সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ২০ আষাঢ় ১৪২৯, ০৪ যিলহজ ১৪৪৩ হিজরী

সারা বাংলার খবর

কপিলমুনিতে বাঁধ রক্ষায় প্রাণান্তকর চেষ্টা এলাকাবাসীর

খুলনা ব্যুরো | প্রকাশের সময় : ২৬ মে, ২০২১, ৪:০২ পিএম

ভরা পূর্ণিমা আর ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে জোয়ারের উপচে পড়া পানিতে তলিয়ে গেছে খুলনার পাইকগাছা উপজেলার কপিলমুনি ও হরিঢালী ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি এলাকা। স্বেচ্ছাশ্রমের ভিত্তিতে এলাকাবাসী বাঁধ রক্ষায় প্রাণান্তকর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। কপোতাক্ষ পাড়ের এ উপজেলায় সোমবার রাত থেকেই জোয়ারে পানির চাপ বাড়ছিল। আজ বুধবার সকালে জোয়ারে বাঁধের বেশ কয়েকটি স্থান ভেঙ্গে পানি লোকালয়ে প্রবেশ করে। এর ফলে ভেসে গেছে ৫০ টির মত মৎস্যঘের, পানের বরজ ও পাটক্ষেতসহ কিছু ঘরবাড়ি।

স্থানীয়রা জানান, কপিলমুনি ইউনিয়নের আগড়ঘাটা ও মালথে নামক স্থানের কিছু অংশ এবং হরিঢালী ইউনিয়নের কপোতাক্ষ তীরবর্তী হাবিবনগর, পাররামনাথপুর, দরগামহল ও মামুদকাটি এলাকা বেড়িবাঁধ ভেঙ্গে গিয়ে প্লাবিত হয়েছে। ইউপি চেয়ারম্যান কওসার আলী জোয়াদ্দারের নেতৃত্বে এলাকাবাসী ও বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের সদস্যরা বাঁধ মেরামতের কাজে নেমে পড়েন। প্রাথমিক ভাবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান জানা না গেলেও ধারণা করা হচ্ছে প্রায় অর্ধকোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতির হয়েছে।

হরিঢালী ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য শেখ ফারুক হোসেন লাকি জানান, ঘুর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে নদীতে অতিরিক্ত পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। এ অবস্থায় পানির চাপে বেঁড়িবাধ ভেঙ্গে জোয়ারের পানি ঢুকে পড়ে। তিনি বলেন, ৯ নং ওয়ার্ডের হাবিবনগর, দরগামহল, পাররামনাথপুরসহ মামুদকাটির কিছু অংশ প্লাবিত হয়েছে। চেয়ারম্যানের পক্ষ থেকে ইউপি সচিব বিলাল হোসেন ঘটনাস্থলে গিয়ে সার্বিক বিষয়ে পর্যবেক্ষণ করছেন। কপিলমুনি ইউপি চেয়ারম্যান কওসার আলী জোয়াদ্দার বলেন, ইউনিয়নের কপোতাক্ষ তীরবর্তী মালথ পদ্মপুকুর নামক জায়গায় বেঁড়িবাধটি ভেঙে প্লাবিত হয়েছে। প্রায় সারাদিন চেষ্টার পর বেঁড়িবাধটি সংস্কার করা হয়েছে।

 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গত ৭ দিনের সর্বাধিক পঠিত সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Google Apps