ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ০৩ আষাঢ় ১৪২৮, ০৫ যিলক্বদ ১৪৪২ হিজরী

খেলাধুলা

আতঙ্ক নিয়ে আইপিএল ছাড়ছেন ক্রিকেটাররা!

স্পোর্টস ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৮ এপ্রিল, ২০২১, ১২:০২ এএম

পরিবার ও আত্মীয়-স্বজনরা লড়ছেন করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে। এমন পরিস্থিতিতে তাদের পাশে থাকাকে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন রবীচন্দ্রন অশ্বিন। ভারতের এই স্পিন অলরাউন্ডার তাই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আইপিএল থেকে বিরতি নেওয়ার। গতপরশু রাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন অশ্বিন। তার সিদ্ধান্তের প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানিয়েছে তার ফ্র্যাঞ্চাইজি দিল্লি ক্যাপিটালস। পরিস্থিতির উন্নতি হলে আইপিএলের চলমান আসরে ফেরার আশাবাদও জানিয়েছেন ৩৪ বছর বয়সী এই তারকা।
গতপরশু রাতে সুপার ওভারে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষে দিল্লির রোমাঞ্চকর জয়ের পর আইপিএল ছাড়ার ঘোষণায় অশ্বিন লিখেছেন, ‘কাল (গতকাল) থেকে এ বছরের আইপিএল থেকে আমি বিরতি নিচ্ছি। কোভিড-১৯ ভাইরাসের বিপক্ষে লড়ছে আমার পরিবার ও আত্মীয়-স্বজনরা। এই কঠিন সময়ে আমি তাদের পাশে দাঁড়াতে চাই। পরিস্থিতি সঠিক দিকে এগোলে আমি খেলায় ফিরব বলে প্রত্যাশা করি। দিল্লি ক্যাপিটালসকে ধন্যবাদ।’
কয়েকদিন আগে ভারতে করোনাভাইরাসের ভয়াবহতা নিয়েও টুইট করেছিলেন অশ্বিন। স্বাস্থ্যসেবায় নিয়োজিত থাকা কর্মীদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানানোর পাশাপাশি তিনি সবাইকে নিরাপদে থাকতে আহবান করেছিলেন, ‘আমার দেশের চারিদিকে যা ঘটছে, তা দেখে আমার হৃদয় ভেঙে যাচ্ছে। স্বাস্থ্যসেবা দিয়ে যাওয়াদের সঙ্গে আমি যুক্ত না থাকলেও তাদের প্রত্যেকের প্রতি আমার আন্তরিক কৃতজ্ঞতা। সতর্ক ও সুরক্ষিত থাকার জন্য আমি প্রত্যেক ভারতীয়ের প্রতি আমি আন্তরিক আবেদন জানাই।’ অশ্বিনের সিদ্ধান্তের প্রতিক্রিয়ায় টুইটারে দিল্লি লিখেছে, ‘এই কঠিন সময়ে রবীচন্দ্রন অশ্বিনের প্রতি আমরা পূর্ণ সমর্থন জানাচ্ছি। দিল্লি ক্যাপিটালসের সকলের পক্ষ থেকে আপনার ও আপনার পরিবারের জন্য শক্তি কামনা ও প্রার্থনা করছি।’
যদি ভারতীয় ক্রিকেটাররাই শঙ্কা কাটিয়ে আসরে খেলতে না পারে তবে বিদেশীদের অবস্থা কেমন তা আর বলা অপেক্ষা রাখে না। তার রেশ পড়তে শুরু করেছে এবারের আইপিএলে। অশ্বিনসহ গত ২৪ ঘন্টায় মোট চার ক্রিকেটার মাঝপথেই বিদায় বলেছেন এবারের আসরকে। বাকি তিনজনই অস্ট্রেলিয়ান- অ্যান্ড্রু টাই, অ্যাডাম জ্যাম্পা ও কেন রিচার্ডসন।
অস্ট্রেলিয়ার স্পিনার জ্যাম্পা ও পেসার রিচার্ডসন ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে নাম প্রত্যাহার করে নিয়েছেন। দুজনই রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর স্কোয়াডের সদস্য। তাদের সিদ্ধান্তের বিষয়টি এদিনই নিশ্চিত করেছে ফ্র্যাঞ্চাইজিটি। এক বিবৃতিতে বেঙ্গালুরু জানিয়েছে, ‘অ্যাডাম জ্যাম্পা ও কেন রিচার্ডসন ব্যক্তিগত কারণে অস্ট্রেলিয়াতে ফিরে যাচ্ছেন। আইপিএলের বাকি অংশে তাদেরকে পাওয়া যাবে না। রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু সব ধরনের উপায়ে তাদের প্রতি পূর্ণ সমর্থন জানাচ্ছে।’
তবে আগের দিনই দেশের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন রাজস্থান রয়্যালসের অজি পেসার টাই। ফ্র্যাঞ্চাইজিটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, ব্যক্তিগত কারণে আইপিএল ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনিও। তবে নিজ দেশের রেডিও স্টেশন এসইএনকে টাই বলেছেন ভিন্ন কথা। করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে সীমান্ত বন্ধ হয়ে গেলে অস্ট্রেলিয়াতে ফেরা নিয়ে শঙ্কার কথা উল্লেখ করেছেন তিনি। জ্যাম্পা আর রিচার্ডসনও যে করোনার কারণে সরে দাঁড়িয়েছেন, তা আলাদা করে না বললেও চলে। আইপিএলে অংশ নেওয়া ক্রিকেটারদের অনেকের মধ্যেই বিরাজ করছে শঙ্কা। সেটা বোঝা গেছে মুম্বাই থেকে দোহা হয়ে সিডনিগামী বিমানে চড়া টাইয়ের মন্তব্যে, ‘অবশ্যই উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা রয়েছে। আমার ফেরার কথা শুনে অনেকে আমার সঙ্গে যোগাযোগ করেছে। আমি কোন পথে ও কীভাবে বাড়িতে ফিরছি, তা জানতে অনেকে ভীষণ আগ্রহী ছিল।’
এছাড়া গত সপ্তাহে টাইয়ের রাজস্থান সতীর্থ লিয়াম লিভিংস্টোন ফিরে যান ইংল্যান্ডে। জৈব-সুরক্ষা বলয়ে দীর্ঘদিন থাকার মানসিক ধকল নিতে না পারার কথা জানিয়েছিলেন এই ব্যাটসম্যান। কিন্তু সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, আপাতত আইপিএলের চলতি মৌসুম স্থগিত কিংবা বন্ধ রাখার কোনো ইচ্ছা নেই বিসিসিআইয়ের। সংস্থাটির এক জ্যেষ্ঠ অফিশিয়াল নাম প্রকাশ না করার শর্তে দেশের সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, ‘এখন পর্যন্ত যা পরিস্থিতি, তাতে আইপিএল চালিয়ে যাওয়া হবে। তবে কেউ যদি ছেড়ে যেতে চায়, তাতে কোনো সমস্যা নেই।’
উল্লেখ্য, ভারতে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির ক্রমেই অবনতি হচ্ছে। গতকাল দেশটির সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, সকাল ৮টা পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়ে সেখানে মারা গেছেন ২ হাজার ৮১২ জন। এটিই এখন পর্যন্ত দেশটিতে একদিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু। করোনায় এ পর্যন্ত ভারতে মারা গেছেন ১ লাখ ৯৫ হাজার ১২৩ জন।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (7)
গাজী ফজলুল করিম ২৭ এপ্রিল, ২০২১, ১:৩২ এএম says : 0
ইন্ডিয়ার এই খারাপ সময়ে আমরা তাদের পাশে আছি। রাজনৈতিকভাবে ইন্ডিয়াকে অপছন্দ করলেও, মানবিক দৃষ্টিতে তাঁদের প্রতি আমাদের এই সমর্থন। আমরা ইন্ডিয়াকে টাকাপয়সা, ওষুধ, সাজসরঞ্জাম দিতে পারব না, তবে দোয়া করতে পারি। শিগগিরই এই বিপদ কেটে যাক সেই প্রত্যাশা করি। শুভ কামনা
Total Reply(0)
Mohammad Shahidul Islam Shahid ২৭ এপ্রিল, ২০২১, ১:৩৩ এএম says : 0
অর্থলোভী না হলে প্রতিটি বিদেশি খেলোয়াড়দের আইপিএল থেকে সরে আসা উচিত। বর্তমান ভারতের করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ জেনেও আয়োজকেরা টুর্নামেন্টে চালিয়ে অর্থের লোভে অমানবিকতার পরিচয় দিচ্ছে। আইসিসির উচিত ভারত থেকে টি-টুয়ান্টি ক্রিকেট বিশ্বকাপ অন্যদেশে সরিয়ে নেয়া।
Total Reply(0)
হাশিম রেজা ২৭ এপ্রিল, ২০২১, ১:৩৩ এএম says : 0
আইপিএল চলা উচিৎ। যে টাইমে আইপিএল হচ্ছে, সেই সময়ে এট লিস্ট মানুষ ঘরে থাকছে। আইপিএল রিলেটেড ৬০০/৭০০ মানুষ আছে মাত্র। এরা নিজেদের মাঝেই আছে। আর তাছাড়া, নাটক, মুভি, সিরিয়াল কোনো কিছুই তো বন্ধ হয় নাই। অতি আবেগ না দেখায়া কাজের কাজ করতে হবে। বিসিসিয়াইয়ের উচিৎ, আইপিএলের লভ্যাংশ করোনা রোধে ব্যয় করা।
Total Reply(0)
মোঃ আলিফ হোসেন ২৭ এপ্রিল, ২০২১, ১:৩৪ এএম says : 0
সিদ্ধান্ত এমন একটা বিষয় যার মাধ্যমে ফুটে উঠে ব্যক্তি কিংবা রাষ্ট্রের দূরদর্শিতা অথবা অদূরদর্শিতা । এই যে লগডাউন নিয়ে খনে খনে সকাল কিংবা বিকেলে এত এত নিত্য নতুন সিদ্ধান্ত বদলানোর কারন কেউ কি বলতে পারেন?
Total Reply(0)
বাপ্পী জোয়ার্দার ২৭ এপ্রিল, ২০২১, ১:৩৪ এএম says : 0
মোস্তাফিজ ও সাকিব তোমরা ফিরে আসো আইপিএল ছেড়ে এ মাতৃভূমিতে???????? একই সময়ে ভারতে যেখানে লাশের সারি সেখানে আইপিএলে চলছে টাকার ওড়াউড়ি বিসিসিআাই যে যুক্তিই দাঁড় করাক বিষয়টি অমানবিক ও দৃষ্টিকটূ।।আইপিএল বন্ধ করা এখন সময়ের দাবী এই মহামারী থেকে আল্লাহ তুমি সকলকে রক্ষা করো
Total Reply(0)
মুমূর্ষু বাংলাদেশ ২৭ এপ্রিল, ২০২১, ১:৩৫ এএম says : 0
আমাদের সাকিব এত কষ্ট করে খেলতে গেছেন(নিন্দুকরা বলে পানি টানতে গেছেন) উনিও কি ফিরে আসবেন?ফিরে এসে কি উনি শ্রীলংকার বিমান ধরবেন?
Total Reply(0)
Abdul Mozid ২৭ এপ্রিল, ২০২১, ১:৩৫ এএম says : 0
খেলার উপর আর কিছু নেই, খেলতে চায় খেলুক, ওনারা তো ভালো খেলোয়াড়! এক দিকে মহামারীর তাণ্ডব লীলা অন্য দিকে খেলাধুলার আনন্দ মেলা! সবার ই তো বিজনেস টিকিয়ে রাখা দরকার।
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন