বুধবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২১, ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ২৫ রবিউস সানী ১৪৪৩ হিজরী

বিনোদন প্রতিদিন

ক্যারিয়ারের ২২ বছর পূর্ণ করলেন শাকিব খান

বিনোদন ডেস্ক | প্রকাশের সময় : ২৯ মে, ২০২১, ১১:১৫ এএম

শুক্রবার (২৮ মে) ক্যারিয়ারের ২২ বছর পূর্ণ করলেন ঢাকাই সিনেমার শীর্ষ নায়ক শাকিব খান। যদিও সুপারস্টার তকমাটা পেয়েছেন অনেক আগেই। প্রায় দুই যুগের চলচ্চিত্র অভিযাত্রায় তিনি নিজেই এখন ঢালিউড চলচ্চিত্রের একচ্ছত্র অধিপতি হয়ে উঠেছেন সাফল্য ও ব্যবসার মানদণ্ডে। ক্যারিয়ারের এই ২২ বছরে এসে তাই তিনি স্মরণ করেছেন পেছনের দিনগুলোর কথা। কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন প্রথম ছবির প্রযোজক, পরিচালক এবং ভক্তদের।

২২ বছরের এ যাত্রার প্রথম দিনের কথা স্মরণ করে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে শুক্রবার (২৮ মে) শাকিব লিখেছেন, যখন চলচ্চিত্র ক্যারিয়ার শুরু করি তখন আমি অপরিপক্ক কিন্তু দূরদর্শী ছিলাম। জানতাম না কোথায় যাচ্ছি বা কি করব! শুধু একুটু জানতাম, আমাকে কঠোর পরিশ্রম করতে হবে এবং কোনো সময় হাল ছেড়ে দেয়া যাবে না। আজ যখন ফিরে তাকাই, তখন আমি সকল মানুষ এবং অভিজ্ঞতার কাছে কৃতজ্ঞ।

যাদের জন্য আজকে তিনি শাকিব খান, তাদের ধন্যবাদ দিয়ে শাকিব লেখেন, ‘আমার প্রথম চলচ্চিত্র অনন্ত ভালোবাসা এর পরিচালক এবং প্রযোজকের কাছে আমি কৃতজ্ঞ, যারা আমাকে সুযোগ দিয়েছিলেন। এরপর আমার সকল পরিচালক, প্রযোজক, সহকর্মী, শুভাকাঙ্ক্ষী এবং বিশেষ করে আমার ভক্তদের ধন্যবাদ দিচ্ছি যাদের জন্য আজকের আমি তৈরি হয়েছি।’

উল্লেখ্য, নৃত্যপরিচালক আজিজ রেজার সঙ্গে ১৯৯৫ সালে পরিচয় হয় নারায়ণগঞ্জে বেড়ে ওঠা মাসুদ রানার। তার মাধ্যমেই এফডিসিতে প্রবেশ করেন মাসুদ রানা। পরিচিত হন বেশ কয়েকজন চিত্রনির্মাতার সঙ্গে। ওই সময় শাকিল খানের সঙ্গে বিরোধের কারণে নতুন নায়ক খুঁজছিলেন পরিচালক সোহানুর রহমান সোহান। কাকতালীয়ভাবে পেয়ে যান মাসুদ রানাকে। চুক্তিবদ্ধ করেন ‘অনন্ত ভালোবাসা’ সিনেমায়। এ সিনেমার শুটিংয়ে মাসুদ রানার নাম বদলে দেন পরিচালক সোহান। মাসুদ রানা হয়ে যান শাকিব খান। ১৯৯৯ সালের ২৮ মে মুক্তি পায় শাকিব অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র 'অনন্ত ভালোবাসা'। প্রথম সিনেমা ব্যবসা সফল না হলেও নজর কাড়েন তিনি।

সেই মাসুদ রানাই ধীরে ধীরে হয়ে উঠেছে সুপারস্টার, মেগাস্টার, কিং খান শাকিব খান। দীর্ঘ এই পথচলায় অভিনেতা থেকে হয়েছেন প্রযোজক। ছিলেন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি। অভিনয় করেছেন কলকাতার সিনেমায়। কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ চারবার পেয়েছেন জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। এছাড়াও পেয়েছেন আটটি মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার,তিনটি বাচসাস পুরস্কার ও চারটি সিজেএফবি পারফরম্যান্স পুরস্কার। এখন শাকিব খান কাজ করছেন লিডার- আমিই বাংলাদেশ সিনেমায়।
 
 

Thank you for your decesion. Show Result
সর্বমোট মন্তব্য (1)
Dadhack ২৯ মে, ২০২১, ৯:৪২ পিএম says : 0
সিনেমা নাটক গান-বাজনা এগুলির বেহায়াপনা অশ্লীলতা যিনা-ব্যভিচার ছড়ায় এর কারণে মানুষ অবৈধ সম্পর্ক করে যেনা ব্যভিচার করে, পরকীয়া করে, আর এর প্রভাব পড়ে পারিবারিক জীবনে, সামাজিক জীবনে ও রাষ্ট্রীয় জীবনে, সমাজ পরিবার ও রাষ্ট্র সবকিছু ধ্বংস হয়ে যায়, সেখানে কোন সুখ শান্তি থাকে না আল্লাহ মোমেন পুরুষ ও নারীর দৃষ্টি নত ও লজ্জাস্থান হেফাজত করতে বলেছেন, তাহলে কেমন করে একটা নারী পর পুরুষের দিকে তাকিয়ে সিনেমা-নাটক দেখতে পারে ,পুরুষ ও কেমন করে একটা নারীর দিকে তাকিয়ে থাকে. গান-বাজনা ও হারাম করেছেন তাহলে কেমন করে পুরুষ ও মহিলারা গান-বাজনা শুনে. নাচানাচি আল্লাহ হারাম করেছে, তাহলে কেমন করে পুরুষ ও নারী এইসব জঘন্য অঙ্গ ভঙ্গিমায় অশ্লীল নাচ দেখে. যারা ঈমানদারদের মধ্যে লজ্জাজনক বিষয় প্রচার করে সূরা: ২৪:Ayat:১৯: “নিশ্চয় যারা যারা ঈমানদারদের মধ্যে লজ্জাজনক বিষয় প্রচার ও অশ্লীলতা ছড়িয়ে দিতে পছন্দ করে তাদের জন্য রয়েছে দুনিয়া ও আখেরাতে এক বেদনাদায়ক আযাবের শাস্তি। আল্লাহ জানেন, কিন্তু তোমরা জান না।” (সূরা:7: Ayat: 33) "তাদেরকে বলুন:" আমার পালনকর্তা কেবল প্রকাশ্য বা গোপনীয়, অশ্লীল কাজ নিষিদ্ধ করেছেন" (সূরা:6: Ayat:151) "তাদেরকে বলুন (হে মুহাম্মদ!) 'এমনকি লজ্জাজনক বিষয়গুলির ধারে কাছেও যেয়ো না – এগুলি প্রকাশ্য বা গোপনীয় হোক" সূরা:24:Ayat21: "কুরআনের বিভিন্ন স্থানে আল্লাহ আমাদের শয়তানের পদক্ষেপ অনুসরণ না করার জন্য সতর্ক করেছেন:" শয়তান মানুষকে লজ্জাজনক কাজের জন্য উত্সাহিত করে এবং সর্বজনীনভাবে গৃহীত ভুল কাজ করতে উত্সাহিত করে(আল-মুনকার)" Surah:7:Ayat:28 ”আর যখন তারা কোনো অশ্লীল কাজ করে তখন বলে আমরা এতে আমাদের পূর্বপুরুষদেরকে পেয়েছি এবং আল্লাহ আমাদেরকে এর নির্দেশ দিয়েছেন, বল নিশ্চয়ই আল্লাহ অশ্লীল কাজের নির্দেশ দেন না তোমরা কি আল্লাহর ব্যাপারে এমন কিছু বলছ যা তোমরা জানো না” Surah:17:Ayat:32: “তোমরা অবৈধ যৌন সংযোগ এর ধারে-কাছে যেও না ওটা অশ্লীল ও নিকৃষ্ট আচরণ” সূরা: ২৪:Ayat২১: "কুরআনের বিভিন্ন স্থানে আল্লাহ আমাদের শয়তানের পদক্ষেপ অনুসরণ না করার জন্য সতর্ক করেছেন:" শয়তান মানুষকে লজ্জাজনক কাজের জন্য উত্সাহিত করে এবং সর্বজনীনভাবে গৃহীত ভুল কাজ করতে উত্সাহিত করে(আল-মুনকার)" Surah:7:Ayat:28 ”আর যখন তারা কোনো অশ্লীল কাজ করে তখন বলে আমরা এতে আমাদের পূর্বপুরুষদেরকে পেয়েছি এবং আল্লাহ আমাদেরকে এর নির্দেশ দিয়েছেন, বল নিশ্চয়ই আল্লাহ অশ্লীল কাজের নির্দেশ দেন না তোমরা কি আল্লাহর ব্যাপারে এমন কিছু বলছ যা তোমরা জানো না” Surah:17:Ayat:32: “তোমরা অবৈধ যৌন সংযোগ এর ধারে-কাছে যেও না ওটা অশ্লীল ও নিকৃষ্ট আচরণ”
Total Reply(0)

এ সংক্রান্ত আরও খবর

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন