ঢাকা রোববার, ২৪ জানুয়ারি ২০২১, ১০ মাঘ ১৪২৭, ১০ জামাদিউস সানী ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

সমাজ ও সংস্কৃতি থেকে ইসলাম দিন দিন দূরে সরে পড়ছে

ছাত্র সালেকিনের কেন্দ্রীয় সম্মেলনে মৌকারা পীর সাহেব

সাদিক মামুন, কুমিল্লা থেকে : | প্রকাশের সময় : ২২ নভেম্বর, ২০২০, ১২:০১ এএম

সমগ্র দেশ ভয়াবহ আদর্শিক বিপর্যয়ের মুখে দাঁড়িয়ে উল্লেখ করে আমিরুস সালেকিন মৌকারা দরবার শরিফের আলা হযরত পীর সাহেব আলহাজ মাওলানা শাহ মুহাম্মদ নেছারউদ্দীন ওয়ালিউল্লাহী বলেছেন, আজকে বহুমুখী ফেতনা ধর্ম-অধর্মের লেবাস পরে সমাজের সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ছে। ছাত্র সমাজ হয়ে পড়ছে দিগভ্রান্ত, আদর্শহীন বিজাতীয় সভ্যতার প্রভাবপুষ্ট। সাম্রাজ্যবাদী ষড়যন্ত্র, দীন বিরোধী তৎপরতা আর আমাদের উদাসীনতায় বাংলাদেশের সমাজ ও সংস্কৃতি থেকে ইসলাম দিন দিন দূরে সরে পড়ছে। নষ্ট হচ্ছে আমাদের সামাজিক ঐক্য। নাস্তিক্যবাদী শক্তির উত্থান লক্ষ্য করছি উদ্বেগের সাথে। গতকাল সন্ধ্যায় কুমিল্লার নাঙ্গলকোটের মৌকারা দরবার প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ আনজুমানে ছাত্রসালেকিনের কেন্দ্রীয় সম্মেলনে প্রধান মেহমানের বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

জাতির এ ক্রান্তিকালে ছাত্রসালেকিন আদর্শিক বিপ্লবের দুর্জয় কাফেলা মন্তব্য করে মৌকারা পীর সাহেব আরো বলেন, ৯৫ ভাগ মুসলমানের বাংলাদেশ ইসলাম-বিরোধী কর্মকান্ডের জন্যে নয়। বহু মনীষী, পুরোধা ব্যক্তিত্ব, পীর, উলামার রক্ত-ঘামে সিক্ত এ জমিন- নাস্তিক্যবাদের স্বর্গরাজ্য হতে দেয়া যাবে না। ছাত্রসালেকিনের নেতাকর্মীদের যোগ্যতা সম্পন্ন হয়ে উঠতে হবে। আমরা ছাত্রদের শ্রমিক নয়, জ্ঞানী পন্ডিত, জাতি-রাষ্ট্রের আমানতদার খাদেম হিসেবে তৈরি হতে দেখতে চাই।

সম্মেলনে বিশেষ মেহমানের বক্তব্যে দৈনিক ইনকিলাবের সিনিয়র সহকারী সম্পাদক মাওলানা উবায়দুর রহমান খান নদভী বলেন, ইসলামের ধারক বাহক ও প্রচারকদের আদর্শ অনুসরণ করেই জীবনের সকল ক্ষেত্রে ইসলাম কায়েম হতে পারে। দীনী শিক্ষা, আধ্যাত্মিক মনীষীদের দীক্ষা এবং নিষ্ঠাপূর্ণ দাওয়াতী সাধনা-সংগ্রাম ছাড়া মুসলিম জাতির প্রতিষ্ঠা ও বিজয় সম্ভব নয়। পশ্চিমা সংস্কৃতি ও ইসলামবিরোধী সকল অপসংস্কৃতি মোকাবিলায় নিখুঁত দীনী সংস্কৃতি প্রসারের বিকল্প নেই। নতুন প্রজন্মকে নাস্তিকতা, সংশয় ও কুশিক্ষার বিষফল থেকে মুক্ত করে দীনের সৈনিক এবং ইসলামের পতাকাবাহী হিসেবে গড়ে তুলতে সংগ্রামী সাধক, ওলি-আউলিয়া ও অতীত বুজুর্গদের কর্মপন্থায় অগ্রসর হতে।

মাওলানা নদভী আরো বলেন, সন্ত্রাস ও উগ্রবাদের মিথ্যা অপবাদ দিয়ে মুসলিম উম্মাহকে দাবিয়ে রাখা যাবে না। ইসলামের শিক্ষা, আদর্শ, মানবিকতা ও আধ্যাত্মিক শক্তির সমন্বয়ে মুসলিম বিশ^ আবার জেগে উঠছে। আদর্শিক শ্রেষ্ঠত্বের পাশাপাশি মুসলমানরা কৌশলগত, সামরিক, বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ও অর্থনৈতিকভাবেও বিশ^শক্তির ভারসাম্যে পরিণত হচ্ছে। ইনশাআল্লাহ, কয়েক দশকের মধ্যেই মুসলিম জাতি পরাশক্তির জায়গা দখল করে নেবে।

সভাপতির বক্তব্যে ছাত্রসালেকিনের কেন্দ্রীয় সভাপতি বিশিষ্ট কবি ও কলামিস্ট শাহ মুহাম্মদ মাসউদ বলেন, জাতীয় উন্নয়ন, অগ্রগতির নিয়ামক হলো, তরুণ ছাত্রসমাজ। এদের আগামীর যোগ্য নাগরিকরূপে গড়ে তুলতেই কাজ করছে ছাত্রসালেকিন। ছাত্রসালেকিন বিশ্বাস করে, ছাত্রদের ভাল করে গড়ে তুলতে পারলে দেশ ভাল থাকবে।

শাহ মাসউদ আরো বলেন, সমাজ পরিবর্তনের ক্ষেত্রে সলফে সালেহিনের কর্মপন্থাই কার্যকর ও টেকসই। ছাত্রসালেকিন তাঁদের নীতি-আদর্শের অনুসারী। প্রতিষ্ঠা থেকে অদ্যাবধি এ সংগঠন বহুমুখি কর্মসূচির আঞ্জাম দিয়ে চলছে।

সম্মেলনে বিশেষ মেহমান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জমিয়াতুস সালেকিনের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আলহাজ মাওলানা আবদুল হালিম (ছোট হুজুর), প্রেসিডিয়াম সদস্য আলহাজ মাওলানা মির্জা সায়মুর রহমান বেগ, আলহাজ জাহিদুল মাওলা চৌধুরী হেলাল, আলহাজ জয়নাল আবেদীন খলিফা, শায়খে ফান্দাউক আলহাজ মাওলানা সৈয়দ মুঈনউদ্দীন আহমদ আলহুসাইনী, জয়েন্টসেক্রেটারি জেনারেল অধ্যক্ষ আলহাজ মাওলানা আনোয়ার হোসেন, তালিমে তরিকত সম্পাদক অধ্যক্ষ আলহাজ মাওলানা রফিকুল ইসলাম, উপাধ্যক্ষ আলহাজ মাওলানা ইউসুফ মজুমদার, যুবসালেকিন সভাপতি আলহাজ আবুল কালাম আজাদ, সেক্রেটারি জেনারেল আলহাজ হাফেজ আবুল হাশেম, জয়েন্ট সেক্রেটারি মাওলানা আ. জ. ম. সাইফুল্লাহ, বাংলাদেশ আনজুমানে ইসলামী ছাত্রমহলের কেন্দ্রীয় সভাপতি সৈয়দ আবু বকর, নূরমুহাম্মদপুর দরবার শরিফের সাহেবজাদা আবু আবদিল্লাহ মুহাম্মদ খালেদ, চন্দ্রগঞ্জ কারামতীয়া আলিয়ার সাবেক অধ্যক্ষ আলহাজ মাওলানা আবদুল হাই। ছাত্রসালেকিনের সেক্রেটারি জেনারেল মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ পাটোয়ারীর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন ছাত্রসালেকিনের কেন্দ্রীয় সহসভাপতি মুহাম্মদ একরামুল হক, মুহাম্মদ সোলাইমান, মুহাম্মদ মুহিব্বুল ইসলাম প্রমুখ।

সম্মেলনের তৃতীয় পর্বে সঙ্গীত পরিবেশন করেন, জাগ্রত কবি মুহিব খান এবং ওয়ালীয়া তমদ্দুনিক দলের সদস্যবৃন্দ।সম্মেলনে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে ছাত্রসালেকিনের দায়িত্বশীলরা শরিক হন। প্রতিকূল আবহাওয়ার মাঝেও প্রাণবন্ত ছন্দে অনুষ্ঠিত হয় সম্মেলন। এতে মিডিয়া পার্টনার হিসেবে ছিল তৌহিদী জনতার মুখপাত্র দৈনিক ইনকিলাব ও ব্রডকাস্টিং পার্টনার হিসেবে সালেকিন টিভি।

সম্মেলনে বাংলাদেশ আনজুমানে ছাত্রসালেকিনের ২০২১-২০২২ সেশনের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদ ঘোষণা করা হয়। কেন্দ্রীয় সভাপতি শাহ মুহাম্মাদ মাসউদ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সেক্রেটারি জেনারেল কাজী মুহাম্মদ ইসহাক জামিল, সহসভাপতি মুহাম্মদ একরামুল হক, মুহাম্মদ সোলাইমান, মুহাম্মদ বাকি বিল্লাহ পাটোয়ারি, মুহাম্মদ মুহিব্বুল ইসলাম মামুন, মুহাম্মদ আবদুল্লাহ, জয়েন্ট সেক্রেটারি মুহাম্মদ ওমর ফারুক মুহাম্মদ মুনিরুল ইসলাম, সহসেক্রেটারি মুহাম্মদ ফয়েজ আহমদ মুহাম্মদ আবু ইউসুফ, সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ মোশাররফ হোসেন, প্রচার সম্পাদক মুহাম্মদ মুফাসসির হুসাইন, অর্থ সম্পাদক হাফেজ মুহাম্মদ বেলায়েত হোসেন শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক মুহাম্মদ আবু সাঈদ, সাহিত্য সম্পাদক নেছার আহমদ হাজারী তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মুহাম্মদ শাহিনুর, সেবা ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক মুহাম্মদ সাখাওয়াত হোসেন, সহসাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ ওমর ফরুক নেছারী, সহপ্রচার সম্পাদক হাফেজ মুহাম্মদ জোবায়ের হোসেন, সহশিক্ষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক মুহাম্মদ মাহফুজুর রহমান, সহ-তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মুহাম্মদ রাকিবুল ইসলাম।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন