গে আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর বৈঠকে আসন্ন আইপিল মৌসুমে করোনার কতটা প্রভাব ফেলতে পারে, তা নিয়ে আলোচনা হয়েছে।’

বিবৃতিতে আরও জানানো হয়েছে, ‘বিসিসিআইয়ের সঙ্গে সম্মতিক্রমে আইপিএল ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোও অনুরাগী, অ্যাথলিটদের নিরাপত্তার দিকটিকেই সবচেয়ে বেশি প্রাধান্য দিতে বদ্ধপরিকর। কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে একজোট হয়ে সমস্ত পরিস্থিতির দিকে বোর্ড নজর রাখবে। নাগরিকদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার কথা মাথায় রেখেই বিভিন্ন রাজ্য সংস্থাগুলো পরবর্তীতে তাদের সিদ্ধান্তে উপনীত হবে।’ তবে কবে নাগাদ শুরু হতে পারে এ বারের আইপিএল, সেই প্রসঙ্গে বোর্ডের সচিব জয় শাহ বলেন, ‘আইপিএল কবে শুরু হবে তা বলার মতো জায়গায় এই মুহ‚র্তে আমরা নেই। আমরা পরিস্থিতি বিচার করে সিদ্ধান্ত নেবো।’

সূত্রের খবর, অনেকটা ২০১৯ সালের বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ফরম্যাটের মতো হতে পারে আইপিএল। দুটো গ্রুপে দলগুলোকে ভাগ করা হতে পারে। প্রতিটি গ্রুপের সেরা দুটো দলকে নিয়ে হতে পারে সেমিফাইনাল। দুটো জয়ী দলকে নিয়ে হবে ফাইনাল।

আইপিএল ঠিক সময়ে করা নিয়ে যখন জটিলতা তৈরি হয়েছিল, সেই সময়ে দেশের ক্রিকেটমহলে শোনা যাচ্ছিল, বিদেশের মাটিতে চলে যেতে পারে আইপিএল। বিশ্বত্রাসী করোনা আতঙ্কে খেলাধুলাই ‘আউট’ হয়ে যেতে বসেছে এখন। সেই ধাক্কায় বেসামাল আইপিএল-ও। ধাক্কা কাটিয়ে আইপিএল-এর বল গড়ালে তা যে সব অর্থেই নজিরবিহীন হতে চলেছে, তা বলাই বাহুল্য।

বৈঠক শেষে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের অন্যতম মালিক স্পষ্ট জানান, ‘আর্থিক ক্ষতির দিকটি একেবারেই ভাবছি না আমরা। মানুষ সবার আগে তারপর আর্থিক দিক। বৈঠকে একজোটে এটাই সিদ্ধান্ত হয়েছে। আমরা সরকারি নির্দেশিকা মেনেই সবকিছু করব। চলতি মাসের শেষের দিক ছাড়া কিছু চ‚ড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া সম্ভব নয়। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হওয়ার অপেক্ষা করা ছাড়া আর কোনও উপায় নেই।’ নেস ওয়াদিয়ার সুরে সুর মিলিয়েই বৈঠক শেষে টুইট করেছেন কেকেআর মালিক শাহরুখ খান। আইপিএল আয়োজনের ক্ষেত্রে সরকারি সমস্ত নির্দেশিকা মানা হবে বলে জানান এ বলিউড অভিনেতা।

উল্লেখ্য, ১৫ এপ্রিল অবধি বিদেশিদের ভিসা দেওয়ার ব্যাপারে ভারত সরকার নিষেধাজ্ঞা জারি করায় আইপিএল পিছিয়ে দেয় বিসিসিআই। কারণ যথাসময়ে অনুষ্ঠিত হলে বিদেশি সকল ক্রিকেটারের ভিসা পাওয়া কোনভাবেই সম্ভব হতো না।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন