ঢাকা রোববার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ৫ বৈশাখ ১৪২৮, ০৫ রমজান ১৪৪২ হিজরী

সারা বাংলার খবর

রায়পুরে বিএনপির প্রার্থীকে বাসায় অবরুদ্ধ

ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি

লক্ষ্মীপুর জেলা সংবাদদাতা | প্রকাশের সময় : ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০২১, ৬:৩২ পিএম

লক্ষ্মীপুরের রায়পুর পৌরসভা নির্বাচনে বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থীর বাসভবনের সামনে শুক্রবার ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টির অভিযোগ পাওয়া গেছে। এসময় প্রার্থীসহ বিএনপি দলীয় নেতাকর্মীদের তিনঘন্টা অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। খবর পেয়ে পরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রায়পুর সহকারি কমিশনার (ভূমি) আক্তার জাহান সাথী ও রায়পুর থানার অফিসার ইনচার্জ আবদুল জলিল ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন।

এ ঘটনায় মেয়র প্রার্থী জেলা রিটার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ করেছেন বলে জানালেন বিএনপি সমর্থিত মেয়র প্রার্থী এবিএম জিলানী ।

বিএনপি সমর্থিত এ মেয়র প্রার্থী এবিএম জিলানী জানান, পৌর এলাকার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের দেনায়েতপুর এলাকায় ও সহকারি কমিশনারের (এসিল্যান্ড) কার্যালয়ের সামনে আমার বাসা ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। শুক্রবার সকালে সাড়ে ১০টার দিকে বাসার সামনে রাস্তায় প্রতিপক্ষের সন্ত্রাসী বাহিনী পাঁচ-ছয়টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করে।

নির্বাচনের দিন তিনিসহ দলীয় নেতা-কর্মীদের ভোটকেন্দ্রে না যেতে হুমকি দিয়ে মোটরসাইকেলে মহড়া দিতে থাকে। বিষয়টি তাৎক্ষণিক তিনি রায়পুর নির্বাচন কার্যালয়, পুলিশ ও ম্যাজিস্ট্রেট ফোনে জানান। কিছুক্ষণ পর এসিল্যান্ড ও ওসির নেতৃত্বে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে বিস্ফোরকের খোঁসা সংগ্রহ করে নিয়ে যান।

এবিএম জিলানী বলেন, নির্বাচনী প্রচারণার শুরু থেকে তাকে ও তার কর্মী-সমর্থকদের বিভিন্নভাবে বাধা দেয়া হচ্ছে। উপজেলা বিএনপির সভাপতি এডভোকেট মনিরুল ইসলাম হাওলাদার, সাধারণ সম্পাদক নাজমুল ইসলাম মিঠু, বিএনপি নেতা হোসেন আহাম্মদ বাহাদুর, সাবেক ভিপি নজরুল ইসলাম লিটন, আরমান হোসেন, আনিসুর রহমানসহ ছাত্রদল, যুবদল ও স্বেচ্ছাসেবকদলের নেতাকর্মীদের নিয়ে আমার বাসায় নির্বাচন নিয়ে আলোচনা করার সময় সন্ত্রাসীরা ককটেল বিষ্ফোরন ঘটিয়ে আমাদের বাসায় অবরূদ্ধ করে রাখে।

এ ব্যাপারে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) আক্তার জাহান সাথী ও রায়পুর থানার অফিসার ইনচার্জ আবদুল জলিল জানান, খবর পাওয়ার সাথে সাথে ঘটনাস্থলে যাই। পরিস্থিতি শান্ত করে উভয় পক্ষের লোকদের ঘটনাস্থল থেকে বিদায় করা হয়েছে।

অভিযোগের বিষয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী গিয়াস উদ্দিন রুবেল ভাট মুঠোফোনে জানান, তাকে হেয় করার জন্য প্রতিপক্ষ এ ধরনের অপপ্রচার চালাচ্ছে। এ ঘটনায় তিনি কিছুই জানেন না।

জেলা রিটার্নিং ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মুহাম্মদ নাজিম উদ্দিন বলেন, বাসার সামনে ককটেল বিষ্পোরন ও তাকেসহ দলের নেতা কর্মীদের অবরূদ্ধ করে রাখার বিষয়ে বিএনপির প্রার্থী মোবাইলফোনে অভিযোগের বিষয়টি জানিয়েছেন। লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

 

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন